রোববার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

ভ্রমণে ভীষণ ক্লান্তি কাজ করে?

আপডেট : ২৯ নভেম্বর ২০২৩, ২২:০০

আপনার শরীর একটি রুটিন অনুসরণ করে। আপনি যতই অগোছালো হয়ে থাকুন না কেন আপনার শরীর একটা নির্দিষ্ট সময়ে রুটিন অনুসরণ করবেই। এই রুটিন আপনার শরীরকে অনেক সময় ব্যত্যয় ঘটালে ক্লান্তি কাজ করতেই পারে। বিষয়টি সবচেয়ে ভালোভাবে বোঝা যায় ভ্রমণের সময়।

ভ্রমণে ক্লান্তি কাজ করতেই পারে। প্রস্তুতির অভাব থাকলেই মূলত ক্লান্তি আপনার ভ্রমণ ধ্বংস করে দিতে পারে। আলসে হোন বা যাই হোন না কেন, আপনাকে এই প্রস্তুতির কথা ভাবতেই হবে।

পূর্বপরিকল্পনা রাখা জরুরি
দীর্ঘ ভ্রমণে যাওয়ার আগে পরিকল্পনা করা উচিত। আপনি সঙ্গে কী নেবেন আর কিভাবে শরীরকে প্রস্তুত করবেন তা বুঝে নেওয়া জরুরি। সাডেন প্ল্যানের হিসেব আলাদা। ভ্রমণের এক সপ্তাহ আগে থেকে ভালো করে ঘুমিয়ে নিন। সেই সঙ্গে নিয়মিত শরীরচর্চা করুন। নিয়মিত স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণ করুন। ক্যাফেইন ও চর্বি-জাতীয় খাবার যতটা সম্ভব বর্জন করুন।

নিজেকে অ্যাক্টিভ রাখুন
যাত্রাপথে শরীরকে কোথাও এলিয়ে না দিয়ে সব সময় সক্রিয় থাকার চেষ্টা করুন। শরীরে আলসেমি ভাব হলে বিরক্ত না হয়ে প্রাণচাঞ্চল্য ফিরিয়ে আনার চেষ্টা করুন। যানবাহন ছাড়ার আগে শরীরের আড়মোড়া ভেঙে নিন। এতে আপনার শরীরের রক্ত চলাচল স্বাভাবিক হবে। অনেকে বাসে বা গাড়িতে শরীর এলিয়ে ঘুমিয়ে পড়েন। এমনটি ঠিক নয়। এমনটি করলে বরং শরীর বেকায়দায় ঘুমিয়ে থাকায় কিছু সমস্যা হতে পারে। 

ভ্রমণে ফাস্টফুড বা আজেবাজে খাবার নয়
ভ্রমণের সময় ও গন্তব্যে পৌঁছানোর পর স্বাস্থ্যকর খাবার গ্রহণ করুন। এক্ষেত্রে বিভিন্ন ধরনের ফল ও শাকসবজি খেতে পারেন। ক্যাফেইন, সুগার-জাতীয় খাবার বাদ দিন। অতিরিক্ত লবণাক্ত খাবার এড়িয়ে চলুন। যে হোটেলে খাবেন সে হোটেলের অবস্থা যাচাই করুন। 

পানীয় নির্বাচনে সাবধান
এক বোতল ফ্রেশ পানি ও ভেষজ চা নিয়ে নিন। ক্যাফেইনযুক্ত পানি পরিহার করতে পারলেই ভালো। কোল্ডড্রিংক তো এড়াতেই হবে। একই সঙ্গে চিনিযুক্ত ফলের জ্যুস বা রাস্তায় পাওয়া চিনিযুক্ত লেবুর শরবত না খাওয়াই ভালো। 

আরাম করুন
ভ্রমণের সময় ইচ্ছে হলে সিনেমা দেখুন, মজাদার কোনো গল্প পড়ুন বা গান শুনুন; যা আপনার মেজাজে অনেক শিথিলতা এনে দিতে পারে। হঠাৎ যদি ঘুম পেতে থাকে, তাহলে চট করে সিনেমা দেখা বা বই পড়া বন্ধ করে দিয়ে আরাম করুন।

বিশ্রাম নিন
ঘুমের চেয়ে বিশ্রামকেই বেশি গুরুত্ব দিন। অতিরিক্ত আরাম পেতে ভ্রমণের সময় এয়ারফোন বা আই মাস্ক ব্যবহার করতে পারেন। বিশ্রাম নিয়ে নতুন স্থানের পরিবেশের সঙ্গে নিজেকে খাপখাইয়ে নেওয়ার চেষ্টা করুন।

ইত্তেফাক/এআই

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন