ঢাকা বুধবার, ২৯ জানুয়ারি ২০২০, ১৬ মাঘ ১৪২৭
১৯ °সে

বিভাগ আছে, শিক্ষক নেই

বিভাগ আছে, শিক্ষক নেই
জয়পুরহাট সরকারি মহিলা কলেজ। ছবি: ইত্তেফাক

জয়পুরহাট সরকারি মহিলা কলেজে ব্যবসায় শিক্ষা বিষয়ে সাত শিক্ষাবর্ষে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হলেও নেই কোনো শিক্ষক। ২০১৩-১৪ শিক্ষাবর্ষ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে চালু করা হয় ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগ। শিক্ষক না থাকলেও প্রতি বছর শিক্ষার্থী ভর্তি করে আদায় করা হচ্ছে যাবতীয় ফি।

কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মো. আমানত আলি বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে বার বার আবেদন পাঠানো হলেও এ নিয়ে কোনো সুরাহা হয়নি। দুইজন অতিথি শিক্ষক নিয়ে পাঠদান চালানো হচ্ছে। শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে আদায় করা ফি থেকে অতিথি শিক্ষকদের সম্মানী দেওয়া হচ্ছে। সংযুক্ত দিয়ে হলেও দ্রুত শিক্ষকের প্রয়োজন।

কলেজের এক পরিসংখ্যানে দেখা যায়, উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে ২০১৪ সালে ৬৬ জনের মধ্যে ফেল করে ৭ জন, ২০১৫ সালে ৬৭ জনের মধ্যে ফেল করে ৫ জন, ২০১৬ সালে ৬১ জনের মধ্যে ফেল করেছে ৬ জন, ২০১৭ সালে ৭১ জনের মধ্যে ফেল ২৬ জন, ২০১৮ সালে ১০১ জনের মধ্যে ফেল ৪৩ জন, ২০১৯ সালের ফলাফলে ১৮৭ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ফেল করেছে ৪৬ জন। বর্তমানে ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে ব্যবসায় শিক্ষা শাখায় ১৬৩ জন শিক্ষার্থী রয়েছে।

আরও পড়ুন: বেনাপোলে যাত্রীদের ভিড়, হয়রানির অভিযোগ

শিক্ষক না থাকায় শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে বলে জানান, দ্বাদশ শ্রেণির একাধিক শিক্ষার্থী।

গণিত বিভাগের শিক্ষক সিদ্দিক মোহাম্মদ আবু সাঈদ বলেন, শিক্ষার্থীদের ভবিষ্যৎ চিন্তা করে জরুরি ভিত্তিতে পদ সৃষ্টি করা ও শিক্ষক দেওয়া দরকার।

ইত্তেফাক/অনি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
icmab
facebook-recent-activity
prayer-time
২৯ জানুয়ারি, ২০২০
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন