শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

নরসিংদীর চরাঞ্চলে দুই পক্ষের মধ্যে গোলাগুলি, আহত ১০

আপডেট : ২৩ মে ২০২৪, ১৬:৪৬

নরসিংদী সদর উপজেলার চরাঞ্চল আলোকবালীতে বালুর ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ ও আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ ও গোলাগুলির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় টেঁটা ও গুলিবিদ্ধ হয়ে উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (২৩ মে) ভোরে আলোকবালীর ইউনিয়নের খোদাদিল্লায় যুবলীগকর্মী জাকির হোসেন ও ইউনিয়ন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম আহ্বায়ক জয়নাল আবেদিন গ্রুপের মধ্যে এ ঘটনা ঘটে।  

স্থানীয়রা জানায়, জাকির গ্রুপের নেপথ্যে রয়েছে ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সভাপতি আসাদ উল্লাহ। আর জয়নাল আবেদিন গ্রুপে রয়েছে আলোকবালী ইউপি চেয়ারম্যান ও সাবেক ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি দেলোয়ার হোসেন দীপু, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সহসভাপতি বজলুর রহমান ফাহিম। তাদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরেই বালুর ব্যবসা ও আধিপত্য বিস্তার নিয়ে উত্তেজনা চলছিল।  এরই জের ধরে বৃহস্পতিবার ভোরে সেটি হামলায় রুপ নেয়। এসময় টেটা ও গুলিবিদ্ধসহ উভয় গ্রুপের অন্তত ১০ জন আহত হয়। আহতদের উদ্ধার করে নরসিংদী সদর ও জেলা হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। 

আহতরা হলেন—ফিরুল মিয়ার ছেলে তৈয়ব, ছাত্তার মুন্সির ছেলে কুতুব উদ্দিন, হক মিয়ার ছেলে আব্দুল্লাহ, কামাল মিয়ার ছেলে রমজান, জামাল মিয়ার ছেলে মামুন, শাফিন আয়েছের ছেলে রাসেল, গণি মিয়ার ছেলে কাজল ও সেলিম মিয়ার ছেলে ইমন। আহতদের মধ্যে কুতুব উদ্দিনকে (৩৫) আশঙ্ককজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিকেল কলেজে পাঠানো হয়। 

নরসিংদী সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তানভীর আহমেদ বলেন, ‌‘আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে তাদের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। খবর পেয়ে ভোর থেকে আমরা ঘটনাস্থলে রয়েছি। খোদাদিলা গ্রামটি অনেক বড়। একদিকে ধাওয়া করলে অন্যদিক দিয়ে পালাচ্ছে। অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে এবং এ ঘটনায় কাউকে আটক করা যায়নি।’  

ইত্তেফাক/ডিডি