মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

জমি লিখে না দেওয়ায় বৃদ্ধ মাকে মারধর অভিযোগ ছেলের বিরুদ্ধে

আপডেট : ১২ মে ২০২৪, ১৮:৫৪

সিরাজগঞ্জের কামারখন্দে ছেলের ঋণের টাকা পরিশোধ ও জমি লিখে না দেওয়ায় বৃদ্ধা মাকে মারধর করে আহত করার অভিযোগ উঠেছে ছেলে শাহ আলম ও পুত্রবধূর বিরুদ্ধে। আহত বৃদ্ধা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন। 

শুক্রবার (১১ মে) দুপুরে উপজেলার হায়দারপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। আহত বৃদ্ধা ওই গ্রামের শহিদুল ইসলামের স্ত্রী শাহানাজ খাতুন (৫৭)। 

জানা গেছে, জমি ও ঋণের টাকা পরিশোধ না করায় ওই বৃদ্ধার বড় ছেলে শাহ আলম ও তার স্ত্রী মর্জিনা খাতুন মারধর করেন। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় ওই বৃদ্ধাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। তার মাথায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে জখমের চিহ্ন রয়েছে। 

শাহ আলমের স্ত্রী মর্জিনা খাতুন বলেন, আমার স্বামীকে শাশুড়ি ঘর থেকে বের করে দেয়। জমিজমা ও টাকা তার ছোট ছেলে ও তার মেয়ে দিয়েছে। আমার স্বামী ঋণ করে ঘর দিয়েছে সেই ঘর থেকে এখন বের করে দিতে চাই। এটা নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে ঝামেলা চলছে। শুক্রবার দুপুরে এ বিষয়গুলো নিয়ে আবারও কথা-কাটাকাটি হয়। তখন আমার স্বামী তাকে ধাক্কা দেয় এবং আমার শাশুড়িকে মারধর করে। তবে আমি শাশুড়িকে মারধর করিনি কিন্তু ধাক্কা দিয়েছিলাম। এতে মাথায় একটু কেটে গেছে। 

রায়দৌলতপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) ৫ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য ফরহাদুল ইসলাম হ্যাপি বলেন, ঘটনাটি আমি জানি না। ঘটনা সত্য হলে ছেলে ও তার স্ত্রীর বিষয়ে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেব। 

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক মিথিলা আক্তার বলেন, মাথায় সেলাই দেওয়া হয়েছে। শরীরের বিভিন্ন অংশে জখমের দাগ রয়েছে। আগের চেয়ে অবস্থা ভালো। তবে পুরোপুরি সুস্থ হতে সময় লাগবে। 

কামারখন্দ থানার ওসি রেজাউল ইসলাম বলেন, লিখিত কোনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেব। আর ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠাচ্ছি।

ইত্তেফাক/পিও