মঙ্গলবার, ২১ মে ২০২৪, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

গরমে স্বস্তির এসি কেনার আগে

আপডেট : ১৯ এপ্রিল ২০২৪, ১৮:০১

অতিষ্ঠ গরমের বিষয়ে আগে থেকেই সতর্ক করেছিলেন বিশেষজ্ঞরা। এই গরমে এখন আর ফ্যান নয়, সবাই কিনতে চাচ্ছেন এসি। এসি একসময় উচ্চবিলাসিতা হলেও এখন প্রায় অনেকের জন্যই প্রয়োজনীয়তা হয়ে পড়েছে। কিন্তু এসি তো আর চাইলেই কিনে ফেলা যায় না। এসি কেনার সময়েও অনেক ভাবতে হয়। একটি পণ্য কেনার পর তা কতটা বিদ্যুৎ খরচ করছে আর কতটা ভালো আউটপুট দিচ্ছে সেটিও ভাবনায় রাখা জরুরি।

এসি কেনার সময় প্রথমেই ব্র্যান্ডের কথা ভাবতে হবে। ব্র্যান্ড জরুরি অবশ্যই। আরও জরুরি এর সার্ভিস সেন্টার ও আফটারসেলস সার্ভিস কতটা ভালো। চলুন জেনে নেই কি কি বিষয় খেয়াল রেখে এসি কিনবেন: 

প্রথমেই ভাবুন উইন্ডো এসি নাকি স্প্লিট এসি
প্রথমে জেনে নিতে হবে আপনি স্প্লিট এসি নাকি ইউন্ডো এসি কিনবেন। প্রশ্ন হচ্ছে, উইন্ডো আর স্প্লিট এসি আসলে কী? সহজ ভাষায় স্প্লিট এসিতে কম্প্রেসার ঘরের বাইরে থাকে। এ ধরনের এসির সুবিধা হলো মেশিনের আওয়াজ শোনা যায় না। এই আরামের কিছু সমস্যা রয়েছে যেমন, কম্প্রেসার বসানোর জন্য ঘরের দেওয়াল ভাঙতে হয়। ভাড়া বাসা হলে তো আর এই ঝামেলা পোহানো সম্ভব হয় না। নিজের বাড়ি হলে তাও কিছুটা সুবিধা মেলে। অন্যদিকে উইন্ডো এসি লাগাতে গেলে একটা জানালা বন্ধ হয়ে যায়। এ ধরনের এসি বন্ধ থাকলে ঘরে আলো-বাতাস ঢোকার সম্ভবনা অনেকটাই কমে যাবে। বাজেটের কথা বললে উইন্ডো এসির দাম স্প্লিট এসির থেকে বেশ খানিকটা কম।

ঘরের আকৃতি দেখুন
কত টনের এসি কিনবেন এসব ভাবনা কিন্তু শুরুতেই নয়। প্রথমে ভাবুন কত স্কয়ার ফিট আপনার বাসা। ঘরের আয়তন সর্বোচ্চ ১৪০ স্কয়ার ফিট পর্যন্ত হলে এক টন ক্ষমতাসম্পন্ন এসি যথেষ্ট। এখন আপনার ঘরের আকার ১৪০ থেকে ১৯৬ স্কয়ার ফিটের মধ্যে হলে দেড় টন কার্যক্ষমতার এসি দরকার হবে। ঘরে যদি জানালা থাকে তবে পছন্দ অনুসারে ভালো ব্র্যান্ড দেখে 'উইন্ডো এসি' কিনে নিতে পারেন। ঘরের আকার বড় কিন্তু কোনো জানালা নেই তবে স্প্লিট এসি কিনতে হবে। মূলত বসার ঘর কিংবা অফিসের বড় রুমে ব্যবহারের জন্য স্প্লিট এসি কেনা হয়।

ইনভার্টারের ব্যাপারে কি করা যায়?
অবশ্যই ইনভার্টারসহ এসি কেনা ভালো। ইনভার্টার বিদ্যুৎ খরচ কমায়। এজন্য আজকাল ইনভার্টার এসির চাহিদা এত বেশি। কমপ্রেসারকে প্রয়োজন অনুসারে ব্যবহার করাও সহজ হয় আর বিদ্যুৎ খরচ কিছুটা বাঁচে।

এসিতে জরুরি কিছু লাগবেই
ব্লোয়ার ফ্যান এসিতে থাকতেই হবে। এই অংশটিই আপনার বাড়িতে বাতাস ছড়িয়ে দেয়। ব্লোয়ার ফ্যানের আয়োজন যত বড় হবে তত বেশি বাতাস পাওয়া যাবে। আরেকটি উপাদান যা এসিতে লাগবেই তা হলো কনডেনসার কয়েল যা ঠান্ডা করার গতি বাড়ায়। এসিতে কনডেন্সার কয়েলগুলো যাতে তাপ বিনিময় করতে পারে এবং এরমাঝে ক্ষয়রোধী বৈশিষ্ট্য থাকে দেখে নিন। ক্যাপাসিটর আমাদের শেষ মাস্ট উপাদান যা সার্কিট ফেইল কিংবা বিচ্ছিন্ন হয়ে গেলে আগুন লাগা থেকে বাঁচায়।

ব্র্যান্ড নিয়ে ভাবনা থাকে তো?
তাহলে ব্রান্ড কোনটি ভালো? বাজারে জনপ্রিয় কিছু বিদেশি ব্রান্ড আছে। তাদের আফটার সেলস ভালো হলে অবশ্যই নেবেন। দেশি ব্রান্ডও আছে। তবে মানের বিষয় নিয়ে অনেকে ভেবে ভালো ব্রান্ডে যান। কিন্তু সেগুলোর অনেকগুলোর সার্ভিস সেন্টার দূরে থাকলে বিপাকে পড়তে হয়। আগে জেনে নিন যে তারা আপনাকে সার্ভিস কিভাবে দেবে। দেশি ব্রান্ডে কিনলে খরচ একটু কম হয় বটে। সেক্ষেত্রে তাদের সার্ভিস রিভিউ দেখুন। পণ্যটি সামনাসামনি দেখুন। তারপর কিনুন। 

ইত্তেফাক/এআই

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন