মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে নবজাতককে রেখে চলে গেলেন মা

মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে নবজাতককে রেখে চলে গেলেন মা
মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে নবজাতককে রেখে চলে গেলেন মা। ছবি: গুগুল ম্যাপ থেকে

ময়মনসিংহ জেলা জজ আদালতের নিম্নমান সহকারী কাম কম্পিউটার মুদ্রাক্ষরিক বেগম কামরুন নাহার (২৪) প্রায় তিন সপ্তাহ মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে নবজাতককে রেখে মৃত্যুবরণ করেছেন। এর আগে প্রসূতি জটিলতা নিয়ে ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। সেখানে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে তার একটি ছেলে সন্তানের জন্ম হয়।

সন্তান জন্ম দেওয়ার পর জটিলতা বেড়ে যাওয়া ও করোনা উপসর্গ দেখা দেওয়ায় তাকে আইসিইউতে স্থানান্তর করা হয়। করোনা টেস্টে নেগেটিভ রেজাল্ট আসে। তার ফুসফুস প্রায় ৮০% ড্যামেজ হয়ে যাওয়ার কারণে সেখান থেকে তাকে ঢাকায় রেফার্ড করা হয়। ঢাকায় নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। তবে নবজাতক সুস্থ রয়েছে।

তার এই অকাল মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন আইন ও বিচার বিভাগের সচিব মো. গোলাম সারওয়ার।

আরো পড়ুন: ভাঙচুর হওয়া বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যের সামনে ফাঁকা গুলি

আইন সচিব আজ এক শোকাবার্তায় মরহুমার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

কামরুন নাহার ২০১৬ সালে চাকরিতে যোগদান করেন। তার বাড়ি ময়মনসিংহ জেলায় এবং স্বামী ওমর ফারুক স্বাস্থ্য প্রকৌশল অধিদপ্তরের সিরাজগঞ্জের অফিসে উপ-সহকারী প্রকৌশলী পদে কর্মরত রয়েছেন।

ইত্তেফাক/এএএম

Nogod
  • সর্বশেষ খবর
  • সর্বাধিক পঠিত
close