বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

২৪ ঘণ্টার মধ্যে বিচার না হলে সুইসাইড করবো: জান্নাতুল 

আপডেট : ০২ অক্টোবর ২০২২, ১৬:৫০

অনিয়ম নিয়ে গণমাধ্যমে কথা বলায় নিজ সংগঠনের নেতাকর্মীদের মারধরের স্বীকার হয়েছেন ইডেন মহিলা কলেজ ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌসী। এ ঘটনার বিচার না পেলে আত্মহত্যার হুমকি দিয়েছেন তিনি।

শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাতে সাংবাদিকদের জান্নাতুল এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, সভাপতি ও সম্পাদকের ন্যায়-অন্যায়গুলো আমরা যারা ধরিয়ে দেই তারাই শত্রু হয়ে গেছি। কারণে অকারণে আমাদের হেনস্তা করা হচ্ছে। আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে যদি এই ঘটনার বিচার না হলে আমি সুইসাইড করবো। 

জান্নাতুল বলেন, ইডেন ছাত্রলীগ সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা ও সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানের কাছের মানুষ হতে না পারায় আমাদের নির্যাতন করা হচ্ছে। যারাই তাদের অন্যায়গুলো ধরিয়ে দেয়, তারাই শত্রু হয়ে যায়।

জান্নাতুল বলেন, সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের চাঁদাবাজি ও সিটবাণিজ্য নিয়ে কথা বলায় আমাকে নির্যাতন করা হয়েছে এবং আপত্তিকর অবস্থায় ছবি তোলা হয়েছে। 

তিনি বলেন, ছাত্রলীগের উপরমহলে বিষয়গুলো জানানোর পরও কোনো কাজ হয়নি। এছাড়া ছাত্রলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক তো ফোনই রিসিভ করেন না।

ইডেন মহিলা কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি তামান্না জেসমিন রিভা ও সাধারণ সম্পাদক রাজিয়া সুলতানা

জানা গেছে, জান্নাতুল ফেরদৌস কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সহসভাপতি ও বেগম রাজিয়া ছাত্রীনিবাসের আবাসিক শিক্ষার্থী। গত ২২ সেপ্টেম্বর শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের বিভিন্ন অনিয়ম, চাঁদাবাজি, সিট বাণিজ্য ও হল দখল নিয়ে গণমাধ্যমে সাক্ষাৎকার দেন জান্নাতুল। সাক্ষাৎকার দেওয়ার দুদিন পর শনিবার (২৪ সেপ্টেম্বর) রাত ১১টার দিকে হল থেকে বের করে দেওয়ার হুমকি দেন শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের অনুসারীরা। এ সময় তাকে হেনস্তা ও মারধর করারও অভিযোগ ওঠে।

এ বিষয়ে জানতে তামান্না জেসমিন রিভা ও রাজিয়া সুলাতানাকে একাধিকবার ফোন দেওয়া হলেও তারা রিসিভ করেননি। রাজিয়া বেগম ছাত্রীনিবাসের প্রাধ্যক্ষ নারগিস রুমা ও কলেজের অধ্যক্ষ সুপ্রিয়া ভট্টাচার্যকে একাধিকবার ফোন দেওয়া হলে তারাও ফোন রিসিভ করেননি। 

ইত্তেফাক/কেকে