মঙ্গলবার, ৩১ জানুয়ারি ২০২৩, ১৭ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

গরম বিটুমিন নিক্ষেপে ঝলসে গেছে অটোচালকের শরীর

আপডেট : ১১ জানুয়ারি ২০২৩, ২১:৪৯

ভোলায় প্রভাবশালী এক ঠিকাদারের শ্রমিকদের নিক্ষেপ করা গরম বিটুমিনের আঘাতে ঝলসে গেছে ফিরোজ নামে এক অটোচালকের হাত ও পা। আহত ফিরোজ ভোলা সদর হাসপাতালে অমানবিক যন্ত্রণায় ছটফট করছে। 

মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে সদর উপজেলার শিবপুর ইউনিয়নের পাতা খোলা মসজিদের সামনে সড়কে এ ঘটনা ঘটে। আহত অবস্থায় অটোচালক নিজেই দৌড়ে এসে ভোলার সদর হাসপাতালে ছুটে আসেন।

ছবি: ইত্তেফাক
  
প্রত্যক্ষদর্শী ও আহত অটোচালক জানান, গত কয়েকদিন যাবত শহরের জুগিরঘোল থেকে শিবপুর ইউনিয়নের শান্তির হাট বাজার পর্যন্ত সড়কের সংস্কারের কাজ চলছে। অটোচালক ফিরোজ শান্তির হাট থেকে ভোলা সদরের দিকে রওনা হয়ে পাতা খোলা মসজিদের সামনে আসলে সেখানে পিস ঢালাইকৃত রাস্তায় ভুলবশত তার অটোর চাকা উঠে যায়। 

বিষয়টি নজরে এলে ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন ওই কাজের দায়িত্বে থাকা শ্রমিকরা। কিছু বুঝে ওঠার আগেই এক শ্রমিক তার হাতে থাকা ফুটন্ত বিটুমিনের কেতলি থেকে অটোচালকের শরীরে নিক্ষেপ করে গরম বিটুমিন। মুহূর্তের মধ্যে অটোচালকের ডান হাত ও ডান পায়ে গরম বিটুমিন পড়ে অনেকাংশে ঝলসে যায়। অবস্থার বেগতিক দেখে অটোচালক নিজেই দৌড়ে আসেন ভোলা সদর হাসপাতালে। এরপর ইমারজেন্সিতে প্রাথমিকভাবে তার চিকিৎসা দিয়ে হাসপাতালে ভর্তি করে দেন কর্তব্যরত চিকিৎসক। আহত অটোচালক ফিরোজ সদর উপজেলার ধনিয়া ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা বাবুলের ছেলে। 

এদিকে বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে ওই সড়ক সংস্কারের দায়িত্বে থাকা একাধিক শ্রমিককে জিজ্ঞেস করেও কারো কাছ থেকেই কোনো ধরনের সদুত্তর পাওয়া যায়নি।
 
তবে এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত থানায় কোনো ধরনের অভিযোগ আসেনি। অভিযোগ পেলে দোষীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানান ভোলা সদর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি শাহিন ফকির। 

ইত্তেফাক/পিও