ঢাকা রবিবার, ১৮ আগস্ট ২০১৯, ৩ ভাদ্র ১৪২৬
২৮ °সে


স্পেনে উৎসবমুখর পরিবেশে ঈদুল আজহা পালিত

স্পেনে উৎসবমুখর পরিবেশে ঈদুল আজহা পালিত
স্পেনে ঈদুল আজহা পালিত। ছবি: ইত্তেফাক

রবিবার স্পেনের মাদ্রিদে উৎসবমুখর পরিবেশে ঈদুল আজহা পালন করেছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা। রাজধানী শহর মাদ্রিদ, পর্যটন নগরী বার্সেলোনাসহ স্পেনের বিভিন্ন শহরে ছড়িয়ে থাকা প্রবাসী বাংলাদেশিরা ঈদের নামাজ আদায়, একে অপরের বাসায় গিয়ে ঈদের কুশল বিনিময় করে ঈদের দিনটি আনন্দময় করার চেষ্টা করেন। তবে স্পেনে ঈদের দিন সরকারি ছুটি না থাকায় নামাজ আদায় করেই অনেককে কাজে ছুটতে দেখা গেছে।

মাদ্রিদের প্রানকেন্দ্র লাভা-পিয়াসের কাসিনো পার্কে খোলা মাঠে ঈদ জামায়াত আদায় করেন প্রবাসীরা। অন্য বছরের মতো এবারও সরকারিভাবে অনুমতি নিয়ে কাসিনো পার্কে হাজারো মুসল্লির উপস্থিতিতে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

দেশটিতে বসবাসরত বাংলাদেশিরা মিলে একসঙ্গে ভাগাভাগি করে নেন ঈদের আনন্দ। সুন্দর আবহাওয়া তাদের ঈদের আনন্দ আরও বাড়িয়ে দেয়। ঈদের নামাজ শেষে একে অপরের সঙ্গে কোলাকুলি ও কুশল বিনিময় করেন প্রবাসী মুসলিম সম্প্রদায়।শত ব্যস্ততার মাঝে এই একটা দিন প্রবাসী সবাই মিলিত হন উৎসবের আমেজে। গ্রীষ্মকালীন ছুটি থাকায় এবারের ঈদুল আজহায় প্রবাসী বাংলাদেশি শিশু-কিশোরদের মধ্যে বেশ উৎসাহ এবং একটা উৎসব আমেজ দেখা যায়। অনেকে সপরিবারে লম্বা ছুটিতে দেশে রয়েছেন।

ঈদের দিন বাংলাদেশিদের পাশাপাশি বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ধর্মপ্রাণ মুসলমানরাও কাসিনো পার্কে জড়ো হয়ে ঈদের নামাজ আদায় করেন।

মাদ্রিদে বাংলাদেশি অধ্যুষিত লাভাপিয়েসের বায়তুল মুকাররম বাংলাদেশি মসজিদ পরিচালনা কমিটির আয়োজনে পার্কে কাসিনোর খোলা ময়দানে স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ৭টায় এবং সাড়ে ৮টায় দুইটি জামাতে বাংলাদেশ, পাকিস্থান, মরক্কো, সেনেগালসহ বেশকিছু দেশের কয়েক হাজার মুসল্লি অংশ নেন। নামাজ শেষে খুতবায় বিশ্ব মুসলমানদের শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করা হয়।

স্পেনে বাংলাদেশ দূতাবাস প্রধান এম হারুন আল রাশিদসহ স্থানীয় কমিউনিটির নেতারা ঈদের নামাজ আদায় করেন ও সবার সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন।

স্পেনের সবচেয়ে বড় মসজিদ ভেনতাসে সকাল ৮টায় ঈদের বৃহত্তম জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। স্পেনে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত হাসান মাহমুদ খন্দকার, বাণিজ্যিক সচিব রেদওয়ান আহমেদ, প্রথম সচিব (শ্রম) শরিফুল ইসলামসহ কমিউনিটির নেতারা ঈদের নামাজ আদায় করেন ও সকলের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন। ‘মাস মাদ্রিদ’ এর একমাত্র মুসলিম মহিলা কাউন্সিলর সামিরা মাইসুনও এখানে ঈদের নামাজ আদায় করেন। জামাত দু‘টিতে ইমামতি করেন যথাক্রমে শায়েখ বিন মোহাম্মদ উল্লাহ ও মওলানা আজমল হোসেইন।

এছাড়া মালাগা, আলিকান্তে, মুরছিয়া, সেভিলা, গ্রানাদা, করদুভাসহ অনেক শহরে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

পর্যটন নগরী বার্সেলোনায় শাহ জালাল জামে মসজিদে অনুষ্ঠিত ঈদের তিনটি জামাতেই ছিল প্রবাসী বাংলাদেশিদের উপচে পড়া ভিড়। ঈদের নামাজের দুটি জামাত মসজিদে ও একটি জামাত মসজিদ সংলগ্ন খালি ময়দানে আয়োজন করে মসজিদ পরিচালনা কমিটি।

সকাল পৌনে ৮টা, সোয়া ৮টা এবং সোয়া ৯টায় অনুষ্ঠিত হয় ঈদের নামাজের জামাতগুলো। এছাড়া লতিফিয়া ফুলতলী জামে মসজিদে সকাল সাড়ে ৭টায়, সোয়া ৮টায় ও ৯টায় ঈদের নামাজের তিনটি জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

আরও পড়ুন: মাদারগঞ্জে হত্যা মামলার আসামি ইয়াবাসহ গ্রেফতার

এই ঈদে কেনাকাটার চেয়ে মুসলমানেরা পশু কোরবানি নিয়ে ব্যস্ত থাকেন বেশি। কিন্তু স্পেনের আইন অনুযায়ী প্রকাশ্যে পশু কোরবানি দেওয়া যায় না। তাই মাংস ব্যবসায়ীদের মাধ্যমে বাংলাদেশিরা কোরবানি দেন।

ইত্তেফাক/নূহু

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
১৮ আগস্ট, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন