শুক্রবার, ০১ মার্চ ২০২৪, ১৭ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

অনলাইনে প্রসাধনী কেনার ক্ষেত্রে সতর্কতা

আপডেট : ০৬ ডিসেম্বর ২০২৩, ১৩:২৫

আজকাল অনলাইনেই সবাই কেনাকাটা করেন। ঝামেলা কম, সময় লাগে কম। আবার অনেক সময় সাশ্রয়ও হয়। দোকানে কিনতে গেলে যে খরচ হয় তা থেকেও কিছু টাকা বাঁচানো যায়। নানা সুবিধার কথা বিবেচনাতেই অনেকে অনলাইনে প্রসাধনী কেনেন। কিন্তু অনলাইনে প্রসাধনী কেনার সময় কিছু সতর্কতা অবলম্বন করা উচিত।

মেয়াদ দেখে নিন
অনলাইন থেকে যেকোনো পণ্য ক্রয়ের ক্ষেত্রে অবশ্যই উৎপাদনের মেয়াদ দেখে নিতে হবে। প্রসাধনী আমাদের শরীরের সঙ্গে সরাসরি সম্পর্কিত। অনেক অসাধু ব্যবসায়ীরা প্রসাধনী উৎপাদনের মেয়াদ মুছে ফেলে এভাবে প্রসাধনীর মেয়াদ উত্তীর্ণের তারিখের পরও সেটা বিক্রি করা হয়। এইসব প্রসাধনীর সংস্পর্শে এলে শরীরের বিভিন্ন রকম রোগের দেখা দেয়। অনেকের আবার চামড়াও পুড়ে যায় এসব সামগ্রী ব্যবহার করার ফলে।

তবে বিশেষ করে ইউরোপ আমেরিকার অনেক পণ্যে মেয়াদ উত্তীর্ণের তারিখ উল্লেখ করে না পণ্য উৎপাদনকারীরা। ইমপোর্ট করা হয় একবার বা বছরের নির্দিষ্ট সময়ে। অনেক পণ্যের মেয়াদ শেষ হয়ে যায়। কেনার আগে তাই মেয়াদ দেখে নেবেন বা ছবি চাইবেন। 

যাচাই করুন উপাদান
একটি পণ্য কেনার আগে তার গুনগত মান সম্পর্কে নিশ্চিত হতে হবে। এতে করে বোঝা যাবে এটি কি কি দ্বারা তৈরি। প্রসাধনীর প্যাকেট বা সিল থেকে এ সম্বন্ধে জানতে হবে। কোনভাবে এটি না থাকলে তেমন ধরনের প্রসাধনী না ক্রয় করাই ভালো কারণ এতে ক্ষতিকারক এসিড থাকতে পারে যা মানুষের শরীরে অতিরিক্ত মাত্রায় ক্ষতি সাধন করে। আপনার ত্বকের সঙ্গে উপাদানগুলো মানানসই কি-না তা যাচাই করার স্বার্থেই এমনটি করতে হবে। 

আসল-নকল যাচাই
আসল পণ্যের গায়ে সিল থাকে। আপনি অনলাইনে যদি সাইটে কেনেন আর তা নির্ভরযোগ্য হলে রিটার্ন পলিসির সুবিধা পাবেন। আর যদি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে কেনেন তাহলে সে সুবিধা পাবেন না। সেজন্য আপনাকে বাড়তি সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। মেসেজে ওদের কাছে আসল পণ্যের ছবি চেয়ে নেবেন। সিল দেখবেন। 

ইত্তেফাক/এআই

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন