শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

ইইউ নির্বাচনে ডানপন্থী প্রভাব কতটা

আপডেট : ০৮ জুন ২০২৪, ২১:৩৭

স্লোভাকিয়া, ইতালিসহ ইউরোপীয় ইউনিয়নের কয়েকটি দেশে ইউরোপীয় পার্লামেন্টের নির্বাচনের তৃতীয় দিনে ভোটগ্রহণ চলছে। পপুলিস্ট এবং অতি-ডানপন্থী দলগুলো ২৭ সদস্যের ব্লকে আরও বেশি আসন পেতে চায়।

ইইউ পার্লামেন্টের নয়জন সদস্য বেছে নেবে লাটভিয়া

লাটভিয়াজুড়ে ভোট কেন্দ্রগুলো সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা। বিশ্বের অন্যান্য দেশে দেশটির দূতাবাস এবং কনস্যুলেটগুলোতেও ভোট দেয়ার সুযোগ রয়েছে। তবে ভোটারদের সংগঠিত করতে কর্মকর্তা এবং রাজনৈতিক দলগুলোর প্রচেষ্টা সত্ত্বেও ভোটের সংখ্যা আগের তুলনায় কম হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

চলতি বছর ইউরোপীয় পার্লামেন্টের নয়জন লাটভিয়ান সদস্যকে নির্বাচন করবেন ভোটাররা।

গতবার দুটি আসন পেয়েছিল উদারপন্থী-রক্ষণশীল ঐক্য দল এবং কেন্দ্রীয়-বাম হারমনি দল দুটি আসন পেয়েছিল। ডানপন্থী ন্যাশনাল অ্যালায়েন্স তিনটি আসন পায়। একটি আসন ছিল কেন্দ্রীয়বাদী আন্দোলনের (সেন্ট্রিস্ট মুভমেন্ট) জন্য, আরেকটি লাটভিয়ান রাশিয়ান ইউনিয়নের জন্য।

পঞ্চম ইইউ নির্বাচনে মাল্টা

মাল্টার ভোটাররা ইউরোপীয় পার্লামেন্টের ছয় সদস্যের পাশাপাশি স্থানীয় কাউন্সিলরদের নির্বাচন করতে ভোটে রয়েছেন। তিন লাখ ৩২ হাজার ৯৬৭ জন ভোটার রয়েছে এ দেশে। সকাল ৭টা থেকে ১০টা পর্যন্ত কেন্দ্রগুলো খোলা৷ মাল্টা ও গোজো দ্বীপপুঞ্জের প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ভোটগ্রহণ চলছে।

৩৭ হাজারের মতো ভোটার, বা ভোটারদের ১০ শতাংশ বৃহস্পতিবার মাঝরাত অবধি ভোটের জন্য প্রয়োজনীয় নথি সংগ্রহ করেননি বলে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানিয়েছে।

২০০৪ সালে ইইউতে যোগদানের পর এটি মাল্টার পঞ্চম ইউরোপীয় নির্বাচন। ২০১৯ সালের নির্বাচনে লেবার পার্টি ইউরোপীয় সংসদের চারটি এবং জাতীয়তাবাদী দল দুটি আসনে জয়ী হয়েছিল।

ভোট যেভাবে হয়

ইউরোপীয় পার্লামেন্টের জন্য ভোট দেওয়া হয় একটি একক ব্যালটে সরাসরি সার্বজনীন ভোটাধিকারের মাধ্যমে৷ প্রতিটি দেশের জন্য সংসদ সদস্যের সংখ্যা তার জনসংখ্যার আকারের উপর নির্ভর করে।

ইউরোপীয়রা ২০১৯ সালে শেষ ভোটে ৭৫১ জন আইনপ্রণেতাকে নির্বাচিত করেছিল। পরের বছর ব্রিটেন ইইউ থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর ইউরোপীয় পার্লামেন্টের (এমইপি) সদস্য সংখ্যা ৭০৫ এ নেমে আসে। বর্তমান নির্বাচনের পর ইউরোপীয় পার্লামেন্টে ১৫ জন অতিরিক্ত সদস্য থাকবেন। ফলে মোট সংখ্যা দাঁড়াবে ৭২০ জন।

স্লোভাকিয়ায় শনিবারের ভোট

গত মাসে প্রধানমন্ত্রী রবার্ট ফিকো গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হন। এরই মধ্যে ভোটগ্রহণ চলছে ৫৪ লাখ জনসংখ্যার দেশটিতে। ১৫ মে ফিকোকে হত্যা করার প্রচেষ্টার এই ঘটনায় স্লোভাকিয়াসহ গোটা ইউরোপ স্তম্ভিত হয়েছে। 

ফিকো অসুস্থ শরীরেই একটি প্রাক-নির্বাচন ভিডিও প্রকাশ করেছেন যেখানে তিনি ওই হামলাকারীকে "স্লোভাক বিরোধীদের একজন কর্মী" হিসাবে বর্ণনা করেছেন। বিরোধীরা "আক্রমণাত্মক ও বিদ্বেষপূর্ণ রাজনীতি" করছে বলে অভিযোগ করেছেন।

১৪ মিনিটের ভিডিওতে ফিকো বলেছেন, "যে কোনো সময়ে এটা ট্র্যাজেডিক হয়ে যেতে পারতো।" ফিকোর দল ইউক্রেনে ইইউর অস্ত্র সরবরাহের বিরোধিতা করেছিল। ব্রাসেলসে "যুদ্ধবাজদের" বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করেছিল তারা।

এদিকে শুক্রবার কোপেনহাগেন স্কোয়ারে একজন ব্যক্তি ড্যানিশ প্রধানমন্ত্রী মেটে ফ্রেডেরিকসেনকে আঘাত করেন। ইউরোপে একের পর এক রাজনীতিবিদকে লক্ষ্য করে হামলা চালানো হচ্ছে।

'কিংমেকার' মেলোনি? 

ইতালিরকট্টর ডানপন্থি প্রধানমন্ত্রী জর্জ মেলোনি ইউরোপীয় কমিশনের পরবর্তী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ক্ষেত্রে নির্ণায়ক হতে পারেন। তার ব্রাদার্স অফ ইটালি (এফডিআই) পার্টি ইউরোপীয় পার্লামেন্ট নির্বাচনে লাভবান হতে পারে।

বর্তমান কমিশনের প্রেসিডেন্ট উরসুলা ফন ডেয়ার লায়েন ইউরোপীয় রক্ষণশীল এবং সংস্কারবাদী (ইসিআর) গ্রুপের নিশ্চিত ভোটে জয়ী হওয়ার আশায় মেলোনির সমর্থন চেয়েছেন। প্যান-ইউরোপীয় নরমপন্থি-ইউরোসেপ্টিক ব্লকের নেতৃত্বে মেলোনি এবং তার এফডিআই প্রার্থীরা নির্বাচিত হলে ইউরোপীয় পার্লামেন্টে যোগ দেবেন।

ইইউ-এর তৃতীয় সর্বাধিক জনবহুল দেশ হিসাবে ইটালির ৭২০টি আসনের ইউরোপীয় পার্লামেন্টে মোট ৭৬ জন প্রতিনিধি পাঠাতে পারে। ইইউ এর সমস্ত বামপন্থি দলকে বিরোধী দল হিসাবে পাঠানো মেলোনির লক্ষ্য।

অতি-ডান প্রভাব ফেলবে বলে ধারণা 

রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা পূর্বাভাস দিয়েছেন, ইউরোপীয় পার্লামেন্ট নির্বাচনের এই রাউন্ডে কেন্দ্রীয়-বাম এবং সবুজ দলগুলো অতি ডান এবং কেন্দ্রীয়-ডান উভয়ের কাছেই আসন হারাবে।

ইউরোপীয় কাউন্সিল অন ফরেন রিলেশনস (ইসিএফআর) এই বছরের শুরুতে বেলজিয়াম, ইটালি এবং ফ্রান্সসহ নয়টি ইইউ দেশে বিজয়ী ইইউ-বিরোধী দলগুলির সঙ্গে "ডানপন্থার প্রতি ঝোঁকের কথা' জানিয়েছে।

এর ফলে কেন্দ্রীয়-ডান ইউরোপিয়ান পিপলস পার্টি (ইপিপি); মধ্য-বাম সমাজতন্ত্রী এবং গণতন্ত্রী (এসঅ্যান্ডডি) এবং উদার-কেন্দ্রবাদী রিনিউ ইউরোপের সংখ্যাগরিষ্ঠতা হুমকির মুখে পড়তে পারে।

চরম ডানপন্থী জাতীয়তাবাদী আইডেন্টিটি অ্যান্ড ডেমোক্রেসি (আইডি) এবং এর তুলনায় কম ডানপন্থি কিন্তু ইউরোসেপ্টিক ইউরোপীয় রক্ষণশীল এবং সংস্কারবাদী (ইসিআর) দুয়েরই বড় আশা রয়েছে।  

ইত্তেফাক/এসআর