শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ১ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

ফিলিপাইন ও জাপানের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে বসছেন বাইডেন

আপডেট : ১৯ মার্চ ২০২৪, ১৬:৫২

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন প্রথম ত্রিপক্ষীয় শীর্ষ সম্মেলনে ফিলিপাইন ও জাপানের নেতৃবৃন্দের সঙ্গে বৈঠক করবেন। হোয়াইট হাউজ সোমবার এ কথা জানিয়েছে।

চীনের বিরুদ্ধে এশিয়া প্রশান্ত-মহাসাগরীয় জোট আরো জোরদার করার চেষ্টার প্রেক্ষাপটে বাইডেন আগামী ১১ এপ্রিল হোয়াইট হাউজে ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট ফার্দিনান্দ ম্যার্কোস ও জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদ্রা সঙ্গে বৈঠকে বসতে যাচ্ছেন।

হোয়াইট হাউজের প্রেস সেক্রেটারি কারিন জ্যাঁ পিয়েরে বলেছেন, এসব নেতা গভীর ঐতিহাসিক বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্কের ভিত্তিতে তৈরি ত্র্রিপক্ষীয় অংশীদারিত্বকে আরও এগিয়ে নিয়ে যাবেন।

চীনের ক্রমবর্ধমান শক্তি আরও জোরদার বিশেষকরে দক্ষিণ চীন সাগরে দেশটির সার্বভৌমত্বের দাবির প্রেক্ষিতে যুক্তরাষ্ট্র বারবার ‘মুক্ত’ এশিয় প্রশান্ত-মহাসাগরীয় অঞ্চলের দাবি জানিয়ে আসছে। বিশেষ করে প্রবাল প্রাচীরের কাছে ফিলিপাইন ও বেইজিংয়ের জাহাজের মধ্যে সংঘর্ষের কারণে এ অঞ্চলে উত্তেজনা আরও তীব্র হয়ে উঠেছে।

এদিকে হোয়াইট হাউজ বলেছে, ত্রিপক্ষীয় সম্মেলনের পর বাইডেন মার্কোসের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় বৈঠক করবেন।

জ্যাঁ পিয়েরে বলেছেন, বাইডেন যুক্তরাষ্ট্র ও ফিলিপাইনের মধ্যে ইস্পাত কঠিন সম্পর্ক পুনরায় নিশ্চিত করতে চান।

জাপান দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধকালে ফিলিপাইনে হামলা চালিয়ে তা দখলে নেয়। কিন্তু বর্তমানে বাণিজ্য ও বিনিয়োগসহ নানা খাতে দু’দেশের মধ্যে ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক বজায় রয়েছে।

এদিকে দু’টি দেশই যুক্তরাষ্ট্রের ঘনিষ্ঠ মিত্র। চীন ও উত্তর কোরিয়াকে মোকাবিলায় বাইডেন অগ্রাধিকার ভিত্তিতে এই দু’দেশের সঙ্গে সম্পর্ক আরও জোরদার করতে চান।

অন্যদিকে বিশ্বের দুই শক্তিধর দেশ যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে চলা উত্তেজনা কমাতে গত বছরের নভেম্বরে ক্যালিফোর্ণিয়ায় বাইডেন চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে বৈঠক করেছিলেন। কিন্তু সামরিক থেকে সামরিক খাতে যোগাযোগ পুনঃপ্রতিষ্ঠাসহ নানা পদক্ষেপ নেওয়া হলেও ওয়াশিংটন ও বেইজিংয়ের  সম্পর্কে এখনও টানাপোড়েনেই আটকে আছে।

 

ইত্তেফাক/এসএটি