রোববার, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২২ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

শখের ক্যাকটাস

আপডেট : ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ১৯:৩৯

নান্দনিকভাবে ঘরকে সাজাতে ক্যাকটাসের ব্যবহার এখন প্রায় বসত-বাড়িতে বা অফিসে দেখা যায়। ক্যাকটাস মরুর দেশের উদ্ভিদ হলেও বাংলাদেশ পরিবেশের সাথে খুব ভালোভাবেই মানিয়ে নিয়েছে। আমাদের বসত-বাড়িতে ও অফিসে প্রতিনিয়তই ক্যাকটাস সংগ্রহ বাড়ছে, বাড়ছে ক্যাকটাসের প্রয়োজনীয়তা। ক্যাকটাসে খুব বেশি যত্নের প্রয়োজন হয় না। নিয়মিত যত্ন না করলেও চলে, তবে অবশ্যই কিছু বিষয়ে লক্ষ্য রাখতে হবে। না রাখলে আপনার শখের ক্যাকটাস মরে যেতে পারে।

ক্যাকটাস অত্যন্ত সুন্দর কাঁটাযুক্ত গাছ। যখনই ক্যাকটাস এর যত্ন নিবেন অবশ্যই লক্ষ্য রাখতে হবে আপনাকে ক্যাকটাসের কাঁটার যেন আঘাত না লাগে।

যে বিষয়গুলো আপনার লক্ষ্য রাখতে হবে —

পানি: খুব বেশি পানির প্রয়োজন হয় না। এতে নিয়মিত পানি দেওয়ার প্রয়োজন নেই। তবে একেবারে যে পানি দিতে হবে এমন না। দীর্ঘদিন পানির অভাবে আপনার ক্যাকটাস মারা যেতে পারে। আর সঠিক মাত্রায় পানি থাকলে ক্যাকটাস অত্যন্ত সুন্দরভাবে তার সৌন্দর্য প্রতিফলিত হয়। আপনি অবশ্যই চাইবেন না আপনার শখের জিনিস টি মলিন অবস্থায় থাকুক। এজন্য অবশ্যই আপনাকে সঠিক মাত্রায় নিয়মিত পানি দিতে হবে।  ক্যাকটাস মরুভূমির উদ্ভিদ, অনেকদিন পানি না দিলেও চলে। তবে অবশ্যই চেষ্টা করবেন মাসে দু-তিন বার পানি দেওয়ার। লক্ষ্য রাখবেন এটির গোঁড়ায় পানি জমে না থাকে। পানি জমে থাকলে গাছটিতে পচন ধরবে। অধিকমাত্রায় পানি যেমন পচনের কারণ হতে পারে, তেমনি পানি স্বল্পতার কারণে গাছটির শুকিয়ে মারা যেতে পারে। পানির স্পর্শে ক্যাকটাসের গায়ে ছত্রাকের আক্রমণ হয়। যে কারণে গাছে পচন ধরে।

আলো-বাতাস: ক্যাকটাস খোলামেলা পরিবেশে রাখতে হয় কারণ এটি মরুভূমির উদ্ভিদ। ক্যাকটাসের আলো বাতাসের প্রয়োজন আছে। সঠিক পরিমাণে আলোর প্রয়োজন। আলো অভাবে গাছটি খাদ্য তৈরি করতে পারবে না। ক্যাকটাসের প্রয়োজন সূর্যের আলো, যেখানে ভোরের সূর্য আলো পৌঁছায় সেখানে ক্যাকটাস রাখুন এতে প্রয়োজনীয় আলো পেয়ে যাবে।

ক্যাকটাস নানা শ্রেণির হয়, ম্যামিলেরিয়া, হেমাটো, কিছু কিছু অরনামেন্টাল ক্যাকটাসও হয়। আবার বর্ণময় বিশেষত কমলা, হলুদ এই রকম নানা ধরনের নানা শ্রেণির ক্যাকটাস হয়ে থাকে। আপনাকে শুধু আপনার পছন্দ অনুযায়ী বেছে নিতে হবে। রঙিন ক্যাকটাস রাখলে খেয়াল রাখবেন যেন তাতে সরাসরি রোদ না লাগে।

তাপমাত্রা: ঘরের তাপ মাত্রা সাধারণত ২০ থেকে ৩২ ডিগ্রির মধ্যে থাকে। এই তাপমাত্রায় ক্যাকটাসের জন্য সহনীয়। তবে শীতকালে তাপমাত্রা বিরূপ প্রভাব তৈরি করতে পারে। ২০ থেকে ৩২ ডিগ্রি সেন্টিগ্রেড তাপমাত্রায় ক্যাকটাস রাখা ভালো।

মাটি: এমন ধরনের বালি মাটি টবে ব্যবহার করুন যা  খুব সহজে পানি শোষণ করতে পারে। মাটিতে ক্যাকটাসের খাবার আছে কি-না বিষয়টি লক্ষ্য রাখতে হবে। খাবার বলতে দিতে পারেন উদ্ভিদের জন্য প্রয়োজনীয় পুষ্টি উপাদান দিয়ে তৈরি তরল খাবার অল্প পরিমাণে দিলেই যথেষ্ট। ক্যাকটাস টবে বা বাগানেও লাগাতে পারেন।

ক্যাকটাস বাগানে লাগাতে লক্ষ্য রাখুন, মাটির গভীরতা যাতে খুব বেশি না হয়। আর কোনোক্রমেই যেন ক্যাকটাসের গোঁড়ায় পানি না জমে।

টব: ক্যাকটাস এ দেশেও জন্মে। সবুজ এই গাছটায় কাঁটা থাকলেও এর রয়েছে অন্য রকম সৌন্দর্য। দৃষ্টিনন্দন এই ক্যাকটাস এখন ঘরের গাছ হিসেবে বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে শহুরে মানুষের কাছে।

শুধু একই প্রজাতির নয়, বরং একই টবে আছে সব রকম ক্যাকটাসের সমন্বয়ে এমন টব কিনতে পাওয়া যায় ঢাকার বড় বড় সব নার্সারিতে। পাওয়া যায় বিদেশ থেকে আমদানি করা গ্রাফটিং বা কলমের ক্যাকটাসও।

টবে টবে মোটা দানার বালি, পাতাসার, সামান্য কম্পোস্ট আর হাড়গুঁড়া দিতে হবে। খেয়াল রাখতে হবে, বৃষ্টির জল যাতে কোনোভাবেই এর সংস্পর্শে না আসে।

ইত্তেফাক/এআই

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন