রোববার, ২৯ জানুয়ারি ২০২৩, ১৪ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

বিজয় দিবসে ফুল দেওয়া নিয়ে আওয়ামী লীগের দুপক্ষের সংঘর্ষ

আপডেট : ১৬ ডিসেম্বর ২০২১, ২০:৩২

বিজয় দিবসে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে ফুল দেওয়া নিয়ে কিশোরগঞ্জের পাকুন্দিয়ায় আওয়ামী লীগের দুপক্ষের মধ্যে সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন আহত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবার (১৬ ডিসেম্বর) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলা পরিষদ গেটের সামনে এ ঘটনা ঘটে। ঘটনার পর উপজেলার  মরুরা এলাকায় একটি বাসে আগুন দেওয়া হয়।

বিজয় দিবস উপলক্ষে বৃহস্পতিবার সকালে উপজেলা পরিষদ চত্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন কিশোরগঞ্জ-২ আসনের সংসদ সদস্য নূর মোহাম্মদ। পরে তিনি পাকুন্দিয়া সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত কুচকাওয়াজে অংশ নেন। এদিকে সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলা আওয়ামী লীগের আহ্বায়ক সাবেক সংসদ সদস্য অ্যাডভোকেট মো. সোহরাব উদ্দিন দলীয় নেতাকর্মীদের নিয়ে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিতে যান। এ সময় সাংসদ নূর মোহাম্মদ সমর্থিত নেতাকর্মীরা তাদের বাধা দেয়। এ নিয়ে উভয় পক্ষ সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এতে  উভয়পক্ষের অন্তত ২০ জন আহত হন। এর কিছুক্ষণ পর মরুরা এলাকায় একটি বাসে কে বা কারা অগ্নিসংযোগ করে। 

পুড়িয়ে দেওয়া বাস

জেলা শ্রমিক লীগের উপদেষ্টা আতাউল্লাহ সিদ্দিক মাসুদ জানান,  সোহরাব উদ্দিনের লোকজন নূর মোহাম্মদ সমর্থিত ছাত্রলীগ নেতা সাকিবুল হাসান মুন্নার বাবা বীর মুক্তিযোদ্ধা মকছুদ মিয়াকে মারধর করেন। এতে দলীয় নেতাকর্মীরা প্রতিবাদ করলে উভয়পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।    

উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-আহ্বায়ক মো. ফরিদ উদ্দিন জানান,  মো. সোহরাব উদ্দিনের নেতৃত্বে আমরা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিতে গেলে তারা আমাদের বাধা দেন। এ সময় উভয়পক্ষের মধ্যে পাল্টাপাল্টি ধাওয়ার ঘটনা ঘটে। এতে আমাদের কয়েকজন জন নেতাকর্মী আহত হন। 

এ ব্যাপারে পাকুন্দিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো.সারোয়ার জাহান জানান, জনগণের জানমালের নিরাপত্তায় কাঁদানে গ্যাস ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ। বর্তমান পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

 

ইত্তেফাক/ইউবি