রোববার, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২১ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

বেড়েছে সড়ক দুর্ঘটনায় শিশু মৃত্যু, কমেছে বাল্যবিবাহ

আপডেট : ২৫ জানুয়ারি ২০২৩, ০৪:৩২

গত বছর সড়ক দুর্ঘটনায় সবচেয়ে বেশি শিশু নিহত হয় এবং তা ছিল ১৯৬ জন। ২০২১ সালে এ সংখ্যা  ছিল ৬৯ জন। সে অনুযায়ী এক বছরে সড়ক দুর্ঘনায় শিশুমৃত্যুর হার বেড়েছে ১৮৪ শতাংশ। শিশু মারা যাওয়ার দ্বিতীয় কারণ হিসেবে পানিতে ডুবে যাওয়াকে উল্লেখ করা হয়। এ সময় ১ হাজার ১৫২ জন শিশু পানিতে ডুবে মারা যায়। যা ২০২১ সালে ছিল ৪০৫ জন। এমন তথ্য প্রকাশ করেছে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা মানুষের জন্য ফাউন্ডেশন (এমজেএফ)। সংবাদপত্রে প্রকাশিত সংবাদের ভিত্তিতে এ তথ্য প্রকাশ করে প্রতিষ্ঠানটি।

তারা জানায়, শ্রমের সঙ্গে নিযুক্ত সকল শিশুই কোনো না কোনোভাবে নির্যাতনের শিকার হয়। গৃহশ্রমে বেশির ভাগই শিশু এবং এখানে নির্যাতনের হারও বেশি, তাই গৃহশ্রমকে শিশুশ্রমের তালিকাভুক্ত করার দাবি জানিয়েছেন সংস্থার নেতৃবৃন্দ।

গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া মিলনায়তনে আয়োজিত ‘বাংলাদেশ শিশু পরিস্থিতি ২০২২ :সংবাদপত্রের পাতা থেকে’ শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য প্রকাশ করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে এ প্রতিবেদন উপস্থাপন করেন এমজেএফের কোঅর্ডিনেটর রাফেজা শাহীন। তিনি জানান, বাল্যবিবাহের হার এক বছরে ৯৪ শতাংশ কমেছে। ২০২১ সালে দেশের ২৩টি জেলায় ৪১ হাজার ৯৫টি বাল্যবিবাহের সংবাদ প্রকাশিত হয়। ২০২২ সালে তা কমে দাঁড়ায় ২ হাজার ৩০১টিতে। প্রতিবেদনে এক বছরে শিশু ধর্ষণের হার ৩১ দশমিক ৫ শতাংশ কমেছে বলে উল্লেখ করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে এমজেএফের নির্বাহী পরিচালক শাহীন আনাম বলেন, এমজেএফের বিশ্লেষণ অনুযায়ী শিশুরা নিজের বাসায় নিরাপদ নয়। আরো বক্তব্য দেন, সমাজসেবা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক আমরান খান, ব্রেকিং দ্য সাইলেন্সয়ের নির্বাহী পরিচালক রোকসানা বেগম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুষদের চেয়ারপারসন অধ্যাপক ড. শাহনাজ হুদা ও এমজেএফের সিনিয়র কোঅর্ডিনেটর শাহানা হুদা রঞ্জনা।

ইত্তেফাক/ইআ