শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

দল বিশ্লেষণ

বিশ্বকাপে খেলতে পারাই তাদের আনন্দ

আপডেট : ২৩ মে ২০২৪, ১৬:৪০

দরজায় কড়া নাড়ছে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। বাংলাদেশ সময় ২ জুন যুক্তরাষ্ট্র ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে শুরু হচ্ছে কুড়ি ওভারের বিশ্ব আসর। ২২ গজের লড়াইয়ের উত্তাপে গা মাখছে ক্রিকেটবিশ্ব। কোন দলের কতদূর যাওয়ার সম্ভাবনা, সেই আলোচনাও চলছে। এবারের আসরে অংশ নিচ্ছে ২০ দল। তাদের শক্তি-দুর্বলতা ও সম্ভাবনা নিয়েই এই আয়োজন। আজ থাকছে পাপুয়া নিউগিনিকে নিয়ে-

একবারই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলেছে পাপুয়া নিউগিনি। ২০২১ সালের ওই আসরে বিদায় নিয়েছিল গ্রুপ পর্ব থেকে। মাঝের একটি প্রতিযোগিতায় বাদ পড়ে আবারও কুড়ি ওভারের বিশ্ব আসরে ওশেনিয়া অঞ্চলের দলটি। পূর্ব এশিয়া-প্যাসিফিক অঞ্চলের বাছাই পর্ব পেরিয়ে বিশ্বকাপের মূল পর্ব নিশ্চিত করেছে পাপুয়া নিউগিনি।

দেশটিতে ক্রিকেট শুরু অনেক আগে। তবে ২২ গজে সেভাবে নিজেদের মেলে ধরতে পারেনি। আইসিসির বিভিন্ন স্তরের ক্রিকেটে উন্নতির ছোঁয়া থাকলেও বিশ্বমঞ্চে সুযোগ হচ্ছিল না। অবশেষে ২০২১ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে সুযোগ পেয়ে যায় পাপুয়া নিউগিনি। যদিও সেবার খেলতে হয়েছিল বাছাই পর্বের আদলে হওয়া প্রথম রাউন্ডে। থামতে হয়েছিল সেখানেই।

এবার পাপুয়া নিউগিনি সরাসরি খেলবে মূল পর্বে। ‘সি’ গ্রুপে তাদের প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড, ওয়েস্ট ইন্ডিজ, আফগানিস্তান ও উগান্ডা। সুপার এইট রাউন্ডে যাওয়ার স্বপ্ন দেখাটা তাদের জন্য বাড়াবাড়ি। তবে অঘটন ঘটিয়ে দেওয়ার আশা নিশ্চয় রাখছে। একই সঙ্গে এবারের বিশ্বকাপের সবচেয়ে বড় চমক উগান্ডাকে হারানোর স্বপ্নও হয়তো বুনছে ওশেনিয়া অঞ্চলের দেশটি।

যুক্তরাষ্ট্র ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিশ্বকাপে নামার আগে ‘প্রস্তুতি’ মন্দ হয়নি। এবারের বিশ্বকাপে খেলতে যাওয়া নেপালের বিপক্ষে বড় জয়ের আত্মবিশ্বাস সঙ্গী হচ্ছে তাদের। তবে মালয়েশিয়ার কাছে হেরে যাওয়ার দুঃখও আছে মনে।কুয়ালালামপুরের ওই ম্যাচটিতে ছিলেন দলের সেরা খেলোয়াড়ের অনেকেই।

পাপুয়া নিউগিনির প্রধান কোচের দায়িত্বে জিম্বাবুয়ের সাবেক উইকেটরক্ষক তাতেন্দা তাইবু। তার কোচিংয়ে বিশ্বকাপে দারুণ কিছু করার প্রত্যাশা দেশটির। তবে ফলাফল যাই হোক, বিশ্বকাপ মঞ্চে খেলতে পারাটাই তাদের কাছে বিশাল অর্জন। আর সেই পথটা যদি জয়ের আনন্দে রঙিন হয়, তাহলে তো কথাই নেই!

একনজরে:

অধিনায়ক: আসাদ ভালা।

কোচ: তাতেন্দা তাইবু্।

ডাকনাম: বারামুন্দিস।

র‌্যাংকিং: ২০।

বিশ্বকাপে অংশ নিয়েছে: একবার (২০২১)।

বিশ্বকাপে সেরা সাফল্য: গ্রুপ পর্ব (২০২১)।

আগের বিশ্বকাপের পারফরম্যান্স

কবারই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে খেলেছে পাপুয়া নিউগিনি। ২০২১ সালের সেই আসরে গ্রুপ পর্বেই থেমেছিল তারা। ২০২২ সালের সর্বশেষ প্রতিযোগিতায় সুযোগ পায়নি দলটি।

পাপুয়া নিউগিনির বিশ্বকাপ সূচি

২ জুন: ওয়েস্ট ইন্ডিজ (গায়ানা), রাত ৮-৩০ মিনিট

৬ জুন: উগান্ডা (গায়ানা), ভোর ৫-৩০ মিনিট

১৪ জুন: আফগানিস্তান (ত্রিনিদাদ), সকাল ৬-৩০ মিনিট

১৭ জুন: নিউজিল্যান্ড (ত্রিনিদাদ), রাত ৮-৩০ মিনিট

নজরে থাকবেন

আসাদ ভালা

বয়স ৩৬ বছর। কিন্তু এখনও আসাদ ভালার ব্যাটে দ্যুতিময় পারফরম্যান্স। এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে তার নেতৃত্বেই খেলতে নামছে পাপুয়া নিউগিনি। দেশটির হয়ে সর্বোচ্চ ৫৯ টি-টোয়েন্টি খেলার রেকর্ড আসাদের।

অভিজ্ঞতা ও পারফরম্যান্স দিয়ে লম্বা সময় পাপুয়া নিউগিনিকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন এই ব্যাটার। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে তার নামের পাশে রয়েছে ১ হাজার ২৪৪ রান। আছে একটি সেঞ্চুরির কাছাকাছি ইনিংস (৯৩ রান)।

টনি উরা

আসাদ ভালার মতো টনি উরাও লম্বা সময় পাপুয়া নিউগিনির ক্রিকেটসঙ্গী। ২০১৪ সাল থেকে কুড়ি ওভারের ক্রিকেট খেলছেন ৩৪ পেরিয়ে যাওয়া এই ব্যাটার। ক্রিকেটের সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটে দেশটির সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক তিনি।

৫৬ ম্যাচে করেছেন ১,৬১৮ রান। কুড়ি ওভারের ক্রিকেটে তিনি পাপুয়া নিউগিনির সেরা ব্যাটার। এই ফরম্যাটে দেশটির একমাত্র সেঞ্চুরিয়ানও তিনি। বিশ্বকাপে নামতে যাচ্ছেন ১৫৬-এর বেশি স্ট্রাইক রেট নিয়ে।

শক্তি

* ব্যাটিং তাদের মূল শক্তির জায়গা।

* দলটির বেশ কয়েকজন খেলোয়াড় একসঙ্গে খেলছেন অনেক দিন।

দুর্বলতা

* বোলিং নিয়ে ভুগতে হতে পারে।

* দলে সেরকম অলরাউন্ডার নেই।

* একাই ম্যাচ ঘুরিয়ে দিতে পারেন, এমন খেলোয়াড় নেই।

* বড় দলের বিপক্ষে খেলার অভিজ্ঞতা খুব একটা নেই।

ভবিষ্যদ্বাণী: গ্রুপ পর্ব।

পাপুয়া নিউগিনি স্কোয়াড: আসাদ ভালা (অধিনায়ক), চার্লস আমিনি, জন কারিকো, কাবুয়া মোরেয়া, কিপলিং দোরিগা, লেগা সিয়াকা, নর্মান ভানুয়া, সেমা কামেয়া, সেসে বাউ, টনি উরা, আলেই নাও, চাদ সোপার, হিলা ভারে, হিরি হিরি, জ্যাক গার্ডনার।

ইত্তেফাক/জেডএইচ

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন