‘আমার দেখা সবচেয়ে দয়ালু ব্যক্তি ছিলেন আলী যাকের’

‘আমার দেখা সবচেয়ে দয়ালু ব্যক্তি ছিলেন আলী যাকের’
আলী যাকের ও নুসরাত ইমরোজ তিশা। ছবি: সংগৃহীত

সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব ও প্রবীণ অভিনেতা নাট্যজন আলী যাকের মারা গেছেন। শুক্রবার ৭৬ বছর বয়সে বাংলাদেশ স্পেশালাইজড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি। তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে বিনোদন জগতে। বর্ষিয়ান এই অভিনেতার প্রস্থান যেনে মেনে নিতে পারছেন কেউ। এই অভিনেতার স্মৃতি স্মরণ করে শোক প্রকাশ করেছেন অভিনেত্রী নুসরাত ইমরোজ তিশা।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আলী যাকেরের সঙ্গে একটি ছবি শেয়ার করেছেন তিশা। ছবি ক্যাপশনে তিনি লিখেছেন, ‘আজ আমাদের ছেড়ে চলে গেলেন বাংলাদেশের সত্যিকারের কিংবদন্তি আলি জাকের! তিনি আমার দেখা সবচেয়ে দয়ালু ব্যক্তি ছিলেন। আমাদের অনেকের জন্য একটি বাতিঘর। আল্লাহ তাকে চিরশান্তি দান করুন!’

প্রসঙ্গত, ১৯৭২ সালের আরণ্যক নাট্যদলের ‘কবর’ নাটকে অভিনয়ের মধ্য দিয়ে পথচলা শুরু করেছিলেন এই নাট্যব্যক্তিত্ব। পরবর্তীতে ১৯৭৩ সাল থেকে কাজ করেছিলেন নাগরিক নাট্যসম্প্রদায় নিয়ে। মঞ্চের পাশাপাশি টিভি নাটকেও সমাদৃত হয়েছিলেন তিনি।

আলী যাকের নির্দেশিত মঞ্চনাটকের মধ্যে রয়েছে— ‘অচলায়তন’, ‘বাকী ইতিহাস’, ‘বিদগ্ধ রমণীকুল’, ‘সৎ মানুষের খোঁজে’, ‘কাঁঠালবাগান’, ‘তৈল সংকট’, ‘এই নিষিদ্ধ পল্লীতে’, ‘নুরুলদীনের সারাজীবন’ ও ‘কোপেনিকের ক্যাপ্টেন’। তার অভিনীত আলোচিত নাটকের মধ্যে রয়েছে ‘আজ রবিবার’, ‘বহুব্রীহি’, ‘তথাপি’, ‘পাথর’ ও ‘দেয়াল’।

ইত্তেফাক/বিএএফ

Nogod
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত