রোববার, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২২ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

বধূ সাজার আগেই লন্ডনী কন্যার মৃত্যু

আপডেট : ২৯ নভেম্বর ২০২২, ২০:৫৪

যখন চলছে বিয়ের ধুমধাম আয়োজন। রঙিন বাতিতে সাজানো হয়েছে পুরো বাড়ি। আর ঠিক তখনই বিয়ের মাত্র দু’দিন আগেই পুকুরে ডুবে মৃত্যু হয়েছে লন্ডন প্রবাসী এক তরুণীর। 

সোমবার (২৮ নভেম্বর) সিলেটের বিশ্বনাথ পৌরসভার ৬ নম্বর ওয়ার্ডের চরচন্ডী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ২৬ বছর বয়সী নিহত ওই তরুণীর নাম রুকেয়া খাতুন। তিনি চরচন্ডী গ্রামের যুক্তরাজ্য প্রবাসী ছুরাব আলীর মেয়ে।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, চাচাতো ভাইয়ের সঙ্গে বিয়ে ঠিক হলে বধূ হবার স্বপ্ন নিয়ে সম্প্রতি স্বপরিবারে যুক্তরাজ্য থেকে দেশে ফিরেন রুকেয়া খাতুন। আগামীকাল (৩০ নভেম্বর) বুধবার ছিলো বিয়ের অনুষ্ঠান। ধুমধাম করে বাড়িতে বিয়ের সব আয়োজন শেষ করা হয়। ৪ বোন ও ১ ভাইয়ের মধ্যে রুকেয়া সবার বড় হওয়ায় পরিবারের কাছে বিয়ের আনন্দটাই ছিলো অন্যরকম। কিন্ত সব আনন্দকে মাটি করে না ফেরার দেশে চলে যেতে হলো রুকেয়াকে। তাই বধূবেশে স্বামীর ঘরে যাওয়া হলো না প্রবাসী এই তরুণীর। বাড়িতে আনন্দের পরিবর্তে এখন শোকের ছায়া।

রুকেয়ার চাচা তালেব আহমদ গোলাপ বলেন, রুকেয়া ছিলেন বুদ্ধি প্রতিবন্ধী। সোমবার সকাল সাড়ে ৮টার দিকে মায়ের সঙ্গে বাড়ির পুকুর ঘাটে যান রুকেয়া। তখন পা পিছলে রুকেয়া পুকুরের পানিতে পড়ে যায়। 
তার মা পা ধরে পানি থেকে তুলার চেষ্টা করেন। তখন রুকেয়ার মাও পানিতে পড়ে যান। তাদের চিৎকার শুনে দৌঁড়ে এসে মা ও মেয়েকে উদ্ধার করতে পানিতে ঝাঁপ দেন তালেব আহমদ গোলাপ ও তার স্ত্রী। 

তারা মাকে জীবিত উদ্ধার করতে পারলেও, রুকেয়া পানিতে ডুবে যায়। রুকেয়াকে সংজ্ঞাহীন অবস্থায় উদ্ধার করে সিলেট নর্থ-ইস্ট মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

বিশ্বনাথ থানার এসআই গাজী মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, ‘খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে আমরা লাশের ময়নাতদন্তের রিপোর্ট তৈরি করি। এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা করা হয়েছে।

ইত্তেফাক/জেএ/পিও