আশুলিয়ায় মাদ্রাসা ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে প্রধান শিক্ষক আটক

আশুলিয়ায় মাদ্রাসা ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে প্রধান শিক্ষক আটক
বলাৎকারের অভিযোগে আটক মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষক মাসুদুর রহমান। ছবি: সংগৃহীত

সাভারের আশুলিয়ায় এক শিশু শিক্ষার্থীকে (১২) বলাৎকারের অভিযোগে মাদ্রাসার প্রধান শিক্ষককে আটক করেছে পুলিশ। অভিযুক্ত মাদ্রাসা শিক্ষকের নাম মাসুদুর রহমানকে (৩৪)।

সোমবার (২২ ফেব্রুয়ারি) রাত ৮ টার দিকে আশুলিয়ার মধ্য চারাবাগ এলাকার মদিনাতুল উলুম হিফজুল কুরআন মডেল মাদ্রাসা থেকে তাকে আটক করা হয়।

আটককৃত মাসুদুর রহমান সিরাজগঞ্জ জেলার সদর থানা এলাকার আনোয়ার হোসেনের ছেলে। তিনি মধ্য চারাবাগ এলাকার মদিনাতুল উলুম হিফজুল কুরআন মডেল মাদরাসায় প্রায় দুই বছর ধরে প্রধান শিক্ষকের দায়িত্ব পালন করছিলেন।

নির্যাতিত শিশুটির মায়ের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, ওই মাদ্রাসার আবাসিকে রেখে পোশাক শ্রমিক মা-বাবা তার সন্তানকে লেখাপড়া করাচ্ছিলেন। প্রতি সপ্তাহের ন্যায় গতকাল ২১ ফেব্রুয়ারি ছেলেকে দেখতে যান ভুক্তভোগীর মা। এসময় শিশু শিক্ষার্থী কেঁদে কেঁদে তার মাকে মাদ্রাসায় পড়বে না বলে জানায়। পরে নির্যাতনের ঘটনা শুনে সোমবার থানায় অভিযোগ দায়ের করলে ওই মাদ্রাসা থেকে অভিযুক্ত শিক্ষককে আটক করে পুলিশ।

নির্যাতিত শিক্ষার্থীর মা বলেন, আমরা স্বামী-স্ত্রী দুজনই পোশাক কারখানায় চাকরি করি। তাই মাদ্রাসার আবাসিকে রেখে ছেলেকে লেখাপড়া পড়াচ্ছিলাম। দুই বছর ধরে আমার সন্তান এই মাদ্রাসায় পড়ালেখা করাচ্ছিলাম। কিন্তু মাদ্রাসার শিক্ষক এমন হবে কখনও ভাবিনি। আমি এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার চাই।

আশুলিয়া থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুল জলিল বলেন, শিক্ষার্থীর মায়ের দায়ের করা অভিযোগের ভিত্তিতে ওই মাদ্রাসা থেকে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষককে আটক করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেছে। মঙ্গলবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে অভিযুক্ত শিক্ষককে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

ইত্তেফাক/এমএএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
আরও
আরও
x