বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

চার বিদেশিসহ ৬ হাজার বন্দিকে মুক্তি দেবে মিয়ানমার

আপডেট : ১৭ নভেম্বর ২০২২, ১২:৩১

মিয়ানমারের জান্তা সরকার সাবেক ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত ভিকি বোম্যান, জাপানি চলচ্চিত্র নির্মাতা তারু কুবতা ও অং সান সু চির সাবেক অর্থ উপদেষ্টা অস্ট্রেলিয়ান নাগরিক শন টার্নেলসহ ৬ হাজার বন্দিকে মুক্তি দিয়েছে। ২০২১ সালে সামরিক অভ্যুত্থানের পর বিভিন্ন সময়ে তাদের আটক করা হয়েছিল। মিয়ানমার আর্মির বরাত দিয়ে এ তথ্য জানায় হিন্দুস্তান টাইম্‌স।

মিয়ানমার সেনাবাহিনী জানিয়েছে, আগামী বছরের ৪ জানুয়ারি দেশটির স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষে বন্দিদের মুক্তি দেওয়া হয়েছে। বোম্যান ২০০২ থেকে ২০০৬ পর্যন্ত মিয়ানমারে যুক্তরাজ্যের রাষ্ট্রদূত হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। গ্রেপ্তারের সময় তিনি ইয়াঙ্গুন-ভিত্তিক মিয়ানমার সেন্টার ফর রেসপন্সিবল বিজনেস (এমসিআরবি) পরিচালনা করছিলেন।

সাবেক ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত ভিকি বোম্যান

বোম্যান ও তার স্বামী হিটেন লিন এই বছরের ২৪ আগস্ট শান রাজ্য থেকে ইয়াঙ্গুনে যাওয়ার সময় গ্রেপ্তার হন। সে সময় বোম্যানের বিরুদ্ধে ভিসা আইন লঙ্ঘনের অভিযোগ আনা হয় এবং তার স্বামীকে মিয়ানমারে থাকতে সাহায্য করার অভিযোগ আনা হয়। তাদের উভয়কেই এক বছর করে কারাদণ্ড দেন দেশটির সামরিক আদালত।

অং সান সু চির সাবেক অর্থ উপদেষ্টা অস্ট্রেলিয়ান নাগরিক শন টার্নেল

এদিকে অভ্যুত্থানের পরপরই ইয়াঙ্গুনে শন টার্নেলকে গ্রেপ্তার করা হয়। অভ্যুত্থান শুরু হওয়ার কয়েকদিন পর তাকে অফিসিয়াল সিক্রেটস অ্যাক্টের অধীনে তিন বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। টার্নেলকে পরে বিভিন্ন অভিযোগে আরও ২০ বছরেরও বেশি কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছিল।

অন্যদিকে, চলতি বছরের ২৬ জুলাই ইয়াঙ্গুনে জান্তা সরকার বিরোধী সমাবেশ চলাকালে গ্রেপ্তার হন জাপানি তথ্যচিত্র নির্মাতা তরু কুবতা। রাষ্ট্রদ্রোহের অভিযোগে ও যান্ত্রিক যোগাযোগ আইন লঙ্ঘনের দায়ে তাকে ১০ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

জাপানি চলচ্চিত্র নির্মাতা তারু কুবতা

জানা গেছে, গ্রেফতারের মাসে কুবতা প্রথমবারের মতো মিয়ানমারে আসেন। পরে স্থানীয় এক নাগরিককে নিয়ে তথ্যচিত্র নির্মাণ শুরু করেন। ২০১৪ সালে কুবতা জাপানে এক রোহিঙ্গা শরণার্থীর সঙ্গে দেখা করেছিলেন। পরে তিনি মিয়ানমারের শরণার্থী ও জাতিগত ইস্যুতে বেশ কিছু তথ্যচিত্র তৈরি করেন।

রিপোর্টার্স উইদাউট বর্ডার্সের মতে, আজকের সাধারণ ক্ষমার আগে মিয়ানমার সেনাবাহিনী অন্তত ৬৮ সাংবাদিককে আটক করেছে। ক্ষমতা দখলের পর থেকেই মিয়ানমারের জান্তা সরকারের বিরুদ্ধে ব্যাপক মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ উঠতে শুরু করে। বিভিন্ন অভিযোগে দেশি বিদেশি প্রায় ১৬ হাজার মানুষকে বন্দি করে তারা।

মিয়ানমার সেনাবাহিনী অন্তত ৬৮ সাংবাদিককে আটক করেছে

অ্যাসিসট্যান্স অ্যাসোসিয়েশন ফর পলিটিকাল প্রিজনারসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, অভ্যুত্থানের পর থেকে মিয়ানমারের জান্তা সরকারের হাতে দুই হাজার ৪০০ জনের বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন।

ইত্তেফাক/ডিএস