বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

শহীদ মিনারে ফুল দেওয়া নিয়ে বাকবিতণ্ডা, ছাত্রদল নেতার ছুরিকাঘাতে ২ ভাই আহত

আপডেট : ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৭:২২

জামালপুরে শহীদ মিনারে ফুল দেওয়া নিয়ে বাকবিতণ্ডার জেরে আবু সাঈদ শান্ত নামে এক ছাত্রদল নেতার বিরুদ্ধে ছুরিকাঘাতের অভিযোগ উঠেছে। এতে পারভেজ হাসান (২৮) ও এমএ তাহের রহমান (২৫) নামে দুই ভাই গুরুতর আহত হয়েছেন।

বুধবার (২১ ফেব্রুয়ারি) সকালে জামালপুর সদর উপজেলার ঘোড়াধাপ ইউনিয়নে এই ঘটনা ঘটে।

অভিযুক্ত আবু সাঈদ শান্ত ঘোড়াধাপ ইউনিয়ন ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক। অপরদিকে আহত পারভেজ হাসান ও এমএ তাহের রহমান ঘোড়াধাপ ইউনিয়নের কটারবাড়ী এলাকার সাইদুর রহমানের ছেলে।

জানা যায়, সদর উপজেলার ঘোড়াধাপ ইউনিয়নের ভারুয়াখালী এমএন উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে শহীদ মিনারে ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পনের আয়োজন করা হয়। ঘোড়াধাপ ইউনিয়ন ছাত্রদলের সভাপতি মেহেদী হাসান ও সাধারণ সম্পাদক আবু সাঈদ শান্তর নেতৃত্বে স্থানীয় ছাত্রদল নেতা-কর্মীরা শহীদ মিনারে পুষ্পস্তবক অর্পন করে। তাদের শ্রদ্ধা নিবেদনের পরপরই একই বিদ্যালয়ে নবম-দশম শ্রেণীর শিক্ষার্থীরা শহীদ বেদিতে ফুল দিতে গেলে ছাত্রদল নেতারা বাধা দেয়।

এ সময় ছাত্রদল নেতাদের বাধা দেওয়ার ঘটনায় পারভেজ হাসান নামে স্থানীয় এক ব্যবসায়ী প্রতিবাদ করেন। এতে ছাত্রদল নেতা মেহেদী ও শান্তর সঙ্গে পারভেজ হাসানের কথাকাটি হয়। একপর্যায়ে শান্ত উত্তেজিত হয়ে পারভেজ হাসানের ওপর হামলা করে।

পারভেজের ছোট ভাই রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী এমএ তাহের হামলায় বাধা দিলে দু’জনকেই ছুরিকাঘাতে আহত করে ছাত্রদল নেতা আবু সাইদ শান্ত। পরে স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে জামালপুর জেনারেল হাসপাতাল নিয়ে যায়। তবে গুরুতর আহত হওয়ায় পারভেজকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। এই ঘটনার পর থেকে ছাত্রদল নেতারা গা-ঢাকা দিয়েছেন।

জামালপুর সদর থানার ওসি মুহাম্মদ মহব্বত কবির জানান, এখনো অভিযোগ পাইনি। অভিযোগ পেলে এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইত্তেফাক/এবি