বালিশকাণ্ডে প্রকৌশলী আমিনুলের জামিন প্রশ্নে হাইকোর্টের রুল

বালিশকাণ্ডে প্রকৌশলী আমিনুলের জামিন প্রশ্নে হাইকোর্টের রুল
বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্ট। ছবি: সংগৃহীত

পাবনার রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের আলোচিত বালিশ ও আসবাবপত্র কেনাকাটায় দুর্নীতির অভিযোগে সাময়িক বরখাস্ত সহকারী প্রকৌশলী মো. আমিনুল ইসলামের বিরুদ্ধে করা পৃথক চার মামলায় তার জামিন আবেদন নামঞ্জুর করেছেন আদালত। একই সঙ্গে তার জামিন প্রশ্নে রুল জারি করা হয়।

মঙ্গলবার হাইকোর্টের বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি মহিউদ্দিন শামীমের সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল বেঞ্চ এ আদেশ দেন। এ সময় দুদকের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মো খুরশিদ আলম খান, রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এ কে এম আমিন উদ্দিন মানিক, সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল মাহজাবিন রাব্বানী দীপা ও আন্না খানম কলি। আসামিপক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. মোতাহার হোসেন সাজু।

এর আগে ২০১৯ সালের ১২ ডিসেম্বর পাবনার রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের একটি ভবনে অস্বাভাবিক মূল্যে আসবাবপত্র ও অন্যান্য সামগ্রী ক্রয়ে দুর্নীতির অভিযোগে মামলা করা হয়। টেন্ডার আহ্বানের আট মাস আগেই রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের অন্তত তিনটি ভবনের জন্য ইলেকট্রিক্যাল ও ইলেকট্রনিক্স আইটেম, ওয়াশিং মেশিন, ইলেকট্রিক্যাল আয়রন, বালিশ, তোশক ও আসবাবপত্র সরবরাহ করা হয়। পাশাপাশি প্রতিটির দাম বাজারের তুলনায় অস্বাভাবিক ধরা হয়। গত মে মাসে প্রকাশ্যে আসে সেই দুর্নীতি।

আরও পড়ুন: গ্যাটকো দুর্নীতি মামলা: অভিযোগ গঠনের শুনানি পিছিয়ে ৩ মার্চ

এই প্রকল্পে একটি বালিশ কিনতে ৫ হাজার ৯৫৭ টাকা বিল করা হয়। আর প্রতিটি বালিশ ভবনের উপরে উঠতে ৭৬০ টাকা করে ধরা হয়। একেকটি বিছানা কেনার বিল করা হয় ৫ হাজার ৯৮৬ টাকা আর বিছানা উপরে উঠাতে খরচ দেখানো হয়েছে ৯৩১ টাকা। এছাড়াও ওয়্যারড্রোব কেনা হয় ৫৯ হাজার ৮৫৮ টাকা দিয়ে এবং এগুলোকে উপরে উঠাতে প্রতিটির খরচ দেখানো হয়েছে ১৭ হাজার ৪৯৯ টাকা। একেকটি ফ্রিজার কেনা হয়েছে ৯৪ হাজার ২৫০ টাকায় এবং প্রতিটি ফ্রিজার উপরে উঠাতে খরচ দেখানো হয়েছে ১২ হাজার ৫২১ টাকা। একেকটি টেলিভিশন কেনায় খরচ দেখানো হয় ৮৬ হাজার ৯৭০ টাকা এবং প্রতিটি টেলিভিশন উপরে উঠাতে বিল করা হয় সাত হাজার ৬৩৮ টাকা। খাট কেনা হয় ৪৩ হাজার ৩৫৭ টাকায় এবং প্রতিটি খাট উপরে উঠাতে খরচ দেখানো হয় ১০ হাজার ৭৭৩ টাকা। একটি ইলেকট্রিক আয়রন (ইস্ত্রি) কেনা হয় চার হাজার ১৫৪ টাকায় এবং এগুলো ভবনের উপরের তলায় তুলে দিতে প্রতিটির জন্য খরচ দেখানো হয় দুই হাজার ৯৪৫ টাকা।

ইত্তেফাক/জেডএইচডি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x