বৃহস্পতিবার, ০৮ ডিসেম্বর ২০২২, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

'যুক্তরাষ্ট্রের মুল ভূখণ্ডে আঘাত হানতে সক্ষম উ. কোরিয়ার নতুন ক্ষেপণাস্ত্র'

আপডেট : ১৮ নভেম্বর ২০২২, ১৮:৩১

জাপানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বলছে, উত্তর কোরিয়া এমন একটি আন্ত:মহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র জাপান সাগরে নিক্ষেপ করেছে। এটি যুক্তরাষ্ট্রের মুল ভূখণ্ডে আঘাত হানতে সক্ষম। খবর বিবিসির।

ক্ষেপণাস্ত্রটি হোক্কাইডোর ২১০ কিলোমিটার পশ্চিমে জাপান সাগরের পানিতে পড়েছে। যুক্তরাষ্ট্র এর তীব্র নিন্দা করেছে, আর দক্ষিণ কোরিয়া শক্ত পাল্টা ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছে।

বৃহস্পতিবার উত্তর কোরিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক উপস্থিতি বাড়ানোর পরিকল্পনা নিয়ে সতর্ক করেছিলেন। ওই দিনই স্বল্পমাত্রার একটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছুঁড়েছিল উত্তর কোরিয়া। 

পরে রোববার যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বৈঠক করেন জাপানের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে। শুক্রবার যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিলের মুখপাত্র আদ্রিয়েনে ওয়াটসন বলেছেন, বাইডেনকে সব জানানো হয়েছে এবং যুক্তরাষ্ট্র তার অংশীদারদের সাথে আলোচনা করবে।

উত্তর কোরিয়া গত দু মাসে ৫০ টির বেশি ক্ষেপণাস্ত্র ছুঁড়েছে। তবে এগুলোর বেশির ভাগই স্বল্প পাল্লার । দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র ছোড়ার ঘটনা বিরল এবং এটি সরাসরি যুক্তরাষ্ট্রের জন্য হুমকিস্বরূপ। কারণ এসব ক্ষেপণাস্ত্র পরমাণু অস্ত্র বহনে এবং যুক্তরাষ্ট্রের যে কোন জায়গায় আঘাত করতে সক্ষম।

সর্বশেষ যে আন্ত:মহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছোঁড়া হয়েছে স্থানীয় সময় সকাল সোয়া দশটায়- সেটি পিয়ংইয়ং এর কাছ থেকেই ছোঁড়া হয়েছে বলে দাবি করেছে দক্ষিণ কোরিয়ার সামরিক বাহিনী।

এটি প্রায় ৬ হাজার ১০০ কিমি উচ্চতা দিয়ে প্রায় এক হাজার কিলোমিটার ভ্রমণ করেছে। এটি মহাকাশের বেশ উঁচু দিয়েই উড়ে গেছে।

জাপানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী ইয়াসুকাজু হামাদা বলেছেন, এই ক্ষেপণাস্ত্রটির যুক্তরাষ্ট্রে আঘাত করার ক্ষমতা আছে।

সব হিসেবনিকেশ করে তারা দেখেছেন যে এটি পনের হাজার কিলোমিটার দূরেও আঘাত করতে পারে। যদিও এটি নির্ভর করে কত ওজনের অস্ত্র সেটি বহন করে নিয়ে যাচ্ছে তার ওপর।

কোরীয় উপত্যকায় যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক কর্মকাণ্ডের জবাবে উত্তর কোরিয়া এমন ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করে আসছে। তবে দেশটি নতুন ধরনের দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র তৈরি করছে - যেটি আন্ত:মহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্রের চেয়েও ক্ষমতাসম্পন্ন।

বিশ্লেষকরা অবশ্য বলছেন যে নতুন ক্ষেপণাস্ত্রটির কয়েকটি পরীক্ষা সফল হয়নি। আর উত্তর কোরিয়াও পূর্ণ মাত্রায় পরীক্ষার সুযোগ পায়নি। এর আগে চলতি মাসেই আরেকটি আন্ত:মহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছিলো উত্তর কোরিয়া কিন্তু সেটি সফল হয়নি বলেই দাবি করেছিলো দক্ষিণ কোরিয়া। অক্টোবরে উত্তর কোরিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র জাপানের ওপর দিয়ে চলে গিয়েছিলো। 

ইত্তেফাক/এসআর