মঙ্গলবার, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ১৪ ফাল্গুন ১৪৩০
দৈনিক ইত্তেফাক

বশেমুরবিপ্রবি: দাবি না মানলে কঠোর আন্দোলনের হুঁশিয়ারি

আপডেট : ০৬ মার্চ ২০২২, ০৪:১২

শিক্ষার্থীকে ধর্ষণের প্রতিবাদে গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (বশেমুরবিপ্রবি) শিক্ষার্থীদের চার দফা দাবি পূরণ না হলে আরও কঠোর আন্দোলনের হুশিয়ারি দিয়েছে শিক্ষার্থীরা। প্রথম দফা পূরণে আশ্বস্ত হলেও বাকি তিন দফা আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে বলে তারা জানিয়েছে।

মঙ্গলবার (১ মার্চ) সকাল সাড়ে ১০টায় আন্দোলনের ষষ্ঠ দিনে এসে শিক্ষার্থীরা সংবাদ সম্মেলন করে এসব কথা জানায়।

এ সময় আন্দোলনকারী শিক্ষার্থী আব্দুল্লাহ আল-রাজ বলেন, ‘আমাদের প্রথম দাবি ছিল অভিযুক্তদের আটক করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেওয়া। যেহেতু অভিযুক্তদের আটক করে বিচারিক প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে সেহেতু আমরা প্রথম দাবি পূরণে আশ্বস্ত হয়েছি। এখন ধর্ষণবিরোধী আন্দোলনে হামলাকারীদের বিচার, প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ এবং শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার বিষয়টি নিশ্চিত হলে আমরা আন্দোলন থেকে সরে যাব। আমরা আগামী ৩ মার্চ পর্যন্ত দেখবো, এর মধ্যে এই তিন দফা পূরণ না হলে কঠোর আন্দোলনে নামতে বাধ্য হব।’

এদিন সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষার্থীরা আরও বলেন, ‘আন্দোলনের অংশ হিসেবে শিক্ষার্থীরা বেলা ১২টায় ‘দিয়েছিতো রক্ত আরও দেবো রক্ত, রক্তের বন্যায় ভেসে যাবে অন্যায়’ স্লোগানে রক্তদান কর্মসূচি পালন করবেন। বিকাল ৪টায় শিক্ষার্থীদের পক্ষ থেকে ধর্ষণবিরোধী কনসার্ট করা হবে। এ ছাড়া সন্ধ্যা ৭টায় থাকবে আলোর মিছিল।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. একিউএম মাহবুব জানিয়েছেন, ধর্ষণবিরোধী আন্দোলনে হামলাকারীদের বিষয়ে মামলা করার প্রস্তুতি চলছে এবং প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপের জন্য কথা বলা হচ্ছে। তাছাড়া শিক্ষার্থীদের নিরাপত্তার বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সর্বোচ্চ চেষ্টা করে যাচ্ছে।

গত ২৩ ফেব্রুয়ারি (বুধবার) রাত সাড়ে ৯টার পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রী সংঘবদ্ধ ধর্ষণের শিকার হন। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মো. রাজিউর রহমান বাদী হয়ে গোপালগঞ্জ সদর থানায় মামলা করেন। এ পর্যন্ত ধর্ষণ মামলায় আটককৃত ছয় আসামিকে আদালতের মাধ্যমে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি নিয়ে ২৭ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যায় কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা টানা ছয়দিন ধরে আন্দোলন করছেন।

ইত্তেফাক/এসজেড