রোববার, ২৬ মে ২০২৪, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

প্রথমবারের মতো সিএএ আইনে ১৪ জনকে নাগরিকত্ব দিলো ভারত

আপডেট : ১৫ মে ২০২৪, ২২:৪৮

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের (সিএএ) অধীনে প্রথমবারের মতো ১৪ জনকে নাগরিকত্ব দিলো ভারত। এ আইনের অধীনে পাকিস্তান, আফগানিস্তান ও বাংলাদেশের নির্যাতিত অমুসলিম অভিবাসীদের নাগরিকত্ব দেওয়ার প্রক্রিয়া চালু করলো দেশটি।

আজ বুধবার প্রথমারের মতো ২০১৯ সালে পাস হওয়া নাগরিকত্ব আইন অনুযায়ী অন্য দেশের কাউকে নাগরিকত্ব দিলো ভারত।

সিএএ-এর অধীনে পাকিস্তান, বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান থেকে আসা নথিবিহীন অমুসলিম অভিবাসীদের জন্য নাগরিকত্ব আবেদনের যোগ্যতার সময়কাল ১১ থেকে কমিয়ে ৫ বছর করা হয়েছে যারা। অর্থাৎ যারা ৩১ ডিসেম্বর ২০১৪ সালে আগে ভারতে এসেছেন তারাই আবেদন করতে পেরেছেন।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র সচিব শ্রী অজয় কুমার ভাল্লা দিল্লিতে আবেদনকারীদের নাগরিকত্বের শংসাপত্র হস্তান্তর করেছেন এবং সিএএ-এর প্রধান বৈশিষ্ট্যগুলো তুলে ধরেছেন।

প্রতিবেশি তিন মুসলিম দেশ থেকে আসা হিন্দু, শিখ, জৈন, বৌদ্ধ, পার্সি ও খ্রিস্টানরা সিএএ-এর অধীনে আবেদন করতে পারবেন। আইনটি রাষ্ট্রপতির সম্মতি পেয়েছে তবে যে নিয়মের অধীনে ভারতীয় নাগরিকত্ব দেওয়া হয়েছিল তা চার বছরের বেশি বিলম্বের পরে চলতি বছরের ১১ মার্চ জারি করা হয়েছে।

ক্ষমতাসীন বিজেপি তাদের ২০১৯ সালের নির্বাচনী ইশতেহারে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল কার্যকর করার প্রতিশ্রু দেয়। পরে কোভিড মহামারির কারণে তা বাস্তবায়ন বিলম্বিত হয় বলেও জানানো হয়।

তবে এ আইনের বিরোধীতা করেছে বিরোধী দলগুলো। পদক্ষেপটিকে বৈষম্যমূলক এবং লোকসভা নির্বাচনে সুবিধা আদায়ের জন্য করা হয়েছে বলে অভিযোগ তাদের।

ভারতের বেশ কয়েকটি অংশ সিএএ বাস্তবায়নের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেছে। কেউ কেউ আশঙ্কা করছেন, আইনটি তাদের অবৈধ অভিবাসী ঘোষণা করতে এবং তাদের ভারতীয় নাগরিকত্ব কেড়ে নিতে ব্যবহার করা যেতে পারে।

ইত্তেফাক/এসএটি