টোকিও দূতাবাসে বাণিজ্য, বিনিয়োগ ও মানব সম্পদ বিষয়ক সেমিনার

টোকিও দূতাবাসে বাণিজ্য, বিনিয়োগ ও মানব সম্পদ বিষয়ক সেমিনার
স্বাগত বক্তব্য প্রদান করছেন রাষ্ট্রদূত শাহাবুদ্দিন আহমদ।

জাপানের ইয়োকোমাহা শহরের পোর্ট মেমোরিয়াল হলে মঙ্গলবার বাংলাদেশে বাণিজ্য, বিনিয়োগ ও মানব সম্পদ উন্নয়ন বিষয়ক এক সেমিনারের আয়োজন করেছে টোকিওস্থ বাংলাদেশ দূতাবাস।

অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য বিধি মেনে শতাধিক জাপানি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি ও কর্মী প্রেরণকারী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।

জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শাহাবুদ্দিন আহমদ সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন। বাংলাদেশে বিনিয়োগের পরিবেশ ও বিনিয়োগকারীদের জন্য বিভিন্ন প্রণোদনার কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রদূত জাপানি ব্যবসায়ী ও বিনিয়োগকারীদের বাংলাদেশে তথ্যপ্রযুক্তি, পোশাক শিল্প, চামড়াসহ বিভিন্ন খাতে বিনিয়োগের আহ্বান জানান। রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশের বিভিন্ন বৃহৎ প্রকল্পে জাপানের সংশ্লিষ্টতার কথা তুলে ধরেন এবং নানাবিধ সহযোগিতার জন্য জাপান সরকারকে ধন্যবাদ প্রদান করেন।

রাষ্ট্রদূত বলেন, জনশক্তি খাতে বাংলাদেশ বিপুল সম্ভাবনাময়। সরকারের সঠিক পদক্ষেপ ও ব্যবস্থাপনায় দেশের জনসংখ্যা আজ জনসম্পদে রূপ নিয়েছে। জাপানে ক্রমহ্রাসমান জনসংখ্যার পরিপ্রেক্ষিতে সৃষ্ট জনশক্তির চাহিদা মেটাতে বাংলাদেশকে স্বল্প দক্ষ ও দক্ষ লোকবলের অন্যতম উৎস আখ্যায়িত করে, রাষ্ট্রদূত জাপানের জনশক্তি নিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানসমূহকে বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিয়োগের অনুরোধ করেন।

আরো পড়ুন : মেহেরপুরে ‘মুজিববর্ষে শত ঘণ্টা মুজিবচর্চা’ শীর্ষক সাংস্কৃতিক পক্ষের উদ্বোধন

পরবর্তী অংশে ইয়োকোমাহা সিটি অফিসের নির্বাহী পরিচালক হিরোইউকি ওকামোতো বক্তব্য প্রদান করেন। এছাড়া বাংলাদেশে জাপানি বিনিয়োগের চিত্র তুলে ধরেন জাইকার পরিচালক আকিতো তাকাহাসি, বাংলাদেশে বিনিয়োগের সুবিধা নিয়ে তথ্য উপস্থাপনা করেন দূতাবাসের বাণিজ্যিক কাউন্সেলর ড. আরিফুল হক, বাংলাদেশের মানব সম্পদ উন্নয়ন নিয়ে আলোচনা করেন দূতাবাসের শ্রম কাউন্সেলর জাকির হোসেন। এছাড়া টেকনিক্যাল ইন্টার্ন প্রোগ্রামে বাংলাদেশের দক্ষ লোকবল বিষয়ে আলোচনা করেন আই এম জাপান নামক প্রতিষ্ঠানের সিনিয়র এক্সিকিউটিভ ডাইরেক্টর কাজুও সুবোতা এবং মাচিদা হাসপাতালের চিফ ডাইরেক্টর কেইসুকে ইরাকো।

জাপান ইন্টারন্যাশনাল কোপারেশন এজেন্সি (জাইকা) ও জাপান এক্সটারনাল ট্রেড অরগানাইজেশন (জেট্রো), ইয়োকোমাহা নগর কর্তৃপক্ষ, আই এম জাপান এবং ইউনিডো-আইটিপিও টোকিও সেমিনার আয়োজনে সহযোগিতা করে।

ইত্তেফাক/ইউবি

Nogod
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত