ঢাকা রোববার, ০৫ এপ্রিল ২০২০, ২২ চৈত্র ১৪২৬
২৫ °সে

নতুন যত ভীতি!

নতুন যত ভীতি!
ছবি: প্রতীকী

গ্রিক শব্দ ‘ফোবোস’ থেকে ‘ফোবিয়া’ শব্দের উত্পত্তি। ফোবিয়ার বাংলা অর্থ মৃত্যুভীতি। ফোবিয়া বা ভীতি এমন এক অনুভূতি যা থেকে মানুষের মধ্যে উদ্বগ ও আতঙ্কের জন্ম দেয়। এর থেকে অনেক সময় সাময়িকভাবে মানুষের আচরণগত অসঙ্গতি তৈরি হয়। কারো উচ্চতা ভীতি কাজ করে, কারো পানির ভীতি কাজ করে। তবে গত কয়েক বছরে মানুষের ভেতরে কিছু নতুন ভীতির সৃষ্টি হয়েছে। নতুন সৃষ্টি হওয়া ভীতি বা ফোবিয়ার মধ্যে অন্যতম ইকো অ্যাংজাইটি। বিশ্ব উষ্ণায়ন, ঘন ঘন আবহাওয়ার বদল, প্রাকৃতিক দুর্যোগের প্রকোপের কারণে তৈরি হয়েছে এই ইকো অ্যাংজাইটি; বিশেষ করে তরুণদের মধ্যে। এদের অনেকেরই ভীতি যে বিশ্ব উষ্ণায়নে এই বুঝি পৃথিবী ধ্বংস হয়ে গেল।

তরুণদের আরেকটি ভীতির নাম নোমোফোবিয়া বা নোটিফিকেশন ভীতি। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম কিংবা মোবাইল ফোনের নোটিফিকেশনে ভীতি দেখা দেয় অনেকের মধ্যে। নোটিফিকেশন আর মিসড কল দেখলেই কোথাও একটা ভয় দানা বাঁধে। ভয়ের কারণে অনেকেই ফোন বন্ধ করে রাখেন।

নতুন ধরনের আরেকটি ভীতি ফুড নিওফোবিয়া। খাবার দেখলেই ভয় পান অনেকে। পরিস্থিতি এমন পর্যায়ে পৌঁছেছে যে খাওয়ার বদলে যদি কোনো ওষুধ খেয়ে খিদে নিবারণ করা যেত তাহলে তারা সেটাই করতেন। নতুন কোনো রান্না চেখে দেখার সময় সেই ভয় দ্বিগুণ বেড়ে যায় তাদের। পরে এই ভয়ই ধীরে ধীরে তা উদ্বেগের আকার নিলেই তা জন্ম দেয় ফুড নিওফোবিয়ার।

আরও পড়ুন: নিষেধ অমান্য করে পারাপার, ট্রাকসহ সেতু খালের পানিতে

আরেকটি নতুন ভীতি কার্বোফোবিয়া। ওজন বাড়ার ভয়ে অনেকেই লো ফ্যাট ডায়েট নিয়ে চিন্তিত থাকেন সারাক্ষণ। কার্বোহাইড্রেট দেখলেই ভয়ে সিঁটিয়ে পড়েন তারা। তাদের ধারণা, যাবতীয় কার্বোহাইড্রেট মানেই ক্ষতি। এ থেকেই কার্বোফোবিয়া গ্রাস করে তাদের।

আরেকটি ফোবিয়া এডিটোভালটা ফোবিয়া। সোশ্যাল মিডিয়ার নেশা এমন চেপে বসে যে সেখানকার ভার্চুয়াল জগতের সামনে নিজের ইমেজ নিয়েও বেশ উদ্বেগে থাকেন অনেকেই। কোন ছবি নিয়ে কে কী ভাবল, কোন পোস্টে বা কোন কমেন্টে কে কী মনে করল এগুলো তাদের এতই ভাবায় যে ছবি বা পোস্ট করতে হাত সরে না।

বিশেষজ্ঞদের মতে, মূলত কোনো ঘটনা সম্পর্কে মনের অবস্থান, মস্তিষ্কে হরমোনের কার্যকলাপ ইত্যাদি নানা কারণে ফোবিয়া জন্ম হয়। মনোবিদদের মতে, জোর করে এসব ভয় কাটাতে গেলে অনেক সময় তা আরো বেশি করে জেঁকে ধরে। তাই খুব অসুবিধা না হলে ফোবিয়াদের নিয়ে বেশি মাথা না ঘামানোই ভালো। প্রয়োজনবোধে মনোবিদদের পরামর্শ নেওয়া যেতে পারে।—আনন্দবাজার

ইত্তেফাকএসি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
০৫ এপ্রিল, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন