শনিবার, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

এক ‍'প্রাণের মূল্য' ১০০ টাকা!

আপডেট : ০২ অক্টোবর ২০২২, ১৫:৪৮

বেড়েই চলেছে হত্যা খুন। খুব ক্ষুদ্র কারণেও ঘটে যাচ্ছে মৃত্যু। নাটোরের গুরুদাসপুর চায়ের দোকানে ১০০ টাকার দ্বন্দ্বে সাইফুল ইসলাম (৪৫) নামের এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে। চা দোকানির কাপের আঘাতে শনিবার রাত দশটার দিকে তার মৃত্যু হয়। পুলিশ রাতেই লাশটি উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

নিহত সাইফুল ইসলাম গুরুদাসপুর পৌর সদরের চাচকৈড় পুরানপাড়া মহল্লার আব্দুল জলিলের ছেলে। বাড়ির পাশের মাসুদ রানার চায়ের দোকানে সাইফুল ইসলাম কাপের আঘাতে আহত হন। তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

জানা গেছে, নিহত সাইফুল ইসলাম ও চা দোকানি মাসুদ রানা একই মহল্লার বাসিন্দা। দীর্ঘদিন ধরে সাইফুল ওই দোকানেই চা পান করতেন। এরই মধ্যে মাসুদ রানার দোকানে চা বাবদ ১০০ টাকা বকেয়া পড়ে সাইফুলের। শনিবার রাতে সাইফুল চা পান করতে আসলে পূর্বের ১০০ টাকা বকেয়া নিয়ে দু’জনের মধ্যে বাকবিতন্ডা হয়।

গুরুদাসপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আব্দুল মতিন সাইফুলের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে ইত্তেফাককে জানান, শনিবার রাত দশটার দিকে বকেয়া টাকার জেরে দোকানি মাসুদ রানা চায়ের কাপ দিয়ে সাইফুল ইসলামের ডান হাতে আঘাত করেন। এতে সাইফুলের হাত কেটে রক্তক্ষরণ শুরু হয়। এ সময় স্থানীয়রা সাইফুলকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিলে চিকিৎসক মৃত্যু ঘোষণা করেন।

তিনি বলেন, সাইফুলের মৃত্যুর ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। তবে অভিযুক্ত চা দোকানি মাসুদ রানা ঘটনার পর থেকে পলাতক রয়েছেন। তাকে গ্রেপ্তারে পুলিশ কাজ করছে।

এদিকে সাইফুলের স্বজনরা অভিযোগ করেন, মাসুদ রানার দোকানে নিয়মিত চা পান করতেন সাইফুল। ঘটার রাতে চা পান করতে গেলে বকেয়ার জেরে সাইফুলের ওপর হামলা চালান মাসুদ। মাসুদের কাঁচের কাপের আঘাতে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণের ফলে সাইফুলের মৃত্যু হয়েছে। অভিযুক্ত চা দোকানি পলাতক থাকায় তার কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

ইত্তেফাক/পিও/এআই