মঙ্গলবার, ১৬ আগস্ট ২০২২, ১ ভাদ্র ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

নারায়ণগঞ্জ সিটিতে কে পাচ্ছেন নৌকার টিকিট

আপডেট : ০৩ ডিসেম্বর ২০২১, ২১:০০

নির্ধারিত সময়ে নির্বাচন হবে, না পিছিয়ে যাবে? আর ওই সময়ে প্রশাসক বসানো হবে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনে (নাসিক)? এমন আলোচনা ছিল গত সপ্তাহজুড়ে। অবশেষে সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে মঙ্গলবার (৩০ নভেম্বর) নাসিকের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। তফসিল অনুযায়ী ১৬ জানুয়ারি ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। 

ইতোমধ্যেই ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের দলীয় প্রতীক নৌকার টিকিট পেতে বর্তমান মেয়র ডা. সেলিনা হায়াত আইভীসহ ৪ জন দলীয় মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছেন। 

দলীয়-সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার (৩ ডিসেম্বর) দলের চূড়ান্ত মনোনয়ন ঘোষণা করা হবে। এখন অধীর আগ্রহে অপেক্ষার বিষয় একটিই, নাসিক নির্বাচনে কে পাচ্ছেন নৌকার টিকিট? 

ইতোমধ্যে বর্তমান মেয়র ও জেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ডা. সেলিনা হায়াত আইভী, জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবু হাসনাত শহীদ বাদল, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকন সাহা, সহ-সভাপতি বাবু চন্দন শীল মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছেন। কিন্তু কে পাবেন মনোনয়ন?  

এদিকে, বৃহস্পতিবার (২ ডিসেম্বর) নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের নৌকার মনোনীত প্রার্থী চূড়ান্ত করার বৈঠক হলেও শেষ পর্যন্ত সিদ্ধান্ত জানা যায়নি। বিকাল থেকেই আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে বর্তমান মেয়র সেলিনা হায়াত আইভীর সমর্থকরা ভিড় করেন। রাত ৮টা পর্যন্ত মেয়র পদে কারও নাম প্রকাশ না করায় তারা কিছুটা হতাশ হয়ে বাসাবাড়িতে ফিরে যান। 

জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ও আইভীর অনুসারী আব্দুল কাদির বলেন, `যে যাই বলুক, বিগত তিন নির্বাচনের ধারাবাহিকতা এবারও বজায় থাকবে।'

অনেকেই বলেন, মেয়র আইভীর কোনো বিকল্প তৈরি হয়নি। তিনি যেভাবে উন্নয়ন করেছেন, আর কেউ এতটা আন্তরিকতা নিয়ে কোনো উন্নয়ন করেননি। 

স্থানীয় আওয়ামী লীগের এই গ্রুপটির মতে, মেয়র আইভীর সবচেয়ে বড় গুণ হলো তিনি গোটা নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন এলাকাজুড়ে পরিকল্পিত উন্নয়ন করে চলেছেন। রাস্তাঘাটের উন্নয়নের পাশাপাশি মানুষের প্রয়োজনীয় সব ধরনের উন্নয়ন করছেন। তারা বলছেন, এবারও আইভীর কোনো বিকল্প নেই।

মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মাহমুদা মালা বলেন, ‘মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকন সাহা কর্মীবান্ধব নেতা হিসাবে পরিচিত। এবার নাসিকে আওয়ামী লীগের প্রার্থী পরিবর্তন হবে। আর সেক্ষেত্রে খোকন সাহাই যোগ্য প্রার্থী।’ 

জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ডা. আবু জাফর চৌধুরী বিরু বলেন, ‘জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবু হাসনাত শহীদ বাদল ছাত্রলীগ থেকে শুরু করে যুবলীগ, বর্তমানে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করছেন। তিনি একজন পরীক্ষিত বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক। রাজনীতিতে জনগণের সঙ্গে তার রয়েছে নিবিড় সম্পর্ক। প্রশাসক হিসেবে তিনি দায়িত্ব পালন করেছেন। 

নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের দফতর সম্পাদক অ্যাডভোকেট বিদ্যুৎ কুমার সাহা বলেন, ‘চন্দনশীল দল করতে গিয়ে দুই পা হারিয়েছেন। এছাড়া তিনি বিএনপির তোপে পড়ে দেশ ছেড়েছিলেন। তাই তারই মনোনয়ন পাওয়া উচিত বলে মনে করি।’  

মনোনায়নপ্রত্যাশীদের অনুসারীরা মনে করছেন, তাদের নিজ নিজ পছন্দের প্রার্থী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গুডবুকে রয়েছেন। সুতরাং তাদের  পছন্দের প্রার্থী চূড়ান্ত মনোনয়ন পেতে পারেন। 

উল্লেখ্য, এবার নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের তৃতীয় নির্বাচন। এর আগে দ্বিতীয় দফায় গত ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে নাসিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। ওই নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকার প্রার্থী ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী দ্বিতীয় দফায় মেয়র নির্বাচিত হন। এর আগে ২০১১ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ প্রার্থী বর্তমান এমপি শামীম ওসমানকে পরাজিত করে নাগরিক ঐক্যের প্রার্থী হিসেবে ডা. সেলিনা হায়াত আইভী বিজয়ী হন।  

ইত্তেফাক/এনই

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

শিক্ষক খাইরুনকে লাথি মেরে বাইরে চলে যান মামুন: পুলিশ

শোক দিবসের খাবার নিয়ে আওয়ামী লীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ

শোক দিবসের অনুষ্ঠানে ছাত্রলীগের দুই গ্রুপের সংঘর্ষ

তালাবদ্ধ বাথরুম থেকে ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্রীর লাশ উদ্ধার 

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

সিরাজগঞ্জে প্রাথমিকের ১৭৯ শিক্ষকের পদ শূন্য, পাঠদান ব্যাহত 

বেনাপোল-পেট্রাপোল বন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি বন্ধ

নাজিরপুরে পানিবন্দি মানুষের দুর্ভোগ

রাজশাহীর শিরোইল থেকে সরানো হচ্ছে বাসস্ট্যান্ড