বুধবার, ২৫ মে ২০২২, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯
দৈনিক ইত্তেফাক

শিক্ষাব্যবস্থার সহায়ক শান্ত’র ‘স্কুল অব থট’ 

আপডেট : ০৫ জানুয়ারি ২০২২, ১৬:৫০

শিক্ষা মানুষকে বন্যজীবন থেকে সভ্যতার আলোতে নিয়ে এসেছে এবং শিক্ষাই মানুষকে প্রকৃত মানুষ হিসেবে তৈরি করে। তবে শুধুমাত্র প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষাজীবন শেষ করলেই প্রকৃত শিক্ষিত হওয়া যায় না। 

অপ্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষারও প্রয়োজন রয়েছে। তাই প্রাতিষ্ঠানিকের পাশাপাশি অপ্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার প্রসারে রাষ্ট্রকে সহায়তা করতে চান শান্ত। এ লক্ষ্যে তিনি গড়ে তুলেছেন ‘স্কুল অব থট’ নামে একটি শিক্ষাভিত্তিক প্ল্যাটফর্ম। এর মাধ্যমে দেশের সকল পর্যায়ের মানুষের চিন্তা তুলে ধরতে চান শান্ত। তার পুরো নাম ফয়সাল মাহমুদ শান্ত। পড়েছেন জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগে। গ্রামের বাড়ি বরগুনা জেলার সদর উপজেলায়। 

তিনি জাহাঙ্গীরনগর ইউনিভার্সিটি ডিবেট অর্গানাইজেশনের (জেইউডিও) সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক, ইয়ুথ ফর সোশ্যাল এইডের সাধারণ সম্পাদক এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের ফিলোসোফি ডিবেটিং ক্লাবের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেছেন। ২০২০ সালে ‘স্কুল অব থট’ গড়ে তোলেন। শুরু থেকেই এর উদ্দেশ্য— টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার (এসডিজিএস) চার ও ১০ নম্বর লক্ষ্যের সাপেক্ষে সকলের জন্য মানসম্পন্ন শিক্ষা নিশ্চিত করার পাশাপাশি বৈষম্য হ্রাস করা। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ৩০ জন ক্যাম্পাস সমন্বয়কারী নিয়োগ দিয়ে ‘টিম-স্কুল অব থট’ প্রতিষ্ঠার পর প্ল্যাটফর্মটি একাধিক শিক্ষামূলক অনুষ্ঠান ও প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে। 

এসবের মধ্যে করোনা মহামারিতে শিক্ষার চেতনা সবার মধ্যে ছড়িয়ে দেওয়ার জন্য ‘মিটিং অফ মাইন্ডস’ নামে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। যেখানে অর্থনীতি ও বিশ্ব যুদ্ধের ইতিহাস ও তার প্রভাব এবং নৈতিকতা নিয়ে অলোচনা করা হয়। এছাড়া যেকোনো বয়সের মানুষের চিন্তাভাবনা জাতির সামনে তুলে ধরতে প্ল্যাটফর্মটি ‘ন্যাশনাল থট কম্পিটিশন’ নামে একটি চিন্তাভিত্তিক প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। যেখানে কেউ প্রবন্ধ লেখা, ভিডিও তৈরি ও চিত্রাঙ্কনের মাধ্যমে নিজের চিন্তাভাবনা প্রকাশ করতে পারে। এ প্রতিযোগিতায় অভিজ্ঞ ও সুপরিচিত বিচারকদের সাথে দেশের পাঁচ শতাধিক নতুন চিন্তাবিদ জড়ো হয়েছিল।

অন্যদিকে ‘স্কুল অব থট’ একটি সামাজিক চিন্তাভিত্তিক প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। যেখানে অংশগ্রহণকারীদের কাজ ছিল একটি সামাজিক সমস্যা অধ্যয়ন করা এবং প্রদত্ত বিষয়ে তাদের দৃষ্টিভঙ্গি উপস্থাপন করা। ‘স্কুল অব থট’-এ দেশের ১৪০ জন শিক্ষাবিদ যুক্ত হয়েছেন। এছাড়া ইভেন্ট ও নিয়মিত কার্যক্রমের মাধ্যমে দেশের এক হাজার সাতশত শিক্ষার্থী যুক্ত আছেন। 

এ পর্যন্ত প্ল্যাটফর্মটি দর্শন, রাজনীতি, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক, মনোবিজ্ঞান ও অর্থনীতিসহ নানা বিষয়ে প্রায় একশত বিশ্লেষণমূলক নিবন্ধ প্রকাশ করেছে। এ প্ল্যাটফর্মে কাজ করে দুজন শিক্ষার্থী বিদেশে উচ্চশিক্ষার সুযোগ পেয়েছেন।

শান্ত বলেন, ‘প্ল্যাটফর্মটির মাধ্যমে প্রাতিষ্ঠানিক ও অপ্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার প্রসারে রাষ্ট্রকে সহযোগিতা করতে চাই। আমরা সকল পর্যায়ের মানুষের চিন্তা নিয়ে কাজ করতে চাই।’ 

ইত্তেফাক/এএএম

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

ব্রিটেনের রানির পুরস্কার পেলেন বিদ্যানন্দের কিশোর

মেডিকেলে ৫০তম ইভা, ডেন্টালেও প্রথম

নাদিয়ার সাহসী উদ্যোগ

বাকৃবিতে ‘আলোকসরণির’ ভিন্নধর্মী কার্যক্রম

এ সম্পর্কিত আরও পড়ুন

হাত রাঙানোই নুসরাতের স্বপ্নের পেশা

সেই সব বইপ্রেমীদের গল্প

ককপিটের গল্প শোনান ক্যাপ্টেন আব্দুল্লাহ

দ্রুততম বীজ-অঙ্কুরোদগম পদ্ধতি আবিষ্কার করলেন দুই কলেজছাত্র