সোমবার, ২৭ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

গর্ভবতী গাভী চুরি: মাংস নিয়ে রেখে গেছে হাড়-মাথা-চামড়া

আপডেট : ২১ এপ্রিল ২০২৪, ১৩:০৩

মিরসরাইয়ে একটি গর্ভবতী গাভী চুরি করে জবাইয়ের পর মাংস নিয়ে পালিয়েছে চোর। শনিবার (২০ এপ্রিল) দিবাগত রাতে উপজেলার ৫নং ওচমানপুর ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডের সাহেবপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। 

গাভীর মালিক ওই গ্রামের নাসির উদ্দিন খোকা মিয়া। তিনি জানান, গোয়ালঘরের তালা ভেঙ্গে বাড়ি থেকে প্রায় একশ মিটার দূরে পতিত জমিতে গাভী জবাই করে মাথা, চামড়া, পিছনের দুটি পা, হাড় ও পাকস্থলী রেখে মাংস নিয়ে চলে যায় চোর। গাভীর মূল্য প্রায় ১ লাখ টাকা ছিলো বলে জানান তিনি।

নাসির উদ্দিনের ভাতিজা রেজাউল করিম বলেন, ‘প্রতিদিনের মত আমার জ্যাঠা গোয়াল ঘরে গরু বেঁধে ঘুমাতে যান। রাতে বাড়ির সবাই যখন ঘুমাচ্ছিল তখন চোরের দল গোয়াল ঘরের তালা ভেঙ্গে গাভী নিয়ে যায়। রবিবার সকালে জ্যাঠা গিয়ে দেখেন গোয়ালঘরের তালা ভাঙ্গা, ভেতরে গাভী নেই। চারিদিকে খোঁজ নেওয়ার এক পর্যায়ে খবর পান বাড়ির পেছনে প্রায় একশ মিটার দূরে পুকুর পাড়ের পাশে পতিত জমিতে গাভীর মাথা, চামড়া, পিছনের দুটি পা, হাড় ও পাকস্থলী পড়ে রয়েছে। গাভীর পেটে ৬ মাসের একটি বাচ্চাও ছিল। মানুষ কতটা পাষণ্ড হলে এভাবে গাভী জবাই করে মাংস নিয়ে যেতে পারে। এমন কাজে গ্রামের মানুষ হতবিহ্বল হয়ে পড়েছে।’
 
উপজেলার ৫নং ওচমানপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মফিজুল হক বলেন, ‘আমার জীবনে প্রথম শুনেছি গরু চুরি করে মাংস নিয়ে হাড় রেখে যাওয়ার বিষয়। জড়িতদের আইনের আওতায় আনার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে আমি সহায়তা করবো।’

জোরারগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবদুল্লাহ আল হারুন বলেন, ‘গরু চুরি করে মাংস নিয়ে হাড় রেখে যাওয়ার বিষয়টি প্রথম শুনেছি। মালিক পক্ষ থেকে কোন অভিযোগ পাইনি। তারপরও মানবিক দৃষ্টিকোণ থেকে বিষয়টি খোঁজ নেবো।’

ইত্তেফাক/এসজেড