ঢাকা মঙ্গলবার, ০৭ এপ্রিল ২০২০, ২৪ চৈত্র ১৪২৬
৩৭ °সে

বিজ্ঞান বইয়ে আগ্রহ কিশোর-তরুণদের

বিজ্ঞান বইয়ে আগ্রহ কিশোর-তরুণদের
বিজ্ঞান বইয়ে আগ্রহ কিশোর-তরুণদের

বইমেলায় কিশোর-তরুণদের বিজ্ঞানের বইয়ের প্রতি আগ্রহ সবচেয়ে বেশি। শুধু বিজ্ঞানবিষয়ক বই প্রকাশ করে থাকে ‘বিজ্ঞান একাডেমি’। সেখানকার বিক্রয় প্রতিনিধি জানালেন, শিক্ষার্থীরাই আমাদের বইয়ের সবচেয়ে বড়ো ক্রেতা। আমাদের কোনো বই সু্কলে পাঠ্য নয়। তারপরও আমাদের কিশোর-তরুণরা বিজ্ঞানের প্রতি আগ্রহ থেকেই বিজ্ঞানের চমকপ্রদ সব বিষয়ের বইয়ের দিকে ঝুঁকছে।

শুধু বিজ্ঞান একাডেমি নয় অন্যান্য প্রকাশনী প্রতিষ্ঠানেও বিজ্ঞানের বইয়ের বিক্রি বেশ ভালো। বিজ্ঞানের প্রতি আগ্রহ থেকেই শিশু-কিশোর তরুণদের সায়েন্স ফিকশন পড়বার আগ্রহ সৃষ্টি হয়েছে। সে কারণে প্রতিটি স্টলেই বিজ্ঞানের বই রয়েছে, রয়েছে সায়েন্স ফিকশন। বিক্রিও হচ্ছে খুব ভালো। প্রতিবছর তো মুহম্মদ জাফর ইকবালের একটি সায়েন্স ফিকশন প্রকাশ পাওয়া বইমেলার প্রথায় পরিণত হয়েছে। তার পাঠকরাও অপেক্ষায় থাকেন কখন আসবে তার বই। এছাড়াও, তরুণ আরো বেশ কয়েকজন লেখক নিয়মিত সায়েন্স ফিকশন বই লিখছেন। এর পাশাপাশি আইজ্যাক আজিমভ, আর্থার সি ক্লার্ক এর অনূদিত বিজ্ঞানবিষয়ক বইও সমানভাবে জনপ্রিয় পাঠকদের কাছে। মেলায় এ পর্যন্ত বিজ্ঞানবিষয়ক নতুন বই এসেছে ৬৮টি, চিকিত্সা বিজ্ঞানবিষয়ক ২৩টি আর সায়েন্স ফিকশন এসেছে ৫৩টি।

মেলায় সময় প্রকাশনী এনেছে মুহম্মদ জাফর ইকবালের সায়েন্স ফিকশন ‘গ্লিনা’, তাম্রলিপি থেকেও মুহম্মদ জাফর ইকবালের সায়েন্স ফিকশন প্রকাশিত হয়েছে ‘আকাশলীন’, কথা প্রকাশ এনেছে মুহম্মদ মনিরুল হুদার সায়েন্স ফিকশন ‘ছোটন’, অনুপম এনেছে ভবেশ রায়ের ‘বিস্ময়কর রোবটিকনোলজির হাজার তথ্য’, বাংলা একাডেমি থেকে প্রকাশিত উত্তম কুমার সরকারের ‘অর্থনৈতিক প্রাণিবিজ্ঞান’, বিবেকানন্দ বিশ্বাসের “আর্থোপ্রাডো”, তপন চৌধুরীর “জীবকোষ”, অপরেশ বন্দ্যোপাধ্যায়ের “অ্যাডভান্স বায়োলজি”, মো. শহীদুর রশীদ ভূঁইয়ার “জেনেটিক্যালি মডিফাইড ফসল বর্তমান ও ভবিষ্যত্”, সুব্রত কুমার সাহার “পরিবেশ বিজ্ঞান, মো. মকবুল হোসেনের “মৃত্তিকা ভুগোল”, জালালুর রহমানের “অর্ধপরিবাহী বিজ্ঞান”, এ এম হারুন- অর-রশিদের “আধুনিক নিউক্লিয়ার পদার্থবিজ্ঞান”। বিজ্ঞান একাডেমি এনেছে মনোয়ারুল আহমেদ বিন সালেহ ও শাহরিয়াজ সরকারের ‘মেধা বিকাশে জ্ঞান বিজ্ঞান’, শাহরিয়াজ সরকারের সম্পাদনায় ‘দৈনন্দিন বিজ্ঞান’, হাতেখড়ি এনেছে ডা. মো. মোজাম্মেল হোসাইনের ‘ডিজিজ ডায়াগনোসিস অ্যান্ড ট্রিটমেন্ট’, অনুপম প্রকাশনী থেকে সৌমিত্র চক্রবর্তীর “পৃথিবী”, “মহাকাশ”, “প্রাণিজগত্”, “বিজ্ঞান”, “সংখ্যা”, সৌমেন সাহার “রেবোটিভ”, “ন্যানো ফিজিও” শরীফ মাহমুদ ছিদ্দিকীর “চিকিত্সায় বিজ্ঞান, “রহস্যে ভরা ব্ল্যাকহোল”, ইত্যাদি প্রকাশনী থেকে আসছে, কল্পনা ভৌমিকের “বিজ্ঞান রাজ্যে দুঃসাহসিক নারীরা”, হারুন-অর-রশীদের “বিজ্ঞানের যত আবিষ্কার”, জুবায়ের আজাদের “বিশ্বসেরা বিজ্ঞানীরা” এবং “বিজ্ঞানের যত মজার খেলা”।

নতুন বই

শনিবারে নতুন বই এসেছে ২৪২টি। এরমধ্যে অন্যধারা এনেছে সারফুদ্দিন আহমেদ অনূদিত নোবেলজয়ী মালালা ইউসুফ জাইয়ের ‘মালালা’স ম্যাজিক পেন্সিল’, পারিজাত প্রকাশনী এনেছে মোনায়েম সরকার সম্পাদিত ‘গণহত্যা ১৯৭১’, যুক্ত এনেছে নিশাত জাহান রানার ‘আলোর নগর ছায়ার নগর’, মিজান পাবলিশার্স এনেছে নির্মলেন্দু গুণের ‘স্বনির্বাচিত ১১৫ কবিতা’, রাত্রি প্রকাশনী এনেছে ‘স্বকৃত নোমানের ‘মুসলিম মনন ও দর্শন অগ্রনায়কেরা’, পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স এনেছে মোজাফফর হোসেনের ‘তিমির যাত্রা’, অন্বয় প্রকাশনী এনেছে নির্মলেন্দু গুণের ‘শিরোনামহীন কবিতা’, বিভাস এনেছে নির্মলেন্দু গুণের প্রবন্ধ গ্রন্থ ‘রক্তঝরা নভেম্বর ১৯৭৫’, মাটিগন্ধা এনেছে আহমদ রফিকের ‘রাষ্ট্রভাষার লড়াই’, বাংলা একাডেমি এনেছে শামসুজ্জামান খানের ‘বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ বহুমাত্রিক বিশ্লেষণ’।

শিশু-কিশোর চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা : ক-শাখায় আবদুল্লাহ আল সাদ (প্রথম), ঋষিত শীল ধৃতি (দ্বিতীয়), রুহান আবদুল্লাহ (তৃতীয়)। খ-শাখায় মুনতাকা ইসলাম (প্রথম), নুজহাত তাসনীম রূপকথা (দ্বিতীয়), এস এম আবতাহী নূর (তৃতীয়)। গ-শাখায় নুরুল আফতাব (প্রথম), আবির রায় চৌধুরী (দ্বিতীয়), আরমান ভূইয়া অর্ক (তৃতীয়) স্থান লাভ করে।

আরো পড়ুন: ইউরোপে পোশাক রপ্তানি কমছে

শিশু-কিশোর আবৃত্তি প্রতিযোগিতা: ক-শাখায় সুমাইতা নুসাইবা (প্রথম), ঋদ্ধ হাসান (দ্বিতীয়), আহ্নাফ বিন জামান (তৃতীয়)। খ-শাখায় যারীন সালসাবিল অর্পা (প্রথম), নওবা তাহিয়া হোসেন (দ্বিতীয়), আব্দুল্লাহ আল হাসান মাহি (তৃতীয়) স্থান লাভ করে।

শিশু-কিশোর সংগীত প্রতিযোগিতা : ক-শাখায় আফরা আদিলা রিমঝিম (প্রথম), তানজিম বিন তাজ প্রত্যয় (দ্বিতীয়), ছুওয়াইবা কবির ও সুনিপুণ বড়ুয়া চৌধুরী (তৃতীয়)। খ-শাখায় তানিশা জাহান নরিকা (প্রথম), গার্গী ঘোষ (দ্বিতীয়) এবং ত্বাবীব ফাইরুজ রোদশী (তৃতীয়) স্থান লাভ করে।

মেলামঞ্চের অনুষ্ঠান

বিকালে অনুষ্ঠিত হয় শামসুজ্জামান খান সম্পাদিত বঙ্গবন্ধুর ৭ই মার্চের ভাষণ : বহুমাত্রিক বিশ্লেষণ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ পাঠ করেন মফিদুল হক। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন ড. সোনিয়া নিশাত আমিন, গোলাম কুদ্দুছ এবং মামুন সিদ্দিকী।

ইত্তেফাক/এএএম

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
০৭ এপ্রিল, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন