ঢাকা মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯, ১ শ্রাবণ ১৪২৬
২৯ °সে


সন্তানের প্রতি নজরদারি বাড়ান: নিউইয়র্ক পুলিশ কমিশনার

সন্তানের প্রতি নজরদারি বাড়ান: নিউইয়র্ক পুলিশ কমিশনার
বাপার আয়োজনে অনুষ্ঠিত টাউন হল মিটিংয়ে বক্তব্য রাখেন নিউইয়র্ক পুলিশ কমিশনার জেমস ও’নিল। ছবি: ইত্তেফাক

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে প্রবাসী বাংলাদেশি অধ্যুষিত ব্রঙ্কসে অনুষ্ঠিত টাউন হল মিটিংয়ে নিউইয়র্কের পুলিশ (এনওয়াইপিডি) কমিশনার জেমস ও’নিল বলেছেন, সন্তান কোথায় যাচ্ছে, কার সঙ্গে মেলামেশা করছে সে ব্যাপারে অভিভাবকের নজরদারি থাকা জরুরি। তারা যেন বিপথে না যায় সে ব্যাপারেও দায়িত্ব নিতে হবে অভিভাবককেই।

টাইমস স্কয়ারে হামলা চালিয়ে আমেরিকানদের হত্যার পরিকল্পনা গ্রহণের অভিযোগে আটক বাংলাদেশি যুবক আশিকুল আলম প্রসঙ্গে এক প্রশ্নের জবাবে পুলিশ কমিশনার বলেন, জনগণের নিরাপত্তায় বদ্ধপরিকর আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী। এ নিয়ে কোনও ধরনের আপোষের অবকাশ থাকতে পারে না।

স্থানীয় সময় বুধবার সন্ধ্যায় ব্রঙ্কসের গোল্ডেন প্যালেস কমিউনিটি সেন্টারে অনুষ্ঠিত টাউন হল মিটিংয়ের আয়োজন করে বাংলাদেশি আমেরিকান পুলিশ অ্যাসোসিয়েশন (বাপা)। প্রতিষ্ঠার পর এটি ছিল বাপার তৃতীয় টাউন হল মিটিং।

আরও পড়ুন: মহেশপুর পৌরসভার বিদ্যুৎ বিল বকেয়া ২ কোটি টাকা

বাংলাদেশিদের আইন মেনে চলার প্রশংসা করে পুলিশ কমিশনার জেমস নিল সর্বাত্মক সহায়তা অব্যাহত রাখার অঙ্গীকার করেন।

সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, বাপার সভাপতি লেফটেন্যান্ট সুজাত খান। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক সার্জেন্ট হুমায়ূন কবির পুলিশ কমিশনারকে স্বাগত জানান। এ সময় নিউইয়র্ক পুলিশ ডিপার্টমেন্টে নির্বাহী পদে পদোন্নতি পাওয়া প্রথম বাংলাদেশী ক্যাপ্টেন খন্দকার আব্দুল্লাহকে বিশেষভাবে পরিচয় করিয়ে দেওয়া হয়।

মতবিনিময় সভায় প্রবাসীরা ‘ধর্ম, বর্ণ এবং জাতিগত বিদ্বেষমূলক হামলার ঘটনা বৃদ্ধি পাওয়ায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করলে পুলিশ কমিশনার জানান, হেইট ক্রাইম টাস্কফোর্সে প্রয়োজন হলে একজন বাঙালি অফিসারও নেওয়া হবে।

প্রত্যেক মাসে পুলিশ প্রিসিঙ্কটে কমিউনিটি ভিত্তিক সভা হয়। সে সভায় প্রবাসীদের অংশ নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, এর ফলে পুলিশ প্রশাসনের সঙ্গে কমিউনিটির ঘনিষ্ঠতা বাড়ে।

অনুষ্ঠানে পুলিশ কমিশনারকে ক্রেস্ট দেওয়া হয়। ডিটেকটিভ মশিউর রহমানের সঞ্চালনায় প্রশ্নোত্তর পর্বে সহায়তা করেন লেফটেন্যান্ট কারাম চৌধুরী।

নানা ইস্যু উপস্থাপন এবং প্রশ্ন করেন ডেমোক্রেটিক পার্টির ডিস্ট্রিক্ট অ্যাট লার্জ অ্যাটর্নি মঈন চৌধুরী, কমিউনিটি লিডার মোহাম্মদ এন মজুমদার, বাংলাদেশ সোসাইটির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফখরুল আলম, ডেমোক্রেটিক পার্টির তৃণমূলের সংগঠক ফাহাদ সোলায়মান, বিশিষ্ট সমাজকর্মী মাজেদা এ. উদ্দিন এবং জেবিবিএ’র সাবেক সভাপতি জাকারিয়া মাসুদ জিকো প্রমুখ। অনুষ্ঠানে নিউইয়র্কে বাংলাদেশের কনসাল জেনারেল সাদিয়া ফয়জুননেসাকেও বিশেষভাবে সম্মান জানানো হয়।

ইত্তেফাক/অনি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৬ জুলাই, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন