সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১
The Daily Ittefaq

অলস্টারস ড্যাফোডিল এলামনাস সোসাইটির ইফতার ও মিলনমেলা

আপডেট : ২৭ মার্চ ২০২৪, ১৬:০০

ইফতার পর্ব তখন শেষ। কেউ বাইরের খোলা জায়গায় দাঁড়িয়ে আড্ডা দিচ্ছে, কেউ গল্প করছে। আবার কেউ কেউ এই ফাঁকে মাগরিবের নামাজ আদায় করে নিচ্ছে। নামাজ শেষে কিছুক্ষণ পর অলস্টারস ড্যাফোডিলের সাবেক সভাপতি মেরাজ আহমেদ ভাই সবাইকে ভেতরে বসতে বললেন। মুহুর্তের মধ্যেই একে একে সবাই যে যার মতো জায়গা বেছে নিয়ে বসে পড়ল। হঠাৎ একজন দাঁড়িয়ে বলল, আমরা যখন নাটকের রিহার্সাল করতাম, খিদে লাগলেই রনি ভাই বারবার কলা-রুটি খাওয়াতেন। মুহূর্তেই হাসির রোল পড়ে গেল অনুষ্ঠান স্থলে। পরক্ষণেই আরেকজন বললেন, আমাদের সময় খাওয়া হতো পান্তা ভাত।

মঙ্গলবার (২৬ মার্চ) সন্ধ্যায় রাজধানীর ধানমন্ডি-২৭ নম্বর সড়কের বেঙ্গল বই প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হয় অলস্টারস ড্যাফোডিল এলামনাস সোসাইটির ইফতার ও মিলনমেলা। সেখানে এভাবেই স্মৃতিচারণায় মেতে ওঠেন সবাই। কেউ এসেছেন দুই বছর পর, কেউবা পাঁচ বছর পর। কেউবা আরও বেশি সময় পর প্রিয় সহনাট্যকর্মীর সঙ্গে খোশগল্পে হারিয়ে যান পুরোনো দিনের কোনো সুন্দর মুহুর্তে।

২০১০ সালে সংগঠনটি যখন প্রতিষ্ঠিত হয়, সেসময়ের সদস্যরা যেমন এসেছেন, তেমনই উপস্থিত ছিলেন বর্তমান সদস্যরাও। কেউ কেউ এসেছেন স্ত্রী-সন্তান নিয়েও। এক পরিবারের সঙ্গে আরেক পরিবারের বন্ধন। এ যেন বার্তা দেওয়া—কাজের সূত্রে একে অপর থেকে দূরে গেলেও ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে কখনো দূরত্ব সৃষ্টি হয়নি; চাইলেই এক হওয়া সম্ভব।

অলস্টারস ড্যাফোডিল হলো ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির থিয়েটার ক্লাব। ২০২২ সালে গঠন করা হয় অলস্টারস ড্যাফোডিল এলামনাস সোসাইটি। মূলত প্রতিষ্ঠার শুরু থেকে এখন পর্যন্ত ক্লাবটিতে কাজ করা নাট্যকর্মীদের আবারও একত্রিত করার লক্ষ্যে ফেসবুকের মাধ্যমে এলামনাস সোসাইটির যাত্রা হয়। মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত ইফতার ও মিলনমেলা তারই প্রয়াস। এদিন ইফতারে থিয়েটার ক্লাবটির শতাধিক সদস্য দূর-দূরান্ত থেকে ছুটে আসেন প্রাণের টানে।

পুরনো দিনের স্মৃতিচারণ করে বক্তব্য দেন অলস্টারস ড্যাফোডিলের সাবেক কনভেনর ও ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির এসিস্ট্যান্ট প্রফেসর এজাজুর রহমান সজল, অলস্টারস ড্যাফোডিলের উপদেষ্টা হাসানুল হুমায়ুন রনি, প্রতিষ্ঠাকালীন সদস্য আলফেসানী শুভ, সাবেক সভাপতি আবদুল্লাহ আল মারুফ অর্ন, ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির স্টুডেন্ট অ্যাফেয়ার্সের কাওসার হামিদসহ সংগঠনটির সাবেক সভাপতি ও সদস্যরা।

আয়োজনটি সফল করতে যারা পেছন থেকে কাজ করেছেন, তাদের অন্যতম সাবেক সভাপতি মেরাজ আহমেদ। সবাইকে আবারও এক ছাদের নিচে নিয়ে আসার লক্ষ্যে এই উদ্যোগ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘সংগঠনটির শুরু থেকে যারা ছিলেন, তাদের সবাইকে একত্রিত করে আগামী দিনে যেকোনো ধরনের সামাজিক কিংবা জাতীয় কর্মকান্ডের সঙ্গে যুক্ত হয়ে সাধারণ মানুষের জন্য কাজ করতে চাই। একইসঙ্গে নিজেদের এবং ভবিষ্যতে যারা এই সংগঠনটিতে কাজ করবে, তাদের পাশে থেকে পরিবারটির সদস্যদের মধ্যে ভ্রাতৃত্বের বন্ধন আরও মজবুত করাই উদ্দেশ্য।’

ইত্তেফাক/এআই