ঢাকা সোমবার, ২২ জুলাই ২০১৯, ৭ শ্রাবণ ১৪২৬
৩২ °সে


বিজয়নগরে স্বতন্ত্র প্রার্থীর বাড়িতে হামলা, গাড়িতে আগুন

বিজয়নগরে স্বতন্ত্র প্রার্থীর বাড়িতে হামলা, গাড়িতে আগুন
বিজয়নগরে ভাংচুর করা স্বতন্ত্র প্রার্থীর গাড়ি। ছবি: ইত্তেফাক

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিজয়নগরে বিচ্ছিন্ন দু-একটি ঘটনা ছাড়া শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে। এই উপজেলার ৬৩ কেন্দ্রের সবকটিতেই ইভিএম পদ্ধতিতে ভোট গ্রহণ করা হয়। এদিকে ভোট চলাকালে একটি কেন্দ্রের ইভিএম মেশিন লুট করে নেওয়া হয়।

এছাড়া লক্ষীমুড়া এলাকায় কেন্দ্রের বাইরে নৌকা ও ঘোড়ার সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। এ ঘটনার জের ধরে স্বতন্ত্র প্রার্থী নাছিমা লুৎফর রহমানের জেলা শহরের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ভাংচুর করা হয়।

সকাল থেকে শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ শুরু হয় এখানকার সবকটি কেন্দ্রে। তবে ভোটার উপস্থিতি ছিলো কম। এক ঘন্টায় কোন কোন বুথে ২টি ভোট পড়ে মাত্র।

দুপুর ১২টার দিকে উপজেলার চান্দুরা ইউনিয়নের সাতগাঁও মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী তানভীর ভূঁইয়ার এজেন্টদের বিরুদ্ধে ইভিএম যন্ত্রাংশ লুট করে নেওয়ার অভিযোগ ওঠে। এ সময় প্রায় ২ ঘন্টা ভোট গ্রহণ বন্ধ ছিল। স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী নাছিমা মুকাই আলীর ঘোড়া প্রতীকে বেশি ভোট পড়ছে বুঝতে পেরে নৌকা প্রতীকের এজেন্টরা হঠাৎ করে আক্রমণ চালায়। এ সময় তারা কয়েকটি মনিটর লুট করে নিয়ে যায় এবং কয়েকজনকে মারধর করে।

সাতগাঁও মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা নূর মাহমুদ জানান, দুপুরে হঠাৎ করে কয়েকজন বুথে আক্রমণ করে। তারা ইভিএমের সঙ্গে সংযুক্ত একটি মনিটর ভাঙচুর করে চারটি মনিটর লুট করে নিয়ে যায়। বুধন্তি ইউনিয়নের শশই সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর লোকজন ঘোড়া প্রতীকে ভোট বেশি কাস্ট হওয়ায় দুপুর সাড়ে ১১টা থেকে প্রায় ১ ঘন্টা ভোট গ্রহণ বন্ধ রাখে।

দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে পত্তন ইউনিয়নের বড়পুকুর পাড় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে বহিরাগত নৌকার সমর্থক ও এলাকাবাসী ঘোড়ার সমর্থকদের মধ্যে মারামারি বেঁধে যায়। এ সময় পুলিশ কন্সটেবল রিপন মোদক, জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাসুম বিল্লাহ, সাবেক ভিপি হাসান সারোয়ার সহ ৭/৮ জন আহত হন। আহতরা জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা নেন। তবে ভিপি হাসান সারোয়ারকে ঢাকায় প্রেরণ করা হয় উন্নত চিকিৎসার জন্য।

দুপুর দেড়টার দিকে বুধন্তী ইউনিয়নের বুধন্তী আহলাদি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের সামনে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর ১০/১২ জন সমর্থক ফায়েজ মিয়া নামের এক যুবককে বেধড়ক পিটিয়ে রক্তাক্ত করে। সে বুধন্তী গ্রামের আব্দুল মন্নাফ মিয়ার ছেলে। এর আগে একই ইউনিয়নের শশই সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ওই গ্রামের সাবেক মেম্বার আজিজুর রহমান চমককে মারধর করে আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সমর্থকরা।

এদিক দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী নাছিমা মুকাই আলীর বাসভবনে একদল দুর্বৃত্ত হামলা চালিয়েছে। আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী তানভীর ভূইয়ার লোকজন হামলা করেছে বলে অভিযোগ করেছেন নাছিমা মুকাই আলী। দুর্বৃত্তরা ২টি প্র্যাডো জিপ, একটি করোলা প্রাইভেটকার, মোটরসাইকেল ভাংচুর করে। এ সময় তারা পুলিশের একটি মটর সাইকেলেও অগ্নিসংযোগ করে। এছাড়া ২টি মোটর সাইকেল লুট করে নিয়ে যায়।

স্থানীয়রা জানায়, দুপুর প্রায় সোয়া দুইটার দিকে বিজয়নগর উপজেলা স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী নাছিমা মুকাই আলী শহরের হালদারপাড়াস্থ প্রার্থীর স্বামীর লুৎফুর রহমান টাওয়ারে ৫০/৬০জন অস্ত্রধারী একদল দুর্বৃত্ত হামলা চালায়। দুর্বৃত্তরা বাস ভবনের ফটক ভেঙ্গে প্রার্থীর অফিস কক্ষ, জেনারেটর কক্ষ, অভ্যর্থনা কক্ষ, প্রহরীর ২টি কক্ষসহ নিচতলার ৫টি কক্ষ ভাংচুর করে দোতলায়ও ব্যাপক ভাচুর চালায়। এ সময় বাড়ির বিভিন্ন আসবাবপত্রও ভাংচুর করা হয়। পরে তারা বাসভবনের আন্ডার গ্রাউন্ডে পার্কির এলাকায় প্রার্থীর ব্যবহৃত ল্যান্ড ক্রুজার (ঢাকা মেট্রো-ঘ-১৫-৭৪৩৪) জিপ, পাজেরো (ঢাকা-মেট্রো-ঘ-১১-৮৭৯৪) জিপ, টয়োটা সেলুন (ঢাকা-মেট্রো-ভ-১১-২০৩৩) প্রাইভেটকার, এই বাড়ি ভাড়াটিয়া দৈনিক আজকালের খবরের জেলা প্রতিনিধি মোজাম্মেল চৌধুরীর মোটর সাইকেল (ঢাকা-মেট্রো-হ-২৭-৮৭৭০) ভাংচুর করে।

এরপর তারা বাড়ির সামনে রাখা বাড়ির ভাড়াটিয়া নবীনগর থানার এসআই জাহাঙ্গীর আলমের মোটরসাইকেল (পুলিশ-কক্সবাজার-ল-১১-২৯৯২) রাস্তায় এনে আগুন ধরিয়ে দেয়। তাছাড়া ২টি মোটরসাইকেল লুট করে নিয়ে যায় দুর্বৃত্তরা। এ সময় বাড়ির দারোয়ান আহত হয়।

দুর্বৃত্তদের তাণ্ডবে পুরো এলাকায় মুহূর্তের মধ্যে তীব্র আতংক ছড়িয়ে পড়ে। পাশের রাস্তা দিয়ে সাধারণ মানুষের চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। খবর পেয়ে সদর থানা পুলিশ, ডিবি পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে। পরে ফায়ার সার্ভিসের লোকজন এসে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৩টি রামদা, ২টি চাপাতিসহ বিভিন্ন অস্ত্র উদ্ধার করে।

নাছিমা মুকাই আলী অভিযোগ করে বলেন, ‘তানভীর ভূইয়ার লোকজন আমার বাড়িতে হামলা চালিয়েছে। আমার গাড়ি ভাংচুর করেছে। আমার ঘরে হামলা করে স্বর্ণালংকার ও নগদ টাকা লুটে নিয়েছে। আশপাশের লোকজন সবকিছু ভিডিও করে রেখেছে। এ ঘটনার পর ওই আবাসিক এলাকায় আতংক ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় পুলিশ এ হামলায় জড়িত সন্দেহে জেলা সৈনিক লীগের আহবায়ক ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা জহিরুল ইসলাম জুম্মান, মেহেদী হাসান, মারুফ মিয়া, আরমান, ইয়াছিন আরাফাতকে আটক করে।

আরও পড়ুন: কামারখন্দে মারপিটের দুটি ঘটনা ছাড়া ভোট সুষ্ঠু

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোঃ সেলিম বলেন, ‘খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে এসেছি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।’

ইত্তেফাক/নূহু

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২২ জুলাই, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন