পরিবার নিতে রাজি না হওয়ায় জঙ্গি শামীমের লাশ আঞ্জুমানে হস্তান্তর

পরিবার নিতে রাজি না হওয়ায় জঙ্গি শামীমের লাশ আঞ্জুমানে হস্তান্তর
র‌্যাপিডঅ্যাকশন ব্যাটালিয়ন ক্যাম্পের নির্মাণাধীন ভবনের ব্যারাক। ফাইল ছবি

আত্মঘাতী হামলায় নিহত জঙ্গি শামীমের লাশ সাড়ে তিন বছর পর আঞ্জুমানে মুফিদুল ইসলামের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব) ক্যাম্পের নির্মাণাধীন ভবনের ব্যারাকে হামলার সময় নিহত হন শামীম।

পরিচয় নিশ্চিত হওয়ার পর যোগাযোগ করা হলেও পরিবার লাশ নিতে রাজি হয়নি। ফলে রবিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে র‌্যাব-১ দাফনের জন্য তার লাশ আঞ্জুমানে মুফিদুল ইসলামের কাছে হস্তান্তর করে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক লে. কর্নেল আশিক বিল্লাহ।

তিনি বলেন, পরিবার লাশ নিতে রাজি না হওয়ায় আমরা আঞ্জুমানে মুফিদুল ইসলামের কাছে হস্তান্তর করেছি।

র‌্যাব জানায়, নিহত যুবকের নাম শামীম (২৫)। বাড়ি নরসিংদীতে। বাবার নাম সাইদুর রহমান। তিনি একটা সময় বিদেশে ছিলেন। নব্য জেএমবির সদস্য শামীম ২০১৭ সালের ১৭ মার্চ দুপুর দেড়টার দিকে নিহত ব্যক্তিটি দেয়াল টপকে হজরত শাহজালাল বিমানবন্দরের কাছে আশকোনায় র‌্যাব ক্যাম্পের ভেতরে প্রবেশের সময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তাকে চ্যালেঞ্জ করলে সে তার সঙ্গে রাখা বোমাটির বিস্ফোরণ ঘটায় এবং ঘটনাস্থলেই নিহত হন।

আরো পড়ুন : খিলক্ষেতে কুড়িয়ে পাওয়া সেই নবজাতকের ঠাঁই হলো সমাজসেবা অধিদফতরে

নিহতের পাসপোর্টের সূত্র ধরে পরিচয় নিশ্চিত করে র‌্যাব। তবে তার পরিবার মরদেহ গ্রহণে অস্বীকৃতি জানালে যথাযথ প্রক্রিয়া শেষে মরদেহ দাফনের জন্য আঞ্জুমানে মুফিদুল ইসলামের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

উল্লেখ্য, হামলার পরপরই সংস্থাটির লিগ্যাল ও মিডিয়া উইংয়ের পক্ষ থেকে গণমাধ্যমকে জানানো হয়েছিল র‌্যাব ক্যাম্পে হামলাকারী ঘটনাস্থলেই মারা যান। ওই ঘটনায় র‌্যাবের দুই সদস্য সামান্য আহত হন। ঘটনার দিন দুপুর দেড়টার দিকে নিহত ব্যক্তিটি দেয়াল টপকে ক্যাম্পের ভেতরে প্রবেশের সময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তাকে চ্যালেঞ্জ করলে তিনি তার সঙ্গে রাখা বোমাটির বিস্ফোরণ ঘটান।

ইত্তেফাক/ইউবি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত