বুধবার, ২৬ জুন ২০২৪, ১১ আষাঢ় ১৪৩১
The Daily Ittefaq

স্ত্রীকে ভিডিওকলে রেখে কলেজছাত্রের আত্মহত্যা!

আপডেট : ১২ মার্চ ২০২৩, ২২:১৮

বরিশালের উজিরপুর উপজেলায় স্ত্রীকে ভিডিওকলে রেখে আত্মহত্যা করেছেন স্বামী রিফাত জোমাদ্দার (২২)। স্বামী-স্ত্রী দুজনেই কলেজের শিক্ষার্থী।

শনিবার (১১ মার্চ) দিনগত রাত সাড়ে ১০টার দিকে উজিরপুর পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ মাদারর্শী গ্রামে হাসপাতালের সামনে ভাড়া বাসায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত রিফাত পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার বাইশঘর গ্রামের ফোরকান জোমাদ্দারের ছেলে। তিনি বরিশাল নগরীর ইনফ্রা পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের অষ্টম সেমিস্টারের শিক্ষার্থী ছিলেন। তার স্ত্রী আসমা বেগম (২০) বরিশাল রহমতপুর কৃষি কলেজের পঞ্চম সেমিস্টারের শিক্ষার্থী।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রিফাত জোমাদ্দারের নানাবাড়ি উজিরপুর পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডে। তার মা-বাবা ঢাকায় থাকেন। সেই সুবাদে নানাবাড়ির পাশেই পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ডের মাদার্শী গ্রামে হাসপাতালের সামনে মৃত হান্নান খানের বাড়িতে এক মাস ধরে বাসা থাকতেন রিফাত। কিছুদিন ধরে স্ত্রীর সঙ্গে ভালো সম্পর্ক ছিলো না বলে জানান রিফাতের পরিবারের লোকজন।

রিফাতের স্ত্রী আসমা বেগম বলেন, রিফাতের সঙ্গে ১ বছর আগে প্রেমের সম্পর্ক করে বিয়ে হয়। রিফাত রাত সাড়ে ১০টার দিকে আমার সাথে কথা বলেছে। তখন রিফাত বলে, তোমারে বিয়ের পর বাবা-মা কেউ ভালোবাসে না, এখন তুমিও আমাকে ভালোবাসো না। রিফাত আমাকে সবসময় বোরকা পরে চলাফেরা করতে বলতো। কিন্তু কিছুদিন আগে ফেসবুকে বোরকা ছাড়া ছবি আপলোড দেওয়ায় রাগ করে ৪ দিন ধরে আমার সাথে ঠিক করে কথা বলতো না।

তিনি আরও বলেন, আমাকে ভিডিওকলে কথা বলে আত্মহত্যা করেছে রিফাত। আত্মহত্যার বিষয় তাৎক্ষণিক তার বন্ধু রিয়াদ ও শাওনকে জানাই। রিয়াদ ও শাওন সংবাদ পেয়ে রিফাতের মামা শান্তকে জানায়। শান্ত লোকজন নিয়ে রিফাতকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত বলে জানান।

উজিরপুর মডেল থানা পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছে। হাসপাতালের উপস্থিত উজিরপুর থানার ওসি (তদন্ত) তৌহিদুজ্জামান সোহাগ বলেন, বছর খানেক আগে প্রেমের সম্পর্কের পর বিয়ে করেন তারা। গত ৪-৫ দিন ধরে আসমা বোরকা পরে মুখ খোলা রেখে ছবি তুলে তা ফেসবুকে দেন। এ নিয়ে অভিমান করে শনিবার রাতে স্ত্রীকে ভিডিওকল দেন। এ সময় স্ত্রীর সাথে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ওড়না দিয়ে গলায় ফাঁস লাগান। পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে উজিরপুর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

ইত্তেফাক/এসকে