শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

‘সরকারের কার্যকর পদক্ষেপের সুফল পাচ্ছেন ভাঙনকবলিতরা’

আপডেট : ২৭ এপ্রিল ২০২৪, ১৭:০৫

শরীয়তপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক পানিসম্পদ উপমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম বলেছেন, সারা দেশের নদীভাঙন রোধে দ্রুত কাজ করছে সরকার। আর এই পদক্ষেপের কারণেই নদী ভাঙন কমে এসেছে। 

শনিবার (২৭ এপ্রিল) দুপুরে শরীয়তপুর জেলার সখিপুরে নির্মাণাধীন সোনার বাংলা এভিনিউয়ের কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এ কথা বলেন তিনি।

ভাঙনকবলিত মানুষ তার সুফল পেতে শুর করেছেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, যারা এক সময় দিনরাত নদী ভাঙন আতঙ্কে থাকতেন, তারা এখন পর্যটন এলাকা হচ্ছে বলে গর্ববোধ করেন। বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষমতায় আছেন বলেই তা সম্ভব হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে পদ্মা সেতু হয়েছে। এই সেতু হওয়ায় শরীয়তপুরের গুরুত্ব অনেক বেড়ে গেছে। ৫ বছর আগেও নড়িয়ায় নদী ভাঙন ছিল। হাজার হাজার মানুষ ভিটেমাটি হারা হয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বদৌলতে এখন আর নড়িয়ায় নদী ভাঙন নেই। 

ভাঙনকবলিত নড়িয়ায় জয়বাংলা এভিনিউ হয়েছে। পর্যটন কেন্দ্রে পরিণত হয়েছে এই এলাকা। সখিপুরে সোনার বাংলা এভিনিউ হচ্ছে। জাজিরায় রূপসী বাংলা এভিনিউ হচ্ছে। 

শামীম বলেন, এসব প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে এই অঞ্চলে আর নদী ভাঙন থাকবে না। আজকে সখিপুরে বেড়িবাঁধ হওয়ায় জমির দামও বেড়েছে। শুধু সখিপুর নয়, পদ্মা সেতু থেকে জাজিরা, নড়িয়া ও শরীয়তপুর শহরেও কীর্তিনাশাকে ভাঙনের হাত থেকে রক্ষা করতে পেরেছি। শরীয়তপুরকে একটি উন্নত জেলায় পরিণত করতে কাজ করছি আমরা। তবে কাজের গুণগত মান যাতে ঠিক থাকে, সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। কাজের ব্যাপারে কোনো প্রকার গাফিলতি, অনিয়ম ও দুর্নীতি সহ্য করা হবে না।

এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন কাঁচিকাঁটা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নুরুল আমিন দেওয়ান, চরসেনসাস ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আনোয়ার বালাসহ আওয়ামী, যুবলীগ, ছাত্রলীগ অন্যদের মধ্যে পানি উন্নয়ন বোর্ড ও প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা।

পরে এনামুল হক শামীম চরভাগা, সখিপুর, চরসেনসাস ইউনিয়নের নরসিংহপুর ফেরীঘাট পরিদর্শন করে আকর্ষণীয় পর্যটন কেন্দ্র করার পরিকল্পনা করেন।

ইত্তেফাক/পিও