ঢাকা রবিবার, ২০ অক্টোবর ২০১৯, ৪ কার্তিক ১৪২৬
২৯ °সে


সাতকানিয়ায় শ্বাসরোধে শিশু হত্যা

সাতকানিয়ায় শ্বাসরোধে শিশু হত্যা
সাতকানিয়ায় শ্বাসরোধে হত্যার শিকার শিশু এমরান! ছবি: ইত্তেফাক

চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায় পাওনা টাকার জের ধরে ১৩ মাসের এক শিশুকে শ্বাসরোধ করে হত্যার ঘটনা ঘটেছে। নিহত শিশুর নাম এমরান হোসেন সামি। সানি উপজেলার চরতি ইউনিয়নের সুইপুরা এলাকার দুবাই প্রবাসী মো. মামুন ও রিমা আক্তার দম্পতির ছেলে। গত বুধবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে উপজেলার চরতী ইউনিয়নের সুইপুরা ভনাঘোনা নতুন পাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

সাতকানিয়া থানা পুলিশ এ হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত থাকার অপরাধে আপন চাচা নুরুল আবছার ওরফে মানিক (৩০) ও তার স্ত্রী মারুফা আক্তারকে (২০) গ্রেপ্তার করেছে।

নিহত শিশুর মা রিমা আক্তার বলেন, 'আমার স্বামী ৭ মাস আগে দুবাই যাওয়ার সময় তার ছোট ভাই মানিকের কাছ থেকে সুদে এক লাখ টাকা ধার নেন। ইতিমধ্যে ধারের টাকার কিছু সুদও মানিককে পরিশোধ করা হয়েছে। দুবাই যাওয়ার কয়েক মাস পর আমার স্বামী সেখানে পুলিশের হাতে ধরা পড়েন। এ অবস্থায় সংসার চালাতে অভাব অনটন সৃষ্টি হয়। বুধবার বিকালে আমার ছেলে এমরানকে তার দাদীর কাছে রেখে আমি পার্শ্ববর্তী বিলে গরুর জন্য ঘাস আনতে যাই। সন্ধ্যার আগে বাড়িতে এসে শ্বশুড়ীর কাছে ছেলের কথা জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন মারুফা নিয়ে গেছে। আমি মানিকের স্ত্রী মারুফাকে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন, আমি খাটের ওপর ঘুমিয়ে রেখেছিলাম কেউ মনে হয় নিয়ে গেছে। এরপর থেকে চারদিকে খুঁজতে থাকি। এ সময় আমার আশপাশের লোকজনও মিলে খুঁজতে থাকে। এক পর্যায়ে মারুফাদের টিউবওয়েলের মাটি চাপা দেওয়া একটি থলের কিছু অংশ দেখে এলাকার এক ছেলে মাটি খুঁড়তে গেলে আমার ছেলের লাশের হাত দেখা যায়। আমি চিৎকার দিলে এলাকার বহু লোকজন এসে জড়ো হয়। তারা মাটি খুঁড়ে আমার ছেলের লাশ বের করে। এ সময় মারুফা দাম্ভিকতার বলতে থাকে আমি খুন করেছি কি হয়েছে? স্বামী-স্ত্রী পাওনা টাকার জন্য আমার ছেলেকে গলা টিপে মেরে মাটি চাপা দিয়েছে। আমি তাদের সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।'

চরতী ৯নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আব্দুর রশিদ জানান, মামুনের কাছ থেকে টাকা পাবে তাঁর ছোট ভাই মানিক। পাওনা টাকা নিয়ে তাদের মধ্যে ঘটনার আগের দিন কথা কাটাকাটি হয়েছিল। এর জের ধরেই নিষ্পাপ শিশুকে হত্যা করেছে।

আরও পড়ুন: ইসরায়েলের হামলায় ইরানিপন্থী ১৭ বিদ্রোহী নিহত

সাতকানিয়া থানার ওসি (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ বলেন, 'টাকার হিসাব নিয়ে দুই ভাইয়ের মধ্যে বিরোধ ছিল। এর জের ধরে বুধবার শিশুটির মা বাড়ির বাইরে গেলে এই ফাঁকে মারুফা ও তার স্বামী মানিক মিলে শ্বাসরোধে হত্যা করে শপিং ব্যাগে ভরে মাটিতে পুঁতে ফেলে। খবর পেয়ে রাতে পুলিশ গিয়ে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে মর্গে প্রেরণ করে। এ ঘটনায় শিশুটির মা বাদী হয়ে দেবর মানিক ও তার স্ত্রী মারুফা আক্তারকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে আসামিদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।'

ইত্তেফাক/নূহু

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২০ অক্টোবর, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন