বাকিবিতণ্ডা থেকে রণক্ষেত্র, আপন দুই ভাইকে গলাকেটে হত্যা

বাকিবিতণ্ডা থেকে রণক্ষেত্র, আপন দুই ভাইকে গলাকেটে হত্যা
ছবি: গুগল ম্যাপ থেকে।

কুষ্টিয়ার কুমারখালীর উপজেলার চাপড়া ইউনিয়ের পাহাড়পুর গ্রামে বিবদমান দুই গ্রুপের সংঘর্ষে আপন দুইভাই দুইজন নিহত হয়েছেন। এঘটনায় আরো ৮/১০ ব্যক্তি আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার রাত পৌনে ৮ টারদিকে এ সংঘর্ষ ও হতাহাতের এ ঘটনাটি ঘটে।

নিহত সহোদর হলেন- বকুল (৫০) ও নেহেদ (৬০)। তারা পাড়াহাপুর এলাকার চাঁদ আলী ছেলে।

পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্র জানায়, চাপড়া ইউপি আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক ও একই ইউনিনের ৬ নং ওয়ার্ড আওয়ামী সাবেক সভাপতি ফিরোজ আহম্মেদ কটা’র সমর্থকদের মধ্যে ক্রিকেট খেলা সংক্রান্ত পূর্ব বিরোধের জের ধরে সংঘর্ষের সূত্রপাত ঘটে। রাতের বেলায় ওই দুই গ্রুপের সমর্থকদের মধ্যে বাক-বিতন্ডিতা এক পর্যায়ে তুমুল সংঘর্ষে রূপ নেয়। সংঘর্ষ চলাকালে দুপক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র ও লাঠি-সোঠা নিয়ে একে অপরের ওপর আক্রমন চালায়। সংঘর্ষে আপন দুই ভাই বকুল ও নেহেদ ঘটনাস্থলেই নিহত হন। এদের দুজনকে গলা কেটে হত্যা করা হয় বলে এলাকাবাসী জানায়।

আরও পড়ুন: সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী ধর্ষণের শিকার, ঘরজামাই ধর্ষক গ্রেফতার

ঘটনায় আরো ৮/১০ জন গুরুতর আহত হন। সংঘর্ষ চালাকালে পুরো গ্রাম জুড়ে আতংক ছড়িয়ে পড়ে এবং গ্রামের মানুষ ভয়ে এদিক-ওদিক ছুটাছুটি করতে থাকে। আহতদের কুষ্টিয়া ২৫০ বেড জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়ে অতিরিক্ত পুলিশ ও র্যাব ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। পুনরায় সংঘর্ষের আশংকায় এলাকায় ব্যাপক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। পুলিশ অভিযান চালিয়ে চাপড়া ইউপি আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক ও ওয়ার্ড আওয়ামী সাবেক সভাপতি ফিরোজ আহম্মেদ কটাসহ তাদের ১০/১২ জন সমর্থককে আটক করেছে। বর্তমানে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। এরেিপার্ট লেখা পর্যন্ত পুলিশি অভিযান চলছিল।

কুষ্টিয়ার এসপি এসএম তানভীর আরাফাত জানান, এ ঘটনায় জড়িতদের কেউ রেহাই পাবে না।

ইত্তেফাক/এসি

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত