‘তরুণদের কাজের স্বীকৃতি চলার পথকে আরো বেশি উদ্বেলিত করে’

‘তরুণদের কাজের স্বীকৃতি চলার পথকে আরো বেশি উদ্বেলিত করে’
শোয়েবুল ইসলাম

‘মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে ও যুবকদেরকে বই পড়তে উৎসাহী করতে পহরচাঁদা আদর্শ পাঠাগার প্রতিষ্ঠিত হয়। বিভিন্ন সমস্যাকে পাশ কাটিয়ে পাঠাগারটি তার নিজস্ব আলো ছড়াচ্ছে। তবে জাতীয়ভাবে একটা স্বীকৃতি অনেক আনন্দের। এ স্বীকৃতি আমাদের কাজের গতি আরো গতিশীল করেছে। তরুণদের কাজের স্বীকৃতি সবসময় চলার পথকে আরো বেশি উদ্বেলিত করে।’-বাংলাদেশের তরুণদের সর্ববৃহৎ প্লাটফর্ম ইয়াং বাংলার ‘জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড-২০২০’ অর্জনের পর এমনই বলছিলেন পহরচাঁদা আদর্শ পাঠাগারের প্রতিষ্ঠাতা শোয়াইবুল ইসলাম।

পাঠাগারটি কক্সবাজার জেলার চকরিয়ার পহরচাঁদা গ্রামে প্রতিষ্ঠিত হয়। তবে পাঠাগারের পেছনের গল্পটা একটু অন্যরকম। ২০১১ সালের কোন একদিন কয়েকজন তরুণ মিলে স্থানীয় শহীদ মনসুর উদ্দীন মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মাঠে খেলাধুলা শেষে বসে ছিলেন। ওই দিনই তাদের এক বন্ধুকে বই সংগ্রহ করে দেওয়ার জন্য তারা উদ্যোগ নেয়। দশ টাকা, বিশ টাকা, পঞ্চাশ টাকা এভাবে দিয়েই বন্ধুকে বই সংগ্রহ করে দেয় তারা। তারপর সেখান থেকে উদ্যোগ নেওয়া হয় বিনামূল্যে বই পড়বে এবং পড়া শেষ হলে তারপর আবার ফেরত দিয়ে দিবে। ওই বইটি আবার অন্যজন পড়ার সুযোগ পাবে। তখন থেকেই পাঠাগার শুরু।

তবে শুরুর পর বেশ চ্যালেঞ্জ ছিলো এমনটিই জানালেন শোয়েবুল ইসলাম। তিনি বলেন, আমরা যখন পাঠাগার শুরু করি, তখন যারা আমাদের মেয়ে সদস্য ছিলো তাদেরকে পাঠাগারে আসতে দেওয়া হয়নি। পাঠাগারে যাওয়া যাবে না, ওটা আড্ডা খানা। এমনকি মেয়ে সদস্যদের পরিবারকে বলা হয়েছে-তাদের পরিবারের মেয়েদেরকে আসতে না দেওয়ার জন্য।

আরো পড়ুন: ‘জয় বাংলা ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড গর্বের ও আনন্দের’

পাঠাগারটি একটি গ্রামে প্রতিষ্ঠিত তাই গ্রামের মানুষকে পাঠাগার বিষয়টা কি, সেটা বুঝাতে অনেক কষ্ট হয়েছে এমনটি জানালেন তিনি।

যখন সমাজের কিছু মানুষ পাঠাগার সম্পর্কে নেতিবাচক ধারণা সৃষ্টি করে তখন এই তরুণরা বিভিন্ন এনজিও’র মাধ্যমে বাড়ি বাড়ি গিয়ে বই বিতরণ শুরু করে। এভাবেই পাঠাগারের পথচলা বেশ শক্ত অবস্থানে দাঁড়িয়ে যায়।

উল্লেখ্য, মাদকমুক্ত সমাজ গড়তে ও যুবকদেরকে বই পড়তে উৎসাহী করতে পহরচাঁদা আদর্শ পাঠাগার প্রতিষ্ঠিত হয়। সাথে সাথে যুবকদের খেলাধুলার সাথে সম্পৃক্ত করতে কাজ করে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি। ২০১১ সাথে এটি প্রতিষ্ঠিত হয়। বর্তমানে দেশের যুবসমাজ মাদক ও বিভিন্ন সামাজিক অপরাধের দিকে ঝুঁকে পড়ছে। এটিকে নির্মূল করতে ও সুস্থ সামাজিক পরিবেশ গড়তে যুব সমাজের কাছে বই পৌঁছে দিতে অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে।

ইত্তেফাক/এএএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x