ঢাকা সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০১৯, ৯ বৈশাখ ১৪২৬
২৪ °সে

নিউজিল্যান্ডেই ড. আব্দুস সামাদ এর দাফন সম্পন্ন

নিউজিল্যান্ডেই ড. আব্দুস সামাদ এর দাফন সম্পন্ন
ড. আব্দুস সামাদ। ফাইল ছবি

অবশেষে নিহত হওয়ার এক সপ্তাহ পর নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চেই ড. আব্দুস সামাদের দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

এর আগে সেদেশে শুক্রবার জুম্মার নামাজের পর হ্যাগলি পার্ক এ ড. আব্দুস সামাদসহ দুটি মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত ৪০জন মুসল্লির গণজানাযা অনুষ্ঠিত হয়। এতে নিহতদের পরিবারের সদস্য ছাড়াও অংশ নেন হাজারো মানুষ।

ঢাকায় বসবাসরত ড. আব্দুস সামাদের বড় ছেলে তোহান মোহাম্মদ শুক্রবার সকাল ১১ টায় মুঠোফোনে এ তথ্য জানান।

তিনি জানান, এর আগে নিউজিল্যান্ডে বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টা, বাংলাদেশ সময় বুধবার রাত ৪ টায় কোন প্রকার ছবি উঠানো এবং ভিডিও না করার শর্তে মাত্র ২ ঘণ্টার জন্য পরিবারের কাছে লাশ দেয়া হয়েছিল। গোসল করানো শেষে পুনরায় লাশ নিজেদের জিম্মায় নেয় পুলিশ ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। পরদিন শুক্রবার সেদেশে জুম্মার নামাজের পরে জানাযা শেষে দুপুর ২ টায় (বাংলাদেশ সময় সকাল ৭ টায়) নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে মুসলিমদের জন্য নির্ধারিত কবর স্থানে তিনিসহ নিহতদের লাশ দাফন হয়েছে। নিউজিল্যান্ডে বসবাসরত তার মা কেশোয়ারা সুলতানা ও ছোট দুইভাই তারেক, তানভিরের সাথে বলে এ বিষয়ে তিনি নিশ্চিত হয়েছেন বলে জানান।

তোহান মোহাম্মদ জানান, এর আগে গত ১৬ মার্চ সেদেশের সময় সকাল ৯ টা, বাংলাদেশ সময় রাত ৪টায় তার বাবার লাশ পরিবারের কাছে হস্তান্তরের কথা ছিল। এজন্য সেদিন সকাল ৮ টায় পুলিশ ও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাদের ডাকলেও শেষ পর্যন্ত লাশ দেয়নি।

আরো পড়ুন : চীনে পথচারীদের উপর গাড়ি, নিহত ৬

উল্লেখ্য, নিউজিল্যান্ডের স্থানীয় সময় গত শুক্রবার বেলা দেড়টায় ক্রাইস্টচার্চ শহরের হ্যাগলি পার্ক মুখী সড়ক দীন এভিনিউতে ‘মসজিদে নুর’ ও ‘লিংউড’ মসজিদ দুইটিতে সন্ত্রাসী হামলা চালায় ব্রেন্টন টারান্ট। এতে অন্য বাংলাদেশিদের সাথে নিহত হন নিউজিল্যান্ডে নাগরিকত্ব নিয়ে স্থায়ীভাবে বসবাস করা বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃষি তত্ব বিভাগের সাবেক শিক্ষক ও ক্রাইস্টচার্চ শহরের হ্যাগলি পার্ক মুখী সড়ক দীন এভিনিউতে ‘মসজিদে নুর’-এর মোয়াজ্জিন ড. আব্দুস সামাদ।

এর এক সপ্তাহ পর শুক্রবার তাদের দাফন সম্পন্ন হয়। এদিন নিহত মুসল্লিদের প্রতি শ্রদ্ধা ও নিউজিল্যান্ডের মুসলিমদের প্রতি সংহতি জানাতে রাষ্ট্রীয়ভাবে শোক পালন করা হয়। শোক পালনে হ্যাগলি পার্কে জড়ো হয় হাজার হাজার মানুষ। দেশটির রেডিও ও টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচার করা হয় শুক্রবারের জুম্মার নামাজ। রাষ্ট্রীয়ভাবে পালন করা হয় দুই মিনিট নিরবতা।

ইত্তেফাক/এমআরএম

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২২ এপ্রিল, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন