সুন্দরগঞ্জে বিসিজি টিকা নেওয়ার পর পরই শিশুর মৃত্যুর অভিযোগ

সুন্দরগঞ্জে বিসিজি টিকা নেওয়ার পর পরই শিশুর মৃত্যুর অভিযোগ
সুন্দরগঞ্জে বিসিজি টিকা নেওয়ার পর পরই শিশুর মৃত্যুর অভিযোগ।ছবি: গুগুল ম্যাপ থেকে

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় মহাসিনা আকতার নামে ২২ দিন বয়সের এক শিশুকে বিসিজি টিকাসহ অন্য আরও একটি টিকাদানের পর মঙ্গলবার বিকালে তার মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

উপজেলার বামনডাঙ্গা ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কল্যাণ কেন্দ্রে মঙ্গলবার দুপুরে শিশুটিকে এই টিকা দেওয়া হয়। মহসিন ওই ইউনিয়নের জামাল গ্রামের আব্দুর রহিম মিয়ার ছেলে।

শিশু মহসিনের বাবা আব্দুর রহিম জানান, গত ২২ দিন আগে সিজারের মাধ্যমে এই শিশুটির জম্ম হয়। এই কারণে শিশুর ‘মা’ অসুস্থ থাকায় তার দাদী মহাসিনাকে টিকাদান কেন্দ্রে টিকা নিয়ে যান। সেখানে ওই সময় কর্তব্যরত ইউনিয়ন স্বাস্থ্য সহকারী লুচি বেগম শিশুর শরীরে বিসিজি টিকাসহ আরও একটি টিকা দেয়।

তিনি আরও জানান, পরে ঘুমন্ত অবস্থায় শিশু মহাসিনাকে বাড়িতে নিয়ে এসে বিছানায় শুয়ে দেয় তার দাদি। এরপর শিশু মহাসিনার মা তাকে দুধ খাওয়ানোর জন্য বিছানায় গিয়ে দেখতে পান তার সন্তান মারা গেছে। এবং তার নাক মুখ দিয়ে রক্ত বের হচ্ছে। তিনি বলেন, শিশুটির দাদি টিকাদান কেন্দ্র থেকে বাড়িতে আসতে সময় লেগেছে মাত্র ১০ থেকে ১২ মিনিট।

আরও পড়ুন: হাজীগঞ্জে পানিতে ডুবে প্রাণ গেল দুই শিশুর

শিশু মহাসিনারে বাবা আব্দুর রহিম মিয়া তদন্ত সাপেক্ষে এই ঘটনার বিচারের দাবি জানান। ইউনিয়ন স্বাস্থ্য সহকারী লুচি বেগম জানান, টিকা দেওয়ার কারণে শিশুর মৃত্যু হওয়ার কথা নয়।

বামনডাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল হুদা জানান, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে জানা গেছে টিকা নেওয়ার ১৫ মিনিটের মধ্যে শিশুটি মারা গেছে। তিনি বলেন, টিকা না অন্য কারণে মারা গেল তা তদন্ত করা প্রয়োজন।

সুন্দরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার আশরাফুজ্জামান সরকার জানান, টিকা নেওয়ার কারণে শিশুর মৃত্যু হতে পারে না। টিকার মেয়াদসহ টিকা প্রয়োগে কোন প্রকার ঘাটতি ছিল না। বিসিজি টিকা প্রয়োগে শিশুর মৃত্যু হয় এমন কোন তথ্য তার জানা নেই। কি কারণে শিশুটির মৃত্যু হয়েছে তা তদন্ত করা হবে।

সুন্দরগঞ্জ থানা ওসি আব্দুল্লাহিল জামান জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে শিশুর মরদেহের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করেছে। বিষয়টি পুলিশ তদন্ত করছে।

ইত্তেফাক/এএএম

  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত