মঙ্গলবার, ০৯ আগস্ট ২০২২, ২৪ শ্রাবণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

ছুটির দিন বনাম বিশ্রাম 

আপডেট : ০৫ আগস্ট ২০২২, ১৮:৩৭

সপ্তাহ শেষে ছুটির দিনে বিশ্রাম খুব দরকার। সে আপনি চাকরিজীবী হোন কিংবা ব্যবসায়ী, কাজের ধরণটা শারীরিক হোক বা মানসিক—শরীরকে বিশ্রাম দিতে হবে শরীরের স্বার্থেই। সারা সপ্তাহের ক্লান্তি এবং বিরক্তি কমাতে ছুটির দিনটি অন্তত নিজের মতো করে সময় কাটাতে হবে। 

নাগরিক জীবনে দিনের পর দিন বিরামহীন কাজ করে যেতে থাকলে এর বিরূপ প্রভাব পড়ে শরীরে-মনে। অনেককেই দেখা যায় যেকোনো বিষয়ে হুটহাট রেগে যান, সামান্য কারণে হৈচৈ করেন। আবার অনেকেই আছেন যারা মানসিক শান্তি ফিরিয়ে আনতে ওষুধ গ্রহণ করেন। এই বিষয়গুলো ক্ষতিকর। সম্ভব হলে আজই বন্ধ করুন এসব বদঅভ্যাস।

দেহে হ্যাপি হরমোন বিশ্রামের মধ্যে থেকেই আসে

  • অতিরিক্ত ওজন কমানোর বিষয়ে নিজেকে অহেতুক বিচলিত করবেন না। ওজন নিয়ে কমবেশি সবাই চিন্তায় থাকেন। এমন চিন্তা থেকে নিজেকে বিরত রাখুন, অন্তত সপ্তাহে একটি দিন। কারণ, এই বিষয়টি মানসিক চাপ বেশি দেয়।
  • বিশ্রাম একধরনের শারীরিক নিরাময়। এটি শুধু শরীরের জন্য নয়, মনের জন্যও বাধ্যতামূলক। যেকোনো থেরাপির চেয়েও এটি অধিক উপকারী। সাধারণত, দেহে হ্যাপি হরমোন বিশ্রামের মধ্যে থেকেই আসে। প্রদাহ, ব্যথা এমনকি হরমোনের ভারসাম্য কমাতেও এটি প্রয়োজন।
  • সহজ করে বললে ছুটির দিনে নিজেকে আনন্দে রাখুন। সপ্তাহের এই একটি মাত্র ছুটির দিনটিতে নিজেকে সময় দিন। সিনেমা দেখুন, সুস্বাদু মজার খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন। পরিবার ও বন্ধুদের সঙ্গে সময় কাটান। আসছে সপ্তাহের অন্য দিনগুলোতে পরিশ্রম করার শক্তিও সঞ্চয় করতে পারবেন যদি ছুটির দিনে শরীর ও মনকে বিশ্রাম দিয়ে থাকেন। 

 

 

 

 

ইত্তেফাক/আরএম

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

দীর্ঘদিন কাঁচামরিচ সংরক্ষণের উপায় 

গরমেও ঘর ঠাণ্ডা রাখুন এসি ছাড়া

কড়াইয়ের পোড়াদাগ দূর করুন সহজেই  

বর্ষায় সুস্থ থাকতে যা খাবেন 

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

হাঁটতে হাঁটতে সুস্থ থাকুন 

চটজলদি ক্লান্তি দূর 

খেলাধুলা কি শিশুর পড়াশোনায় মনোযোগ বাড়ায়

শিশুরা কেন মিথ্যা বলে