রোববার, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২২ মাঘ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি প্রক্রিয়ায় অনন্য নজির

আপডেট : ১৮ ডিসেম্বর ২০২১, ১৩:৪৬

গুচ্ছভুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর ভর্তিতে এক অনন্য নজির স্থাপন করেছে বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়। খুব অল্প সময়ে এবং দ্রুততার সাথে ভর্তি আবেদনকারী শিক্ষার্থীদের ফলাফল ঘোষণা করেছে বিশ্ববিদ্যালয়টি। মাত্র ৭ দিনের মধ্যে প্রায় ৪০ হাজার শিক্ষার্থীর মেধা তালিকা প্রকাশ করা হয়েছে। তাছাড়া মেধা তালিকার সাথে সাবজেক্টও নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে, যেখানে গুচ্ছের অনেক বিশ্ববিদ্যালয় শুধু মেধাক্রম প্রকাশ করে।

সর্বোচ্চ মেধা মূল্যায়নে জিপিএ'র উপর কোনো নম্বর রাখেনি বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়। গুচ্ছের ভর্তি পরীক্ষার নম্বরের উপর ভিত্তি করেই মেধা মূল্যায়ন ও ভর্তি নেওয়া হচ্ছে।

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তির টেকনিক্যাল কমিটির আহ্বায়ক রাহাত হুসাইন ফয়সাল বলেন, শিক্ষার্থীদের মেরিট পজিশনের সাথে সাবজেক্ট নির্ধারণ করে দেওয়া হয়েছে যাতে শিক্ষার্থীরা বুঝতে পারে তার পছন্দের বিষয়ে ভর্তি হতে পারবে কি না। তাদের মনে যে সংকোচ থাকবে, সেটি দূর করতে আমাদের এই স্বচ্ছতা। তাছাড়া আমরা ভর্তি পরীক্ষার নম্বরের ভিত্তিতে মেধা মূল্যায়ন করেই ভর্তি নিচ্ছি। বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোঃ ছাদেকুল আরেফিনের নির্দেশনায় এগুলো বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়েছে।

সিরাজগঞ্জ সরকারি কলেজের ভর্তির আবেদনকারী শিক্ষার্থী শাহারিয়া আলম জানান, মেরিট পজিশনের সাথে সাবজেক্ট নির্ধারণ করে দেওয়া আমাদের জন্যে ভালো। কারণ আমরা বুঝতে পারছি আমাদের পছন্দের সাবজেক্ট এসেছে কিনা। সেক্ষেত্রে আমরা একাধিক বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি না হয়ে পছন্দের সাবজেক্টে ভর্তি হতে পারছি। এতে আমাদের সময় ও অর্থ বেঁচে যাবে। তাছাড়া জিপিএ'র উপর মার্ক না রেখে ভর্তি নেওয়াটা যৌক্তিক। কারণ আমরা উচ্চমাধ্যমিকে যে প্রক্রিয়ায় পাশ করেছি তা দিয়ে মেধার মূল্যায়ন করা সম্ভব না।

উল্লেখ্য, গত ৬ ডিসেম্বর বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তির আবেদনকারী শিক্ষার্থীদের ফলাফল ঘোষণা করা হয়। মোট ১৪৪০টি আসনের বিপরীতে আবেদন পড়েছিলো ৩৫ হাজার ৭৯২ জন। যেখানে ক ইউনিটে প্রতি সিটের জন্যে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন ২৯ জন, খ ইউনিটে ২৪ জন ও গ ইউনিটে ১৯ জন।

ইত্তেফাক/এসটিএম