সোমবার, ১৭ জুন ২০২৪, ৩ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় অফিসার্স ফেডারেশনের নবনির্বাচিত সভাপতি মোর্শেদ, মহাসচিব হীরা

আপডেট : ২২ জুলাই ২০২৩, ১৯:২৩

বাংলাদেশ আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় অফিসার্স ফেডারেশন দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন ২০২৩-২৪ অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনে মহাসচিব নির্বাচিত হয়েছেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) ডেপুটি রেজিস্ট্রার নজরুল ইসলাম হীরা। সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) মীর মোহাম্মদ মোর্শেদ। 

শনিবার (২২ জুলাই) শেরেবাংলা কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে সারাদেশের সকল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর কর্মকর্তাদের সংগঠন বাংলাদেশ আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় অফিসার্স ফেডারেশনের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন ২০২৩-২৪ অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার দায়ের পালন করেন প্রকৌশলী সৈয়দ মোহাম্মদ ইকরাম।

নির্বাচন শেষে একই স্থানে নবনির্বাচিতদের শপথ বাক্য পাঠ ও দায়িত্ব গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। উক্ত অনুষ্ঠানে সংগঠনটির সদ্য বিদায়ী সভাপতি মোহাম্মদ মফিজুল ইসলাম মজনুর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সহকারী একান্ত সচিব-২ ও প্রধান পৃষ্ঠপোষক গাজী হাফিজুর রহমান লিকু। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন শেকৃবি রেজিস্ট্রার শেখ রেজাউল করিম এবং জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (জাবি) সিনেট সদস্য ও প্রধান উপদেষ্টা মো. মাসুদুর রহমান। সহকারী নির্বাচন কমিশনার আজাদ খান ভাসানীর সঞ্চালনায় শপথ বাক্য পাঠ করান প্রধান নির্বাচন কমিশনার প্রকৌশলী সৈয়দ মোহাম্মদ ইকরাম।

আন্তঃবিশ্ববিদ্যালয় অফিসার্স ফেডারেশন সারাদেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর কর্মকর্তাদের দাবি-দাওয়া, স্বার্থ রক্ষায় কাজ করে আসছে। প্রতি দুইবছর পরে সংগঠনটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

নবনির্বাচিত মহাসচিব নজরুল ইসলাম হীরা যেকোনো দাবি-দাওয়া আদায়ে সকলকে এক হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান। এছাড়া, তিনি আগামী সংসদ নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নির্বাচিত করতে সকলকে এক হয়ে কাজ করতে বলেন।

প্রধান অতিথি গাজী হাফিজুর রহমান লিকু কর্মকর্তাদের দাবি-দাওয়া পূরণে আশ্বাস জ্ঞাপন করেন। 

অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য দেন, প্রধান উপদেষ্টা ও জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট সদস্য মো. মাসুদুর রহমান, প্রধান নির্বাচন কমিশনার প্রকৌশলী সৈয়দ মোহাম্মদ ইকরাম, নবনির্বাচিত সভাপতি মীর মোহাম্মদ মোর্শেদ, বিদায়ী সভাপতি মোহাম্মদ মফিজুল ইসলাম মজনু প্রমুখ।

ইত্তেফাক/এআই