রোববার, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

২ যুবকের মাথা ন্যাড়া করে আলকাতরা দেওয়ার অভিযোগ

আপডেট : ০৯ জুন ২০২২, ১৮:৩০

পটুয়াখালীর গলাচিপায় বিয়েবাড়িতে দুই যুবককে মাথা ন্যাড়া করে আলকাতরা লাগিয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ইউপি সদস্য সায়েম গাজীর বিরুদ্ধে। গত মঙ্গলবার (৭ জুন) বিকেলে গলাচিপা উপজেলার চরব্শ্বিাস ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। 

বুধবার (৮ জুন) বিকেলে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে বিষয়টি ছড়িয়ে পড়লে এ নিয়ে ব্যাপক আলোচনার সৃষ্টি হয়। 

স্থানীয় ও মামলা সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার বিকালে ওই দুই যুবক ওই ইউনিয়নের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের আবাসন এলাকার একটি বিয়েবাড়িতে যান। সে সময় একটি মেয়েকে উত্ত্যক্ত করার অভিযোগ এনে স্থানীয়রাসহ ওই ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য সায়েম গাজী তাদের মাথা ন্যাড়া করে আলকাতরা লাগিয়ে দেন। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার গলাচিপা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ইউপি সদস্য সায়েম গাজীকে প্রধান আসামি করে মো. হাদী হাওলাদার ও মো. হজরত হাওলাদারকে আসামী করে  মামলা দায়ের করেন।  আদালত মামলাটি গ্রহণ করে পুলিশ ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)কে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। মামলা নম্বর সিআর ৪২৯।
 
ভুক্তভোগীদের মধ্যে একজনের বাবা বলেন, “আমার ছেলে যদি কোন অপরাধ করে থাকতো তাহলে আমাকে বা আইনের কাছে দিত। তা না করে এ ঘটনা ঘটানোর ফলে আমি ও আমার পরিবারের কেউ লজ্জায় রাস্তায় বেড় হতে পারি না। আমার যে ক্ষতি হয়েছে তার সঠিক বিচার চাই।” 

অভিযুক্ত ইউপি সদস্য সায়েম গাজী বলেন, “আমি এ ঘটনার সাথে জড়িত নই। একটি চক্র আমাকে সামাজিকভাবে হেয় করার জন্য এ ধরণের অপবাদ দিয়ে যাচ্ছে। সঠিক তদন্ত হলেই প্রকৃত রহস্য বেড়িয়ে আসবে।” 
 
চরবিশ্বাস ইউপি চেয়ারম্যান তোফাজ্জেল হোসাইন বাবুল বলেন, এ ধরণের ঘটনা যারাই ঘটিয়ে থাকুক এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানাই। 

গলাচিপা থানার অফিসার ইনচার্জ এমআর শওকত আনোয়ার ইসলাম বলেন, ঘটনার পর সংবাদ পেয়ে আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। ভুক্তভোগীদের থানায় এসে মামলা করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছিল। কিন্তু কেউ থানায় আসেননি। 

ইত্তেফাক/এমএএম