ঢাকা বুধবার, ২৬ জুন ২০১৯, ১২ আষাঢ় ১৪২৬
৩২ °সে


কুমিল্লা টাউন হল মাঠে বিজয়ের পতাকা ওড়ে এইদিনে

কুমিল্লা টাউন হল মাঠে বিজয়ের পতাকা ওড়ে এইদিনে
ফাইল ছবি

১৯৭১ সালের ডিসেম্বরে ভারত সীমান্তবর্তী কুমিল্লা জেলার বিভিন্ন এলাকা ক্রমেই হানাদার মুক্ত হতে থাকে। ক্রমেই মুক্তিবাহিনী, মিত্রবাহিনী ও জাগ্রত জনতা মেতে ওঠে বিজয়ের উল্লাসে। ১৯৭১ সালের ৮ ডিসেম্বর কুমিল্লা টাউন হল মাঠে বিজয়ের প্রথম পতাকা ওড়ানো হয়।

মুক্তিযুদ্ধের নানা স্মৃতিচারণ করে কৃষক লীগের কেন্দ্রীয় সহ-সভাপতি ও কুমিল্লা জেলা পরিষদের সাবেক প্রশাসক বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. ওমর ফারুক বলেন, ১৯৭১ সালের ৭ ডিসেম্বর রাতে কুমিল্লা বিমানবন্দরে হানাদার বাহিনীর ২২ বেলুচ রেজিমেন্টের ঘাঁটিতে তিনদিক থেকে মুক্তিযোদ্ধা ও মিত্রবাহিনী আক্রমণ শুরু করে। মিত্রবাহিনীর ১১ গুর্খা রেজিমেন্টের আর কে মজুমদারের নেতৃত্বে কুমিল্লা বিমানবন্দরে পাক সেনাদের ঘাঁটিতে আক্রমণ চালানো হয়। হানাদার বাহিনীর অবস্থানের ওপর মুক্তিসেনারা মর্টার আর্টিলারি আক্রমণ চালিয়ে শেষ রাতের দিকে তাদের আত্মসমর্পণ করাতে সক্ষম হয়। পাকসেনাদের সঙ্গে সম্মুখযুদ্ধে বিমানবন্দরের প্রধান ঘাঁটি পতনের মধ্য দিয়ে ৮ ডিসেম্বর কুমিল্লা হানাদার মুক্ত হয়।

তিনি আরো বলেন, সেদিন বিজয়ের আনন্দে উল্লসিত হাজার হাজার মুক্তিপাগল জনতা রাস্তায় দাঁড়িয়ে আমাদেরকে ফুলের মালা, কেউবা টাকার মালা পড়িয়ে জড়িয়ে ধরে বিপুলভাবে অভিনন্দন জানিয়েছিল। এ সময় মুক্তিযোদ্ধাসহ সকল শ্রেণিপেশার মানুষের বিজয়ের উল্লাসে ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’ স্লোগানে কুমিল্লার আকাশ-বাতাস মুখরিত হয়ে ওঠে।

কুমিল্লা জেলা প্রশাসক মো. আবুল ফজল মীর বলেন, একাত্তরে হানাদার বাহিনীর হাতে শহীদ হয়েছেন আমার পূর্বসূরি তত্কালীন জেলা প্রশাসক এ কে এম সামসুল হক খান সিএসপি এবং জেলার পুলিশ সুপার কবির উদ্দিন আহমদ। এটা আমাদের সিভিল প্রশাসনের জন্য এক অম্লান গৌরবের ঘটনা। বিজয় দিবস উদযাপন করতে আমরা বিভিন্ন ধরনের কর্মসূচি গ্রহণ করেছি।

ইত্তেফাক/আরকেজি

এই পাতার আরো খবর -
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
facebook-recent-activity
prayer-time
২৬ জুন, ২০১৯
আর্কাইভ
বেটা
ভার্সন