শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

রাইসির মৃত্যুতে ইসরায়েলি রাজনীতিকদের উচ্ছ্বাস

আপডেট : ২১ মে ২০২৪, ১৬:০৭

হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ইরানের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসি। তার মৃত্যুতে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে কয়েকজন ইহুদি ধর্মীয় নেতা সোশ্যাল মিডিয়ায় রাইসিকে নিয়ে বিভিন্ন পোস্ট করেছেন। ইসরায়েল সরকার আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু না বললেও ইহুদি ধর্মীয় নেতারা রাইসির মৃত্যুর পর তার প্রতি ক্ষোভ উগড়ে দিচ্ছেন।

ইসরায়েলি সংবাদমাধ্যম ও বিভিন্ন রাজনীতিকের মন্তব্যে উচ্ছ্বাস ফুটে উঠেছে। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মৃত্যু নিয়ে ব্যঙ্গ করতেও দেখা গেছে। রাইসির মৃত্যুর পর ইরানের নীতি নিয়ে ইসরায়েল বেইতেনু দলের চেয়ারম্যান অ্যাভিগদর লিবারম্যান বলেন, আমি মনে করি না রাইসির মৃত্যুর পর এই অঞ্চলে ইরানের নীতির কোনও পরিবর্তন আসবে। ইরানের নীতি নির্ধারণ হয় তাদের সর্বোচ্চ নেতার (আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি) মাধ্যমে। একইভাবে এই ঘটনার পর ইসরায়েলের অবস্থারও পরিবর্তন হবে না।

তিনি আরও বলেছেন, কোনও সন্দেহ নেই ইরানি প্রেসিডেন্ট একজন নৃশংস মানুষ ছিলেন। তার জন্য আমরা এক ফোঁটা চোখের জলও ফেলব না। 

ইসরায়েল ন্যাশনাল নিউজের এক খবরে বলা হয়েছে, ইরানি প্রেসিডেন্টের মৃত্যু ইসরায়েলের জনগণের জন্য ভালো খবর। সোমবার এই মৃত্যু উদযাপনে প্রার্থনা ও নাচের আয়োজন করা হয়েছে।

ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রীর অফিসের ডেপুটি মিনিস্টার আভি মাওজ বলেন, একমাসের কম সময় আগে তিনি (রাইসি) হুমকি দিয়েছিলেন, ইসরায়েল যদি আক্রমণ করে তাহলে কিছুই অবশিষ্ট থাকবে না। এখন সেই তিনিই ইতিহাসের ধূলিকণা হয়ে গেলেন।

১৯ মে ইরানের উত্তরাঞ্চলে মর্মান্তিক ওই হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় রাইসিসহ আরোহী ৯ জনের কেউ প্রাণে বাঁচেননি। প্রায় ১৫ ঘণ্টার অভিযান শেষে দুর্ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধারকারীরা কারও জীবনের চিহ্নই খুঁজে পাননি।

ইরানের সরকার জানিয়েছে, হার্ড ল্যান্ডিং কারণে এই দুর্ঘটনার ঘটেছে। তবে দুর্ঘটনার আগে হেলিকপ্টার থেকে একবার যোগাযোগ করা হয়, সেই ছিল শেষ কথা।

ইত্তেফাক/এএইচপি