বিশ্বনিন্দিত কয়লার ভাগাড় হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ: সুলতানা কামাল

বিশ্বনিন্দিত কয়লার ভাগাড় হতে যাচ্ছে বাংলাদেশ: সুলতানা কামাল
সুলতানা কামাল। ছবি: সংগৃহীত

তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ও সুন্দরবন রক্ষা জাতীয় কমিটির আহ্বায়ক সুলতানা কামাল বলেছেন, উন্নয়ন বা বিদ্যুতের জন্য কয়লা, এমনকি কোনো জীবাশ্ম জ্বালানিরই কোনো প্রয়োজন নেই। রাষ্ট্র পরিচালকদের মন পরিষ্কার থাকলেই আমাদের অফুরন্ত পরিষ্কার বিকল্প জ্বালানি চোখে পড়বে। কম খরচে নবায়নযোগ্য জ্বালানি উৎপাদন এখন আর কঠিন নয়। কিন্তু সেই সম্ভাবনাকে কাজে না লাগিয়ে বাংলাদেশ বিশ্বনিন্দিত কয়লার ভাগাড় হতে চলেছে।

শনিবার রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে এক সাংবাদিক সম্মেলনে তিনি এ সব কথা বলেন। সুন্দরবন রক্ষা জাতীয় কমিটি এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে।

সুন্দরবনের কাছে নির্মাণাধীন রামপাল প্রকল্প বন্ধের দাবি জানিয়ে সুলতানা কামাল বলেন, রামপাল প্রকল্পের নির্মাতা ভারতীয় কোম্পানি এনটিপিসি তাদের নিজ দেশে সব কয়লাবিদ্যুৎ প্রকল্প স্থগিত করেছে। অথচ একই প্রতিষ্ঠান প্রবল গণ-আপত্তির মুখেও বাংলাদেশে কয়লাবিদ্যুৎ তৈরিতে পিছপা হচ্ছে না। এটি নিঃসন্দেহ একটি দায়িত্বজ্ঞানহীন ‘ডাবল স্ট্যান্ডার্ড’ আচরণ। বাংলাদেশ সরকার ইচ্ছা করলেই সুন্দরবন, সারা দেশের বন, নদী, উপকূল, জলাশয়, বায়ু- সবকিছুকে বাঁচিয়েই উন্নয়নের পথে এগোতে পারে।

মূল প্রবন্ধ পাঠকালে তিনি বলেন, সুন্দরবনকে রক্ষা না করতে পারাটা হবে আমাদের জন্য বড় ব্যর্থতা। এই বনকে রক্ষা করা আমাদের নৈতিক, সাংবিধানিক ও নাগরিক দায়িত্ব।

ইত্তেফাক/জেডএইচ

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত